Home /News /education-career /
Madhyamik 2022 Results: বাবা- কাকাই গৃহশিক্ষক, মাধ্যমিকে তৃতীয় ওড়িশা সীমান্ত ঘেঁষা গ্রামের দেবশিখা

Madhyamik 2022 Results: বাবা- কাকাই গৃহশিক্ষক, মাধ্যমিকে তৃতীয় ওড়িশা সীমান্ত ঘেঁষা গ্রামের দেবশিখা

মাধ্যমিকে তৃতীয় দেবশিখা প্রধান৷

মাধ্যমিকে তৃতীয় দেবশিখা প্রধান৷

দেবশিখা ভবিষ্যতে গ্রামের মানুষের জন্য চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন দেখে৷

  • Share this:

#এগরা: বাবা গৃহশিক্ষকতা করে সংসার চালান৷ পূর্ব মেদিনীপুরের প্রত্যন্ত গ্রামের অতি সাধারণ পরিবারের ছাত্রী সেই মেয়েই মাধ্যমিকে তৃতীয় স্থান দখল করে তাক লাগিয়ে দিল৷

এবারের মাধ্যমিকের মেধা তালিকায় পূর্ব মেদিনীপুরের ছাত্রছাত্রীদেরই দাপট সবথেকে বেশি৷ জেলার মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে মাধ্যমিকে ৬৯১ নম্বর পেয়ে যুগ্ম ভাবে রাজ্যে তৃতীয় স্থান দখল করেছে দেবশিখা৷

পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগর থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে ওড়িশা সীমান্তের কাছে প্রত্যন্ত গ্রাম চোরপালিয়া৷ গ্রামেরই শ্রী শ্রী বাসন্তী বিদ্যাপীঠের ছাত্রী ছিল দেবশিখা৷

আরও পড়ুন: মাধ্যমিকের মেধাতালিকায় প্রথম দশে ১১৪ জন! বাঁকুড়া, বর্ধমানে জয়জয়কার, আর কলকাতা?

দেবশিখার বাবা উৎপল প্রধান গৃহশিক্ষকতা করতেন৷ বাবা এবং কাকুর কাছেই বাড়িতে পড়ত দেবশিখা৷ এ ছাড়়া মাধ্যমিকের জন্য একজন শিক্ষিকার কাছে ফিজিক্স পড়ত সে৷ এ ছাড়া আর কোনও গৃহশিক্ষক ছিল না তার৷ তবে স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারা সাধ্যমতো সাহায্য করেছেন৷ দেবশিখা যে ঘরে মাধ্যমিকের প্রস্তুতি নিয়েছে, সেটিও টিনের চাল দেওয়া৷

আরও পড়ুন: ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু ২০২৩ সালের মাধ্যমিক, রইল সম্পূর্ণ পরীক্ষাসূচি...

দেবশিখা ভবিষ্যতে গ্রামের মানুষের জন্য চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন দেখে৷ মাধ্যমিকে তৃতীয় হওয়ার পর বাড়িতে মিষ্টিমুখ চলছে৷ তার মধ্যেই দেবশিখা জানালো, 'খুব অন্যরকম অনুভূতি হচ্ছে৷ ভবিষ্যতে নিট-এ বসার ইচ্ছে রয়েছে, তার পর মেডিক্যাল নিয়ে পড়াশোনার পরিকল্পনা রয়েছে৷'

বাবা উৎপাল প্রধান বলেন, 'আমার স্বপ্ন ছিল৷ আমার আর্থিক অবস্থা ভাল নয়৷ গৃহশিক্ষকতা করে সংসার চালাই৷ মেয়ে ভাল রেজাল্ট করে ডাক্তারি পড়তে পারলে আমার স্বপ্নপূরণ হবে৷'

দেবশিখার মা শম্পা মাইতি প্রধান বলেন, 'মা যা কষ্ট, পরিশ্রম করেছে, তার ফল পেয়েছে৷ কিন্তু আমিও ভাবিনি যে ও তৃতীয় হবে৷'

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Madhyamik 2022

পরবর্তী খবর