WHO on Coronavirus:দরিদ্র দেশগুলোর জন্য এক কোটি ভ্যাকসিন প্রয়োজন, জানাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

WHO on Coronavirus:দরিদ্র দেশগুলোর জন্য এক কোটি ভ্যাকসিন প্রয়োজন, জানাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

WHO

অবিলম্বে এ পরিমাণ টিকা ভাগ করে নিতে বিভিন্ন দেশ এবং ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানিগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: বিশ্বের দরিদ্রতর দেশগুলোর জন্য করোনাভাইরাসের এক কোটি ডোজ ভ্যাকসিন চায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্স গাভি পরিচালিত কোভ্যাক্স কর্মসূচির সঙ্গে অবিলম্বে এ পরিমাণ টিকা ভাগ করে নিতে বিভিন্ন দেশ এবং ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানিগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংস্থা। মূলত কোভ্যাক্স কর্মসূচির আওতায় দরিদ্রতর দেশগুলোকে এই টিকা দিতে আগ্রহী কোভ্যাক্স। শুক্রবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম ঘেব্রেইয়েসুস বলেছেন, আগেই তিনি এ বছরের প্রথম ১০০ দিনের মধ্যে সব দেশের কাছে টিকা পাঠানো নিশ্চিত করতে একযোগে কাজ শুরু করার আহ্বান জানিয়েছিলেন। সেই সময়সীমার আর মাত্র ১৫ দিন বাকি থাকলেও ৩৬টি দেশ এখনও তাদের ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর জন্য টিকা পায়নি। ফলে তাদের জন্য ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে হবে। এখনও পর্যন্ত ভ্যাকসিন না পাওয়া ৩৬ দেশের মধ্যে ১৬টিতে অবশ্য আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে টিকা পৌঁছানোর কথা রয়েছে। কিন্তু বাকি ২০টি দেশ এখনও ভ্যাকসিন সংগ্রহ বা এ সংক্রান্ত কার্যকর কোনও চুক্তিতে পৌঁছাতে সমর্থ হয়নি। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চিনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী ইউহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। এক পর্যায়ে উৎপত্তিস্থল চিনে ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব কমলেও বিশ্বের অন্যান্য দেশে এর প্রকোপ বাড়তে শুরু করে। চিনের বাইরে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ১৩ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষাপটে গত ১১ মার্চ দুনিয়াজুড়ে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। তবে আশার কথা, এরইমধ্যে করোনার একাধিক টিকা আবিষ্কৃত হয়েছে। ওয়ার্ল্ডোমিটারস-এর তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা তিন কোটি আট লাখ ৫৩ হাজার ৩২। মৃত্যু হয়েছে পাঁচ লাখ ৬১ হাজার ১৪২ জনের।

    Published by:Simli Dasgupta
    First published: