Home /News /coronavirus-latest-news /
Covid In Bengal : রাজ্যে দৈনিক করোনা মৃত্যু ১০০-র দোরগোড়ায়, লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ!

Covid In Bengal : রাজ্যে দৈনিক করোনা মৃত্যু ১০০-র দোরগোড়ায়, লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ!

এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ১৫,২০,০৫৫। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থতার হার ৯৮.২২ শতাংশ। এখনও পর্যন্ত মোট করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১,৬৯,৪০,৪২৭ জনের। বর্তমানে রাজ্যে সেফ হোমের সংখ্যা ২০০।

এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ১৫,২০,০৫৫। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থতার হার ৯৮.২২ শতাংশ। এখনও পর্যন্ত মোট করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১,৬৯,৪০,৪২৭ জনের। বর্তমানে রাজ্যে সেফ হোমের সংখ্যা ২০০।

গত ২৪ ঘণ্টায় এরাজ্যে কোভিড-১৯ (Covid-19) -এ আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৪১১ জন ।

  • Share this:

    #কলকাতা : করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের বাড়বাড়ন্তে প্রতিদিনই আরও ভয়ঙ্কর হচ্ছে রাজ্যের পরিস্থিতি ৷ শেষ ২৪ ঘণ্টায় ফের রেকর্ড সংক্রমণ হয়েছে রাজ্যে৷ স্বভাবতই রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন সরকার সংক্রমণ রুখতে বেশ কিছু কড়াকড়ি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শুক্রবার৷ এদিন সন্ধ্যায় জারি করা বিধিনিষেধে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করা হয়েছে পান্থশালা, রেস্তোরাঁ, সুইমিং পুল, জিম ইত্যাদি ৷ বন্ধ করা হয় বাজার দোকানও ৷

    রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় এরাজ্যে কোভিড-১৯ -এ আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৪১১ জন । একদিনে কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে আরও ৯৬ জনের । গতকাল আক্রান্ত হয়েছিলেন ১৭ হাজার ৪০৩ জন ৷ মৃত্যু হয় ৮৯ জনের ৷ গত বছর এ রাজ্যে দৈনিক সর্বাধিক সংক্রমণ‌ হয়েছিল ২২ অক্টোবরে । ওই দিন এ রাজ্যে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছিলেন ৪ হাজার ১৫৭ জন । গত বছরের কোভিড-19-এর দৈনিক সংক্রমণের সর্বাধিক এই রেকর্ড চলতি বছর এ রাজ্য অতিক্রম করে গিয়েছে গত ১১ এপ্রিল । ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হল ৮ লাখ ২৮ হাজার ৩৬৬ জন ৷ ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ১১ হাজার ৩৪৪ জনের৷

    করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে এ রাজ্যেও সংক্রমণ‌ এবং মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে । এই অবস্থায় কোভিড-১৯ -এর রোগীদের জন্য রাজ্যের সরকারি এবং বেসরকারি বিভিন্ন হাসপাতালে বেড বাড়ানোর কথা বলেছে স্বাস্থ্য দফতর। গত বছর যে সব সরকারি হাসপাতালে কোভিড-১৯ -এর রোগীদের জন্য পৃথক ওয়ার্ডের ব্যবস্থা করা হয়নি, এ বছর সেই সব হাসপাতালে কোভিড রোগীদের জন্য পৃথক ওয়ার্ড চালু করা হচ্ছে ।

    বাড়ানো হচ্ছে সেফ হোম। বিভিন্ন সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোগ ও রয়েছে শহরজুড়ে। ইতিমধ্যে গতকালই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা তাঁদের ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে সেফ হোম করার আর্জি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে একটি লিখিত আবেদন জানায়। যদিও এখনো এ বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। অন্যদিকে বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি আবাসনগুলিতেও কমিউইনিটি হল ও পার্কিং -এ সেফ হোম করার ভাবনা চিন্তা করছেন প্রশাসনিক কর্তারা।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    Tags: Coronavirus, West Bengal Covid 19 cases

    পরবর্তী খবর