Firhad Hakim's Daughter : কোভিড ভ্যাকসিনেও 'ফ্রন্টলাইনে' ফিরহাদ! আবেগঘন পোস্টে বাংলার মানুষকে আর্তি মেয়ের...

মেয়ের আর্তি বাবার পাশে থাকার... Photo : Collected

বাবা ফিরহাদ হাকিমকে (Firhad Hakim) দেখতে প্রেসিডেন্সি জেলে দফায় দফায় ছুটে যাচ্ছেন মেয়েরা ও পরিবার। ভেঙে পড়ছেন সোশ্যাল মিডিয়াতেও। আজ একটি আবেগপূর্ণ ট্যুইট পোস্ট করে বাংলার মানুষের জন্য বাবার আত্মত্যাগের কথা মনে করালেন মেয়ে সাবা হাকিম (Sabba Hakim)।

  • Share this:

    #কলকাতা : আমফান ঝড়ের তাণ্ডবেই হোক অথবা করোনা পরিস্থিতি। বাংলার মানুষের পাশে থেকেছেন বাবা ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim)। নারদা মামলায় আজ তিনি প্রেসিডেন্সি জেলে বন্দি। নিম্ন আদালতের জামিনের রায়ে স্থগিতাদেশ দিয়ে ফিরহাদ সহ আরও তিন নেতা ও মন্ত্রীকে জেল হেফাজতে রাখার রায় দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। শারীরিক ভাবে পুরোপুরি সুস্থ নন বাবা ববি হাকিম। সেই কারণে চিকিৎসকেরা তাঁকে এস এস কে এম হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দিলেও তা মানেননি তিনি। বাবাকে দেখতে প্রেসিডেন্সি জেলে দফায় দফায় ছুটে যাচ্ছেন মেয়েরা ও পরিবার। ভেঙে পড়ছেন সোশ্যাল মিডিয়াতেও। আজ একটি আবেগপূর্ণ ট্যুইট পোস্ট করে বাংলার মানুষের জন্য বাবার আত্মত্যাগের কথা মনে করালেন মেয়ে সাবা হাকিম (Sabba Hakim)।

    পেশায় চিকিৎসক সাবা তাঁর পোস্টে লেখেন "কোভ্যাক্সিনের তৃতীয় দফার ট্রায়ালে ভ্যাকসিন নিয়ে মানুষের মনের সংশয় কাটাতে এগিয়ে এসেছিলেন ফিরহাদ হাকিম। করোনা যুদ্ধে ফ্রন্টলাইনার হিসেবে প্রথম ভ্যাকসিনের ডোজটি নেন তিনি।" সাবা এও লেখেন,  সেইসময় নিকটজনেরা অনেকেই ফিরহাদকে ভ্যাকসিন নিতে বারণ করেছিলেন। সেই সময় তাঁর উত্তর ছিল এই অতিমারীর বিরুদ্ধে লড়াইতে যা যা করা যায় আমি করবো, মানুষকে বাঁচাবো। আর সেই লক্ষ্যেই বাংলায় করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে প্রথম স্বেচ্ছাসেবী হয়েছিলেন ফিরহাদ হাকিম।"

    ট্যুইটার পোস্টে নিজের আবেগ লোকাতে পারেননি ফিরহাদ কন্যা। বাংলার মানুষকে বাবা মন্ত্রী ববি হাকিমের পাশে থাকার আর্তি জানিয়ে কন্যা সাবা তাঁর পোস্টে 'বেঙ্গলস্ট্যান্ডউইথববি' হ্যাসট্যাগ ব্যবহার করে পশ্চিম বঙ্গের মানুষকে তাঁর পাশে থাকার আবেদন জানান। সাবা হাকিমের এই আবেগঘন পোস্টে নেটিজেনদের মধ্যেও প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। অনেকেই তাঁকে মানসিকভাবে শক্ত থাকার পরামর্শ দেন। একইসঙ্গে পোস্টটি রিট্যুইট করে ফিরহাদ হাকিমও তাঁর পরিবারের পাশে থাকার বার্তাও দেন নেটিজেনদের একাংশ ও দলীয় সমর্থকেরা।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: