করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

COVID-19: দেশে যখন একজনও আক্রান্ত ছিল না তখনই আমরা বিমানবন্দরে স্ক্রিনিং শুরু করি: PM Modi

COVID-19: দেশে যখন একজনও আক্রান্ত ছিল না তখনই আমরা বিমানবন্দরে স্ক্রিনিং শুরু করি: PM Modi

প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘‘ আমাদের এখানে যখন একজনও আক্রান্ত ছিল না তখনই আমরা বিমানবন্দরে স্ক্রিনিং শুরু করি। ১০০ জন আক্রান্ত হওয়ার আগেই আমরা বিদেশাগতদের জন্যে ১৪ দিনের কেয়ারেন্টাইন চালু করি।’’

  • Share this:

#নয়াদিল্লি:প্রত্যাশামতোই আগামী ৩ মে পর্যন্ত দেশে লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানোর কথা মঙ্গলবার ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ তিনি জানান, গোটা দেশ করোনার বিরুদ্ধে ভালমতোই লড়াই করছে ৷ সোশ্যাল ডিস্টেন্সিং ও লকডাউনের সুফল পাচ্ছে গোটা দেশই ৷ কোভিড-১৯ মোকাবিলায় অন্যান্য অনেক বড় দেশ যা করতে ব্যর্থ ৷ ভারত তা করে দেখিয়েছে ৷ অনেক আগেই এ দেশের বিভিন্ন এয়ারপোর্টে স্ক্রিনিং ব্যবস্থা চালু হয়েছে ৷ বাইরে থেকে আসা যাত্রীদের ১৪ দিনের সেলফ কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে ৷ দেশে যখন একজনও করোনা আক্রান্ত ছিল না, তখন থেকেই বিমানবন্দরগুলিতে স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে ৷

প্রধানমন্ত্রীর মতে, ‘‘করোনার সঙ্গে ভারতের লড়াই জোরদার হয়েছে। আপনাদের ত্যাগের জন্যেই এটা সম্ভব হয়েছে। আপনারা কষ্ট সহ্য করেও দেশকে বাঁচিয়েছেন। খাওয়া, যাতয়াত, সব কিছু নিয়েই ভোগান্তি হয়েছে। কিন্তু আপনারা সেনাবাহিনীর মত কাজ করেছেন। সংবিধানে যে সাধারণ মানুষের কথা বলা হয়েছে, তারাই এরা। বাবাসাহেবের জন্মদিনে ভারতের এই সামরিক শক্তিই বাবাসাহেব আম্বেডকরের প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ। আমি গোটা দেশের তরফে বাবাসাহেবকে প্রণাম জানাই ৷’’

মোদি আরও বলেন, ‘‘ আমাদের এখানে যখন একজনও আক্রান্ত ছিল না তখনই আমরা বিমানবন্দরে স্ক্রিনিং শুরু করি। ১০০ জন আক্রান্ত হওয়ার আগেই আমরা বিদেশাগতদের জন্যে ১৪ দিনের কেয়ারেন্টাইন চালু করি।বন্ধ হয় মল, পার্ক সিনেমাহল। দেশে লকডাউন শুরু হয় ৫০০ জন আক্রান্ত হতেই। দুনিয়ার অন্য দেশের তুলনায় আমরা অনেক এগিয়ে আছি। কোভিড-১৯ সংক্রমণ ভারতের থেকে ৩০ গুণ বেশি অন্যান্য দেশে। আমরা সমন্বয়ী পদ্ধতিতে কাজ করেই এই জায়গায় এসেছি। আমরা সোশ্যাল ডিস্টেন্সিং আর লকডাউনের ফল পাচ্ছি।’’

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: April 14, 2020, 2:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर