corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা যুদ্ধে সামিল ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটার রিচা ঘোষ, দান করলেন ১ লক্ষ টাকা, লকডাউনে বাড়িতেই অনুশীলন

করোনা যুদ্ধে সামিল ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটার রিচা ঘোষ, দান করলেন ১ লক্ষ টাকা, লকডাউনে বাড়িতেই অনুশীলন

ভারতীয় দলে খেলা প্রথম মহিলা ক্রিকেটার হিসেবে করোনা মোকাবিলায় সাহায্যের হাত বাড়ালেন এই ডানহাতি অলরাউন্ডার।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: করোনা যুদ্ধে এবার সামিল হলেন ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য বাংলার রিচা ঘোষ। মুখ্যমন্ত্রীর আপৎকালীন রিলিফ ফান্ডে ১ লক্ষ টাকা অনুদান দিলেন শিলিগুড়ির রিচা। শিলিগুড়িতে নিজের বাড়িতেই রয়েছেন সদ্য মহিলাদের বিশ্বকাপ খেলে ফেরা রিচা। ১ লক্ষ টাকার চেক রিচার বাবা তুলে দেন সরকারি আধিকারিকের হাতে। বাংলার হয়ে খেলা এবং ভারতীয় জার্সিতে বিশ্বকাপ খেলার উপার্জন থেকে ১ লক্ষ টাকা অনুদান দিলেন বছর ষোলোর রিচা ঘোষ। ভারতীয় দলে খেলা প্রথম মহিলা ক্রিকেটার হিসেবে করোনা মোকাবিলায় সাহায্যের হাত বাড়ালেন এই ডানহাতি অলরাউন্ডার।

অনুদানের পর রিচা জানান, "আমরা খুব কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি। টেলিভিশনের সবসময় দেখছি কতটা সমস্যায় রয়েছে দেশবাসী। সবাই মিলে লড়াই করতে হবে করোনা মোকাবিলায়। আমি খেলে পাওয়া পারিশ্রমিক থেকে সাহায্য করলাম। আশা করি সবাই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসবেন। দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে।"

করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে তিন সপ্তাহের লকডাউন চলছে। বাকিদের মতো বাড়ি থেকে বেরোনো বন্ধ রিচা ঘোষের। তাই নিজেকে ফিট রাখতে বাড়ির ছাদে ফিটনেস করছেন স্মৃতি মান্ধানাদের সতীর্থ। মাঠে গিয়ে প্র্যাকটিসও বন্ধ। তবে রিচা ক্রিকেট বন্ধ করেননি। বাড়িতেই এক টুকরো জায়গায় নেট লাগিয়ে ব্যাটিং অনুশীলন করছেন। রিচাকে অনুশীলন করাচ্ছেন তার বাবা মানবেন্দ্র ঘোষ।

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ ফাইনালে ব্যাট হাতে নেমেছিলেন রিচা। কনকাশন সাব হিসেবে খেলেছিলেন ম্যাচে। কলকাতা ফেরার পর বাংলা দলের সঙ্গে অনুশীলন করলো সেভাবে আর ম্যাচ খেলা হয়নি। তাই নিজের ব্যাটিং স্কিল বাড়াতে লকডাউনে বাড়ির ভেতরই অনুশীলন চালাচ্ছেন রিচা ঘোষ।

এদিকে সিএবির তরফ থেকে বাংলার ক্রিকেটারদের এবং ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত প্রত্যেকের কাছে রাজ্য সরকারের রিলিফ ফান্ডে অনুদান দেওয়ার জন্য আবেদন করা হয়েছে। ক্লাব গুলোর কাছে আবেদন রাখা হয়েছে। শুক্রবার আবেদনে সাড়া দিয়ে ২৫ হাজার টাকা দেন প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা বাংলা মহিলা দলের কোচ শিব শংকর পাল। এছাড়া এরিয়ান ক্লাবের পক্ষ থেকে দু লক্ষ টাকা সহ আরো বেশ কয়েকটি ক্লাবের পক্ষ থেকে রিলিফ ফান্ডে অনুদান দেওয়া হয়। সিএবি তরফ থেকে ইতিমধ্যেই ২৫ লক্ষ টাকা মুখ্যমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে দেওয়া হয়েছে। সিএবি প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া ব্যক্তিগত ভাবে ৫ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন। বাকি পদে থাকা কর্তারা ১ লক্ষ টাকা করে সাহায্য করেছেন। ভবিষ্যতে আরও অনুদান দেওয়া হবে বলে জানান সিএবি প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া।

Eeron Roy Barman

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: March 28, 2020, 6:33 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर