COVID19 New Variant: করোনার নতুন রূপ কতটা ভয়ঙ্কর? কীভাবে আগলে রাখবেন শিশুদের?

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছেন যে Delta + variant (COVID19) ভারতে তৃতীয় ঢেউয়ের (coronavirus third wave) কারণ হতে পারে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছেন যে Delta + variant (COVID19) ভারতে তৃতীয় ঢেউয়ের (coronavirus third wave) কারণ হতে পারে।

  • Share this:

    #মুম্বই: করোনার দ্বিতীয় ঢেউ কাটতে না কাটতেই ডেল্টা প্লাস ভেরিয়েন্টের (Delta Plus variant) ২১টি কেস মহারাষ্ট্রে পাওয়া গিয়েছে ইতিমধ্যেই । ডেল্টা প্লাস ভেরিয়েন্ট করোনা ভাইরাসের (COVID19) অত্যন্ত সংক্রামক হিসাবে বিবেচিত৷ বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করছেন যে, এই রূপটিই তৃতীয় ঢেউয়ের (Coronavirus Third Wave)জন্য দায়ী থাকবে৷ মহারাষ্ট্র ছাড়াও কেরল, কর্ণাটক ও মধ্য প্রদেশে এর সন্ধান মিলেছে। যদিও গোটা বিশ্বে এখনও পর্যন্ত এই ভ্যারিয়েন্টের ২০০টি বিকল্পের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে, যার মধ্যে এর মধ্যে ৩০টি দেশের৷

    মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক এই ডেল্টা প্লাস (Delta Plus) নিয়ে রীতিমতো উদ্বেগ প্রকাশ করেছে৷ এই নিয়ে রাজ্য সরকারগুলিকেও সতর্ক করা হয়েছে৷

    নতুন ডেল্টা প্লাস রূপটি হল ডেল্টা রূপের রূপান্তর (B.1.617.2) যা ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউতে মারাত্মক আকার ফেলেছিল। ভারত ছাড়াও, ডেল্টা প্লাস এখনও পর্যন্ত বিশ্বের ৯টি দেশে পাওয়া গিয়েছে। এই দেশগুলি হল আমেরিকা, ইংল্যান্ড, পর্তুগাল, সুইজারল্যান্ড, জাপান, পোল্যান্ড, নেপাল, চিন, রাশিয়া।

    আরও পড়ুনকরোনার জেরে গ্রামবাসীদের মানসিক সমস্যা? বিনামূল্যে মিলছে কাউন্সিলিং-এর পরিষেবা

    এই মুহূর্তে মহারাষ্ট্রে (Maharashtra Delta Plus) ডেল্টা প্লাসের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। মহারাষ্ট্রের রত্নগিরিতে সর্বাধিক ৯জন ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে৷ এরপর রয়েছে জলগাঁও৷ যেখানে ৭জন আক্রান্ত৷ মুম্বইয়ের ২জন এবং পালঘর, থানে এবং সিন্ধুদুর্গের একটি করে কেস নজরে এসেছে৷ কেরলে পাওয়া তিনজন আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে পলক্কড় ও পথনমথিট্টায়। এর মধ্যে চার বছরের শিশু আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে।

    এইমসের চিকিৎসক শুভ্রদীপ কর্মকার বলেছেন যে, ডেল্টা প্লাসের একটি অতিরিক্ত মিউট্যান্ট K417N, যা ডেল্টাকে (B.1.617.2) ডেল্টা প্লাসে রূপান্তর করে। তিনি বলেছিলেন যে জল্পনা-কল্পনা রয়েছে যে এই মিউট্যান্টটি আরও সংক্রামক এবং এটি আলফা সংস্করণের চেয়ে ৩৫-৬০% বেশি সংক্রামক। তবে ভারতে এর সংখ্যা খুব কম। এটি এখনও উদ্বেগের কারণ নয় এবং এর সংক্রমণের ঘটনা এখনও কম।

    দেশে পাওয়া এই ভেরিয়েন্টটির উপরে ভ্যাকসিন কতটা কার্যকর হবে, তা নিয়ে গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা। মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ ডিপার্টমেন্টের প্রাক্তন ডিরেক্টর cnbc.com সাথে কথোপকথনে আশ্বস্ত করেছেন যে, এই ভেরিয়েন্সের উপরেও ভ্যাকসিন কার্যকর হতে পারে।

    মহারাষ্ট্রের ডেল্টা + ভ্যারিয়েন্ট সম্পর্কে সবথেকে বেশি উদ্বেগ প্রকাশ করা হচ্ছে। গত সপ্তাহে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের একটি বৈঠকে বলা হয়েছিল যে এই রূপটি রাজ্যে তৃতীয় ঢেউয়ের কারণ হতে পারে। এই বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেও উপস্থিত ছিলেন। আরও বলা হয়েছিল যে রাজ্যে সক্রিয় মামলার সংখ্যা আট লক্ষে পৌঁছতে পারে। এর মধ্যে দশ শতাংশ শিশু আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

    স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছেন যে Delta + variant ভারতে তৃতীয় ঢেউয়ের কারণ হতে পারে। এবং এটিও আশঙ্কা করা হচ্ছে যে, এই রূপটি মানবদেহের প্রতিরোধ ক্ষমতাও পুরোপুরি নষ্ট করে দিতে পারে। এখনও পর্যন্ত ভারতে এই রূপটির উপস্থিতি কম। তবে কবে এটি ছড়িয়ে পড়বে, তা বলা মুশকিল৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: