Corona Vaccine: কোনও ভ্যাকসিন ১০০% কার্যকরী নয়, পরে প্রয়োজনে বুস্টার ডোজ! নতুন নিদান কেন্দ্রের

কোনও ভ্যাকসিন ১০০% কার্যকরী নয়, পরে প্রয়োজনে বুস্টার ডোজ! নতুন নিদান কেন্দ্রের

নীতি আয়োগের (NITI Aayog Health) স্বাস্থ্যের সদস্য ডক্টর ভিকে পাল একটি গবেষণার কথা উল্লেখ করে জানিয়েছেন, পরবর্তীতে টিকার কার্যকারিতা ধরে রাখতে বুস্টার ডোজ (Booster Shot) দেওয়া নিয়ে আলোচনা চালানো হচ্ছে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে (Coronavirus 2nd Wave) বেসামাল ভারত। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বার বার টিকাকরণের (Corona Vaccination) উপর জোর দেওয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার বৃহস্পতিবার একটি বৈঠকে জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের (Covid-19) বিরুদ্ধে কোনও টিকাই ১০০ শতাংশ কার্যকরী নয়। ফলে পরবর্তীতে বুস্টার ডোজ দেওয়া নিয়ে আলোচনা চালাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। নীতি আয়োগের (NITI Aayog Health) স্বাস্থ্যের সদস্য ডক্টর ভিকে পাল একটি গবেষণার কথা উল্লেখ করে জানিয়েছেন, পরবর্তীতে টিকার কার্যকারিতা ধরে রাখতে বুস্টার ডোজ (Booster Shot) দেওয়া নিয়ে আলোচনা চালানো হচ্ছে।

    নীতি আয়োগ স্বাস্থ্যের সাংবাদিক বৈঠকে একটি প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় এই মন্তব্য করেন ডক্টর পাল। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে পরবর্তীতে কোনও বুস্টার ডোজ ভ্যাকসিন প্রয়োজন কিনা সেই প্রশ্নের উত্তরেই তিনি একথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, 'যদি এর কোনও প্রয়োজন থাকে, তবে জনগণকে তা জানানো হবে।' একই সঙ্গে সরকার দেশের প্রত্যেক মানুষকে করোনার বিরুদ্ধে টিকাকরণে উৎসাহিত করছে বলেও ফের একবার মনে করিয়ে দেন তিনি।

    সাংবাদিক সম্মেলনে ডক্টর পাল বলেছেন, 'যদি বুস্টার ডোজের প্রয়োজন হয় তবে তা আগে থেকেই জানিয়ে দেওয়া হবে। এ নিয়ে বিস্তর গবেষণা চালানো হচ্ছে। কোভ্যাক্সিন দিয়ে ট্রায়াল চালানো হচ্ছে যে, ছয় মাস পর এতে ফের বুস্টার ডোজ দেওয়ার প্রয়োজন হবে কিনা। করোনার গাইডলাইন মেনে চলুন। টিকার দুটি ডোজ নিন, তার পর করোনাবিধি ঠিক ভাবে মেনে চলুন। আপনি কঠিন এই রোগ থেকে মুক্ত থাকবেন, তবু আপনাকে নিয়ম পালন করতে হবে। এই সুরক্ষা ১০০ শতাংশ নয়। এর পরেও যদি কোনও বুস্টার ডোজ প্রয়োজন পড়ে তবে তা আগেভাগেই জানিয়ে দেওয়া হবে।'

    দেশে করোনা পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর হলেও কমছে দৈনিক করোনা সংক্রমণ। বেশ কিছু দিন ধরে দেশের দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা নিম্নমুখী। যা খানিকটা হলেও আশার আলো দেখাচ্ছে গবেষকদের। দেশে একদিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা নামল ২ লক্ষের নিচে। দেশের বেশ কিছু অংশে সংক্রমণ কমতে দেখা গিয়েছে, যার প্রভাবে দেশের সক্রিয় করোনা কেসও খানিকটা হ্রাস পেয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৮৬ হাজার ৩৬৪ জন। গত ৪৪ দিন পর দেশে দৈনিক করোনা আক্রান্তর সংখ্যা সবচেয়ে কম। প্রসঙ্গত, ২০২১ সালে ১৪ এপ্রিল দেশে সংক্রমিতের সংখ্যা ১.৮৪ লাখ ছিল। তারপর থেকে গ্রাফ ক্রমাগত চড়েছে । এই বৃদ্ধির জেরে করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৭৫ লক্ষ ৫৫ হাজার ৪৫৭ জন। বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় স্থানে ভারত। প্রথম স্থানে রয়েছে আমেরিকা।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: