corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আক্রান্তের সিসিইউতে বেড পেতে ঘুষের দাবি! মেডিক্যাল কলেজে দালালচক্রের শিকার রোগী পরিবার

করোনা আক্রান্তের সিসিইউতে বেড পেতে ঘুষের দাবি! মেডিক্যাল কলেজে দালালচক্রের শিকার রোগী পরিবার
ফাইল ছবি

খাস কলকাতার বুকে সরকারি হাসপাতালে সংকটাপন্ন করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় টাকা চাইছে অসাধু দালালচক্র !

  • Share this:

#কলকাতা: খাস কলকাতার বুকে সরকারি হাসপাতালে সংকটাপন্ন করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় টাকা চাইছে অসাধু দালালচক্র ! সিসিইউ বা ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে বেড পেতে দাবি করছে ১২,০০০ টাকা ! এখানেই শেষ নয় । অভিযোগ, সংবাদমাধ্যমকে জানালে রোগীকে পরিষেবা না দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে দিনে-দুপুরে ।

দক্ষিণ ২৪ পরগনা কুলতলী বাসিন্দা বছর ৬৫-র এক বৃদ্ধা সম্প্রতি জ্বর শ্বাসকষ্ট-সহ নানাবিধ উপসর্গে আক্রান্ত হন । অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে পরিবার । আর এরপরই দালালচক্রের খপ্পরে পড়েন তাঁরা । রোগীর পরিবারের অভিযোগ , মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে আসার পরই জরুরি বিভাগের চিকিৎসকরা ওই বৃদ্ধার শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে তাঁকে সিসিইউ অর্থাৎ ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে ভর্তির সুপারিশ করেন । তাঁর টিকিটে পরিষ্কার লিখে দেওয়া হয় গ্রিন বিল্ডিং ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে যেন অবিলম্বে বৃদ্ধাকে ভর্তি করা হয় । সেইমতো তাঁকে নিয়ে পরিবারের সদস্যরা গ্রিন বিল্ডিং-এ পৌঁছন । এর পরের অভিজ্ঞতা মারাত্মক ।

বৃদ্ধার পরিবারের দাবি, এদিন তাঁরা রোগীকে নিয়ে গ্রিন বিল্ডিংয়ে পৌঁছনোর পর ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটের ওয়ার্ডবয়রা সাফ জানিয়ে দেন, সেখানে কোনও জায়গা খালি নেই । তাই রোগী ভর্তি নেওয়া যাবে না । এরপর বৃদ্ধার ছেলে তাঁদের জানান,  হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসকরাই সিসিইউ-তে ভর্তির জন্য কাগজে লিখে দিয়েছেন । কিন্তু তাতেও নাকি কোনও হেলদোল ছিল না চুক্তিভিত্তিক ওয়ার্ড বয়দের । তাঁরা তাঁদের দাবিতে অনড় ছিলেন । জানান, সিসিইউতে কোনও বেড খালি নেই । আর একান্তই রোগী ভর্তি করতে হলে নগদ ১২০০০ টাকা দিতে হবে ।

সামান্য চাষের জমিতে চাষ করে সংসার চলে বৃদ্ধার পরিবারের । তাই এত টাকা দেওয়ার সামর্থ্য নেই । ফলে ওয়ার্ডবয়দের হাতে-পায়ে ধরে কাকুতি-মিনতি করে রফা হয় শেষমেষ পাঁচ হাজারে । কোনওরকমে সেই টাকা দিয়ে বৃদ্ধাকে সিসিইউ'তে ভর্তি করা হয় । এই খবর জানতে পারে NEWS 18 বাংলা । শুরু হয় খোঁজ ।

সোমবার NEWS 18 বাংলার অন্তর্তদন্ত উঠে আসে আসল সত্যি । বৃদ্ধার পরিবারের এক সদস্য জানিয়েছেন, টাকা না দিলে পরিষেবা না দেওয়ার হুমকি দেওয়া তাঁদের । তবে একটা নয় , করোনা হাসপাতাল মেডিক্যাল কলেজে এ ধরনের একাধিক অভিযোগ উঠছে । তবে রোগীদের পরিবারগুলি জানাচ্ছে , হাসপাতালের চিকিৎসক , নার্সদের ব্যবহার এবং তাঁদের চিকিৎসার মানসিকতা প্রশংসনীয় ।

এ প্রসঙ্গে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সুপার চিকিৎসক ইন্দ্রনীল বিশ্বাস জানান , যদি এমনটা হয়ে থাকে তাহলে সেটা ভীষণ অন্যায় এবং অনৈতিক । যাঁরা টাকা দিতে বাধ্য হয়েছেন বলে অভিযোগ করছেন তাঁরা লিখিতভাবে আমার কাছে অভিযোগ জানান । ঘটনার সত্যতা প্রমাণিত হলে কড়া ব্যবস্থা নেব । সম্প্রতি করোনা হাসপাতাল হওয়ার জন্য বেশকিছু চুক্তিভিত্তিক ছেলেমেয়ে নিয়োগ করা হয়েছে । তাদেরই কেউ এই ধরনের অনৈতিক কাজ করছেন কিনা তা আমরা খতিয়ে দেখছি ।

AVIJIT CHANDA

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 15, 2020, 9:57 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर