Election Commission : কোভিড নিয়ম অমান্যে প্রয়োজনে জনসভা 'ব্যান'! নয়া নির্দেশিকা কমিশনের

Election Commission : কোভিড নিয়ম অমান্যে প্রয়োজনে জনসভা 'ব্যান'! নয়া নির্দেশিকা কমিশনের

কমিশনের নির্দেশিকা Photo-Flie Photo

"ভোট প্রচারে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মগুলি না মানলে রেয়াত করা হবে না বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের স্টার ক্যাম্পেইনারদেরও।"

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : তিন রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভোট মিটে যাওয়ার পর কোভিড নিয়ে নয়া নির্দেশিকা জারি করল নির্বাচন কমিশন ৷ কোভিড নিয়ম না-মানলে প্রয়োজনে প্রার্থী ও প্রচারকারীদের মিছিল রোড শো ও জনসভা বাতিল করা হবে বলে জানিয়েছে কমিশন ৷

    কমিশন নয়া নির্দেশিকায় স্পষ্ট জানিয়েছে ভোট প্রচারে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মগুলি না মানলে রেয়াত করা হবে না বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের স্টার ক্যাম্পেইনারদেরও। পরিস্থিতি সেরকম হলে নিষিদ্ধ করা হতে পারে তাঁদেরও৷ নয়া নির্দেশিকায় এ কথা জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন ৷ গত ৬ এপ্রিল তিন রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ভোটপর্ব মিটে যাওয়ার তিনদিন পর ১০ এপ্রিল এই নির্দেশিকা জারি করেছে কমিশন ৷

    নির্বাচনী প্রচার ও জনসভায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরার মতো কমিশনের নির্দেশিকা মানা হচ্ছে না। এই সংক্রান্ত বহু অভিযোগ জমা পড়েছে কমিশনের কাছে। কমিশন বলেছে, "কমিশনের নজরে এসেছে বেশ কিছু জায়গায় একেবারেই মানা হচ্ছে না করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা৷ এমনকী প্রচারকর্মী, রাজনৈতিক নেতা ও প্রার্থীরা নিজেরাই প্রচার চালানোর সময়ে মঞ্চে মাস্ক পরছেন না এমন চিত্র বার বারই দেখা গিয়েছে টেলিভিশনের পর্দা ও সামাজিক মাধ্যমগুলোতে৷ এটা করায় রাজনৈতিক দলগুলি ও প্রার্থীরা এবং জনসভায় অংশগ্রহণকারী জনতার মধ্যে সংক্রমণ ছড়ানোর প্রবল ঝুঁকি তৈরি হচ্ছে ৷ তাই সেক্ষেত্রে কমিশন নিয়ম না-মানা প্রার্থী বা দলের জনসভা, মিছিল ইত্যাদি নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে দ্বিধা করবে না বলেই কমিশনের নয়া নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে।

    এদিকে অতিমারীতে নির্বাচন বন্ধ করা ও কোভিড নিয়ম না মানার অভিযোগে দুদিন আগেই কমিশনের অফিসের সামনেই PPE পরে রাস্তায় শুয়ে প্রতিবাদ জানান বেশ কিছু মানুষ। অন্যান্য রাজ্যের মত এ রাজ্যেও গত কয়েকদিনে হু হু করে বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা দু’হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যে অবিলম্বে বন্ধ করার দাবি নিয়ে অভিনব প্রতিবাদ জানানা একদল মানুষ। বুধবার নির্বাচন কমিশনের অফিসের সামনেই পিপিই কিট পরে রাস্তায় শুয়ে পড়ে প্রতিবাদ জানান তাঁরা। একটি অরাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে ৮ থেকে ১০ জন এই প্রতিবাদ কর্মসূচিতে শামিল হন।

    করোনা আবহে ভোট ৷ তাই কোভিড বিধি মেনেই নির্বাচন হওয়ার কথা বার বার বলেছে নির্বাচন কমিশন৷ সেইমত সব ভোটকর্মীদের করোনা টিকাকরণেরও ব্যবস্থা করা হয় আগেভাগেই। কিন্তু জনসভাগুলোতে ঠেকানো যাচ্ছেনা ভিড়। মানুষ যাবতীয় কোভিড নিয়মকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে জনস্রোতে গা ভাসাচ্ছেন। আর আশঙ্কা করা হচ্ছে তাতেও ত্বরান্বিত হচ্ছে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ এর গতি। তাই পরিস্থিতি হাতের বাইরে যাওয়ার আগেই রাশ টানতে মরিয়া নির্বাচন কমিশন।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: