COVID19 Tollywood: করোনা আক্রান্ত অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা ভট্টাচার্য, ভর্তি হাসপাতালে

প্রিয়াঙ্কা ভট্টাচার্য হাসপাতালে

অন্যদিকে প্রিয়াঙ্কার খুব ভাল বন্ধু মিঠাই (Mithai posts for Priyanka Babli Bhattacharjee) অর্থাৎ সৌমিতৃষাও তাঁর জন্য প্রার্থণা করে পোস্ট করেছেন৷

  • Share this:

    #কলকাতা: করোনা আক্রান্ত (COVID19)হয়ে হাসপাতালে ভর্তি অভিনেত্রী এবং বাংলা ধারাবাহিকের জনপ্রিয় মুখ প্রিয়াঙ্কা ভট্টাচার্য (Priyanka Babli Bhattacharjee)৷ শুধুমাত্র তিনি নন, বাড়িতে তাঁর মা-বাবা-ভাই, সকলেই করোনা আক্রান্ত৷ এঁদের মধ্যে প্রিয়াঙ্কার অবস্থা কিছুটা অবনতি হওয়ায় তাঁকে ভর্তি করতে হয় হাসপাতালে৷ যেহেতু বাড়ির সকলে করোনা আক্রান্ত, তাই প্রিয়াঙ্কাকে হাসপাতালে ভর্তি করা থেকে ডাক্তারদের সঙ্গে কথা বলা, সবটাই করছেন তাঁর বন্ধু অরিত্র৷ আপাতত হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে প্রিয়াঙ্কার৷ তিনি নিজেও জানিয়েছেন যে, তিনি কোভিড পজিটিভ,নার্সিংহোমে ৷ স্বাভাবিক কারণে তিনি সকলের ফোন ধরতে পারছেন না, বা মেসেজের উত্তরও দিতে পারছেন না৷ তিনি লিখেছেন "যে, লড়াই করছেন এবং শীঘ্রই আরও মনের জোর নিয়ে ফিরে আসবেন৷ প্রার্থনা করুণ৷"

    কিছুদিন আগেই তিনি ঘরে বসেই জন্মদিন পালন করেন৷ আর তারপরই এই অবস্থা৷

    প্রিয়াঙ্কার বন্ধু অরিত্র জানান যে, "শনিবার প্রিয়াঙ্কার অবস্থা কিছু খারাপ হয়৷ জ্বর ছিল, কাশিও ছিল৷ তড়িঘড়ি সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ কিছু জটিলতা রয়েছে৷ তবে চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছে ভাল৷ মাঝেমধ্যে প্রয়োজন হচ্ছে অক্সিজেনের৷ ওষুধও শুরু হয়েছে৷ প্রতিদিন ডাক্তারদের সঙ্গে আমার কথা হচ্ছে৷ সকলে প্রার্থণা করুন, যাতে প্রিয়াঙ্কা সুস্থ হয়ে ফিরে আসেন৷"

    অন্যদিকে প্রিয়াঙ্কার খুব ভাল বন্ধু মিঠাই অর্থাৎ সৌমিতৃষাও তাঁর জন্য প্রার্থণা করে পোস্ট করেছেন৷

    বাংলা ধারাবাহিকের খুবই পরিচিত মুখ প্রিয়াঙ্কা৷ ১৩ বছর আগে মা ধারাবাহিক দিয়ে তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখেন৷ এতটাই জনপ্রিয় হয় তাঁর চরিত্র বাবলি যে এখনও ইন্ডাস্ট্রিত বাবলি বলেই তিনি পরিচিত৷ এরপর একের পর এক সিরিয়াল তো করেছেনই সঙ্গে অভিনয় করেছেন হোলি ফেক, ব্যোমকেশের মতো ওয়েব সিরিজে৷ বলিউডে শুরু হয়েছে তাঁর প্রোজেক্ট৷ মা ধারাবাহিক থেকেই তাঁর সঙ্গে অপরাজিতা আঢ্যের সক্ষতা৷ প্রিয়াঙ্কাকে মেয়ের মতো ভালবাসেন তিনি৷ প্রিয়াঙ্কাও তাঁকে মামণি বলেন৷ আপাতত প্রিয়াঙ্কা তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন, সেই কামনা রইল৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: