হোম /খবর /কোচবিহার /
এক সপ্তাহের মধ্যেই উঠে যাচ্ছে রাস্তার পিচ! মাথাখারাপ হ‌ওয়ার জোগাড় এলাকাবাসীর

Coochbehar News: সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই উঠে যাচ্ছে রাস্তার পিচের চাদর! মাথায় হাত এলাকাবাসীর

রাস্তার বেহাল দশা

রাস্তার বেহাল দশা

সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই রাস্তার পিচের চাদর উঠে যাচ্ছে। নতুন রাস্তার এই বেহালদশা দেখে ব্যাপক ক্ষুব্ধ এলাকার মানুষ

  • Share this:

কোচবিহার: ভোট আসে, ভোট যায়। কিন্তু সমস্যার সুরাহা হয় না। কোচবিহারের গুড়িয়াহাটি-২ পঞ্চায়েতের অবস্থা অনেকটা এমনই। কিছু দিন আগেই এই এলাকার দীর্ঘ করেক কিলোমিটার বেহাল রাস্তার সংস্কারের কাজ হয়েছিল। কিন্তু কাজ শেষ হতে না হতেই উঠে যেতে শুরু করেছে পিচের স্তর!

পিচের রাস্তার পিচের চাদর উঠে যাওয়া মানে সে রাস্তা ফের খারাপ হয়ে পড়া। এই ঘটনায় ব্যাপক ক্ষুব্ধ এলাকার মানুষ। তাঁদের অভিযোগ, নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরির কারণেই সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই নিচের চাদর উঠে যেতে শুরু করেছে। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কিছুদিন আগেই ওই রাস্তাটি মেরামতের কাজ শেষ হয়েছে। কিন্তু, পিচের চাদর উঠে আবার বেহাল হয়ে পড়েছে। রাস্তার কাজ শেষ হওয়ার ৭ থেকে ৮ দিনের মধ্যেই এই অবস্থা। এর ফলে ওই রাস্তা দিয়ে চলাচল করা বহু মানুষ সমস্যায় পড়বেন।

আরও পড়ুন: ইউনিফর্ম পরে স্কুলে না গিয়ে রাস্তার উপর বসে পড়ল ছেলেমেয়েরা! এ কী কাণ্ড

এই রাস্তার দিয়ে কোচবিহার ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ ও ঘুঘুমারি ব্রিজ সংলগ্ন রাস্তায় পৌঁছনো যায় সহজেই। ফলে প্রতিদিন বহু মানুষ এই রাস্তাটি ব্যবহার করেন। কিন্তু রাস্তা সারাইয়ের মাত্র এক সপ্তার মধ্যে ফের সেটি বেহাল হয়ে পড়ায় এখান দিয়ে চলাচল করাই মুশকিলের হয়ে উঠবে। এই ঘটনার প্রতিবাদে এলাকার মানুষ পঞ্চায়েত প্রধানের অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখান। এই বিষয়ে পঞ্চায়েত প্রধানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি এই বিষয় নিয়ে কোনরকম মন্তব্য করতে চাননি।

এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছে। তাঁদের দাবি, রাস্তা সারাইয়ের টাকা নয়ছয়ের কারনেই এই অবস্থা। সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। তার আগে এই ঘটনায় অস্বস্তি বেড়েছে শাসকদলের। পঞ্চায়েত নির্বাচনে এর প্রভাব পড়তে পারে বলে অনেকেই আশঙ্কা করছেন। এলাকার মানুষ জানিয়েছে, তাঁরা কটা দিন দেখবেন। তার মধ্যে যদি রাস্তা সারাই না হয় তবে প্রশাসনের উচ্চস্তরে যোগাযোগ করবেন।

সার্থক পণ্ডিত

Published by:Kaustav Bhowmick
First published: