Home /News /business /
আয়কর রিটার্ন 'অমান্য' বলে গণ্য হলে কি পুনরায় তা ফাইল করা সম্ভব? জানুন বিশদে

আয়কর রিটার্ন 'অমান্য' বলে গণ্য হলে কি পুনরায় তা ফাইল করা সম্ভব? জানুন বিশদে

আয়কর রিটার্ন

আয়কর রিটার্ন

আইটিআর ফাইল করা হয়ে যাওয়ার পরের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হল আইটিআর যাচাই বা আইটিআর ভেরিফিকেশন। (Income tax return)

  • Share this:

    #কলকাতা: ২০২২-২৩ মূল্যায়ন বছরের আয়কর রিটার্ন বা আইটিআর (ITR) দাখিলের মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে। তবে আইটিআর ফাইল করা হয়ে যাওয়ার পরের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হল আইটিআর যাচাই বা আইটিআর ভেরিফিকেশন (ITR Verification)। এই ভেরিফেকিশনের পরেই আয়কর দফতর এর উপর তাদের কাজ শুরু করে।

    যদি কোনও করদাতা আইটিআর ফাইল (ITR Filing) করার পরে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আইটিআর ভেরিফিকেশন না-করেন, তবে তাঁর আইটিআর অবৈধ বলে গণ্য করা হবে। যে-সব আয়কর প্রদানকারী ২০২২ সালের জুলাই মাসের আগেই আইটিআর ফাইল করেছেন, তাঁদের তা ফাইল করার তারিখের ১২০ দিনের মধ্যে ভেরিফাই করতে হবে। আবার যাঁরা গত ৩১ জুলাইয়ের পরে আইটিআর ফাইল করেছেন, তাঁরা সেটা ভেরিফাই করার জন্য এই বছর মাত্র ৩০ দিন পাবেন।

    আরও পড়ুন: তালিকা তৈরি, এবার গরুপাচারে 'জড়িত' পুলিশকর্মীদের ডাক পড়বে! অনুব্রতকে ঘিরছে সিবিআই

    আইটিআর অবৈধ হয়ে গেলে কী করণীয়? আয়কর আইন অনুযায়ী, যদি কোনও আইটিআর অবৈধ বলে গণ্য করা হয়, তবে করদাতা কোনও রিটার্ন পাবেন না। আয়কর আইন বিশেষজ্ঞদের মতে, আইটিআর অবৈধ হলে পুনরায় আইটিআর ফাইল করা যেতে পারে। করদাতা রিভাইজড আইটিআর (Revised ITR) বা বিলেটেড আইটিআর (Belated ITR) ফাইল করতে পারেন। তবে রিভাইজড আইটিআর-এর ক্ষেত্রে মেয়াদের মধ্যে এটি ফাইল করতে হবে। মেয়াদ পেরিয়ে গেলে করদাতা ওই বছর আর কর প্রদান করতে পারবেন না।

    আরও পড়ুন: 'তথ্য-প্রমাণ' দেখিয়েই পেট থেকে কথা বের করতে চাইছে সিবিআই! প্রবল বেকায়দায় অনুব্রত মণ্ডল

    Incometaxindia.gov.in সংস্থার মতে, এই ধরনের পরিস্থিতিতে আয়কর দফতরের কর্মীরা করদাতাকে আয়কর আইনের ১৪৪ ধারার অধীনে প্রদত্ত ক্ষমতা প্রয়োগ রিটার্ন ফাইল করার নির্দেশ দিতে পারেন। আয়কর বিভাগের কর্মী কোন কোন ক্ষেত্রে নির্দেশ দিতে বাধ্য। যখন করদাতা আয়কর আইনের ধারা ১৩৯(১) এর অধীনে শেষ তারিখের মধ্যে আইটিআর ফাইল করতে ব্যর্থ হন। যখন করদাতা আয়কর আইনের ধারা ১৩৯(৪) অনুযায়ী বিলেটেড আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে ব্যর্থ হন। যখন করদাতা ধারা ১৩৯(৫) অনুযায়ী রিভাইজড রিটার্ন দাখিল করতে ব্যর্থ হন। যখন করদাতা ধারা ১৯৮(৮এ) অনুযায়ী একটি আপডেটেড আইটিআর ফাইল করতে ব্যর্থ হন।

    যখন করদাতা উপরোক্ত যে কোনও একটি আইটিআর ফাইল করতে ব্যর্থ হন এবং যদি আয়কর দফতরের কর্মীরা মনে করেন যে, করদাতার আয়ের মূল্যায়ন করা প্রয়োজন, তবে সে-ক্ষেত্রে করদাতাকে ধারা ১৪২(১)-এর অধীনে একটি নোটিস জারি করতে পারেন। আয়কর আইন অনুযায়ী করদাতাকে পুনরায় আইটিআর ফাইল করতে বলা হতে পারে। নোটিস পাওয়ার, আয়কর প্রদানকারী সংশোধিত বা বিলম্বিত আইটিআর ফাইল করার সময়সীমা শেষ হওয়ার পরেও আইটিআর ফাইল করতে পারেন। সরকারি নোটিস এলে করদাতা মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়ার পরেও রিভাইজড আইটিআর বা বিলেটেড আইটিআর ফাইল করতে পারেন।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published:

    Tags: Income Tax, IT Return

    পরবর্তী খবর