সরকারের এই স্কিমে সস্তায় কিনতে পারবেন বাড়ি, দেখে নিন কীভাবে পাবেন সুবিধা

ভারত সরকার ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা শুরু করা হয়েছিল ৷ যোজনা ৩টি পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে ৷

ভারত সরকার ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা শুরু করা হয়েছিল ৷ যোজনা ৩টি পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে ৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: সরকারের প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার (PM Awas Yojana- PMAY) লক্ষ্য হল দেশের প্রত্যেকটি মানুষকে থাকার বাড়ি করে দেওয়া ৷ ভারত সরকার ২০২২ পর্যন্ত প্রত্যেকটি গৃহহীন মানুষকে বাড়ি বানিয়ে দেওয়ার যোজনা তৈরি করেছে ৷ এই যোজনায় গৃহহীন মানুষদের ঘর বানিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি সাবসিডি দিয়ে থাকে ৷ এই সাবসিডি দিয়ে তাঁরা ঘর বা প্লট কিনে থাকে ৷ দেখে নিন কারা এই যোজনার সুবিধা পাবেন ৷

    দেখে নিন কীভাবে PMAY -এর জন্য আবেদন করবেন

    প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা গ্রামীণ অনুযায়ী, আবেদন করার জন্য সরকার আবাস অ্যাপ তৈরি করেছে ৷ গুগল প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে ৷ ডাউনলোড করার পর মোবাইল নম্বর দিয়ে লগ ইন আইডি তৈরি করতে পারবেন ৷

    ১. এরপর এই অ্যাপটি আপনার মোবাইল নম্বরে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড দিয়ে থাকে ৷

    ২. এর মাধ্যমে লগইন করার পর নিজের সম্বন্ধে সমস্ত তথ্য দিতে হবে ৷

    ৩. PMAY এর মাধ্যমে বাড়ির জন্য আবেদন করার পর কেন্দ্র সরকারের তরফে সুবিধাভোগীদের সিলেক্ট করে ৷

    ৪. এরপর সুবিধাভোগীদের চূড়ান্ত লিস্ট PMAY এর ওয়েবসাইটে আপলোড করে দেওয়া হয় ৷

    দেখে নিন কারা এই যোজনার সুবিধা পাবেন-

    প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার লাভ প্রথমে কেবল দরিদ্র শ্রেণির মানুষের পাচ্ছিলেন ৷ কিন্তু এখন হোম লোনের টাকা বাড়িয়ে শহর অঞ্চলের গরিব ও নিম্ন আর্থিক শ্রেণির মানুষকে এর মধ্যে সামিল করা হয়েছে ৷ PMAY যোজনায় হোম লোনের টাকা ৩ থেকে ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত করা হয়েছে ৷ লোনের সুদের উপরে সরকারের তরফে সাবসিডি দেওয়া হয় ৷ এখন লোনের টাকা ১৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত করা হয়েছে ৷

    EWUS (নিম্ন আর্থিক শ্রেণির) বার্ষিক আয় ৩ লক্ষ টাকা হয় ৷ LIG শ্রেণির আমদানি ৩ থেকে ৬ লক্ষ টাকার মধ্যে হয় ৷ এখন ১২ থেকে ১৮ লক্ষ টাকার বার্ষিক আয় করা ব্যক্তিরাও এর লাভ নিতে পারবেন ৷

    ভারত সরকার ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা শুরু করা হয়েছিল ৷ যোজনা ৩টি পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে ৷ যোজনার প্রথম পর্যায় জুন ২০১৫ থেকে শুরু হয় যা ২০১৭ সালে শেষ হয়ে গিয়েছে ৷ দ্বিতীয় পর্যায়ে এপ্রিল ২০১৭ শুরু হয়েছিল ও মার্চ ২০১৯ সালে শেষ হয়ে গিয়েছে ৷ তৃতীয় ও শেষ পর্যায় এপ্রিল ২০১৯ থেকে শুরু হয়েছে এবং মার্চ ২০২২ এ শেষ হয়ে যাবে ৷

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published: