Home /News /business /

Winter Foods: শীতকালে শরীরকে রাখবে উষ্ণ, আয়ুর্বেদিক এই ডায়েটে লাভ বই লোকসান নেই

Winter Foods: শীতকালে শরীরকে রাখবে উষ্ণ, আয়ুর্বেদিক এই ডায়েটে লাভ বই লোকসান নেই

Ayurveda Foods For Winter: জেনে নেওয়া যাক আয়ুর্বেদ মতে ঋতুচার্য ডায়েটে কোন কোন খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়!

  • Share this:

#কলকাতা: শীতকাল মানেই মুচমুচে চিপস থেকে শুরু করে গরম মশলাদার ম্যাগি কিংবা চকোলেট সস দিয়ে গরম ব্রাউনিও তালিকায় রয়েছে আরো অনেক মুখরোচক খাবার (winter foods)। কিন্তু খেতে ভালো লাগলেও এইসব খাবারে এনার্জি হারিয়ে শরীরের ভারসাম্যহীনতা নষ্ট হয়ে যায়। আয়ুর্বেদের ভাষায় যা থেকে দেখা দেয় বাত, পিত্ত এবং কফ দশা। আয়ুর্বেদ চিকিৎসাশাস্ত্র অনুযায়ী শীতের শুরু অর্থাৎ হেমন্ত থেকে শীতের শেষের দিকে অর্থাৎ যখন শিশির পড়ে তখনই বেশি বাত এবং কফের ভারসাম্যের সমস্যা তৈরি হয়। কফ জয়েন্টের লুব্রিকেশন, ইমিউনিটি এবং ত্বক কোমল রাখতে সাহায্য করে, যদি শরীরে এই দশা বেশি হয় তাহলে পেশি সম্পর্কিত সমস্যা, ওজন বৃদ্ধি, রুক্ষ্মতা এবং এমনকি নেতিবাচক আবেগ দেখা দিতে পারে। অন্য দিকে, বাত দশায় হজমে গোলযোগ এবং জয়েন্টে ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই আয়ুর্বেদ চিকিৎসকেরা ডায়েটে (Ayurveda Foods For Winter) এমন খাবার রাখতে বলেন যা একদিকে যেমন এই দশা ঠিক রাখবে তেমনই শীতকালে শরীরকে উষ্ণ রাখবে (winter diet)।

ঋতুচর্য ডায়েট কী

ঋতুচর্য ডায়েট হল খাদ্যাভাসের এক ধরনের মরসুমি গাইডলাইন যা শরীরে দশাগুলিকে ঠিক রাখে এবং শীতকালে শরীরকে উষ্ণ রাখে (Ayurveda Foods For Winter)। এই নিয়ম অনুযায়ী আমাদের গুড়, খিচুড়ি, ঘি, গোল্ডেন মিল্ক, তিল, সুগারকেন প্রোডাক্ট, ভেজানো বাদাম যেমন আমন্ড ও আখরোট, চিকেন স্যুপ, ঘি দিয়ে সবুজ শাকসবজি এবং তুলসী, লেমনগ্রাস ও আদা দিয়ে তৈরি গ্রিন টি খাওয়া উচিত। এই সমস্ত খাবারে এমন সব পুষ্টিগুণ আছে তা আমাদের শীতকালের জন্য উপকারী। জেনে নেওয়া যাক আয়ুর্বেদ মতে ঋতুচার্য ডায়েটে কোন কোন খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়!

আরও পড়ুন - সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল কাঁচা বাদাম ভরপুর স্বাস্থ্যগুণেও, জানুন বাদাম খাওয়ার অঢেল উপকারিতা

গুড়

আখ থেকে তৈরি গুড় শরীরকে ভেতর থেকে গরম করে (winter diet)। একই সঙ্গে যে কোনও দূষণ থেকে শরীরকে বাঁচায়। এটি এমন একটি খাবার যা শরীরে হজমের উৎসেচক তৈরি বাড়িয়ে ইমিউনিটি বাড়াতে সাহায্য করে। তাই শীতের ডায়েটে অবশ্যই গুড় রাখা উচিত।

ঘি দিয়ে খিচুড়ি

খিচুড়ি বহুদিন ধরে ভারতীয়দের খাদ্যাতালিকায় রয়েছে এবং শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য খিচুড়ি বেশ পরিচিত (Ayurveda Foods For Winter)। তাই কোনও অসুস্থতায় ঘি দিয়ে খিচুড়ি খাওয়ার পরার্শ দেওয়া হয়। ভাত ও ডালের সঙ্গে শাকসবজির মিশ্রণ হওয়ায় এটি শরীরে প্রয়োজনীয় অ্যামিনো এসিড দেয় এবং এটি প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারও।

তিল

তিল ভালো ফ্যাটে পরিপূর্ণ একটি খাবার। তিলে কপার, আয়রন, জিঙ্ক এবং বিভিন্ন ভিটামিন রয়েছে (winter diet)৷ তিল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে শীতকালে ফ্লু-এর সঙ্গে লড়াই করতে সাহায্য করে। আর সেই কারণে শীতকালে বেশিরভাগ ডেসার্ট তিল দিয়ে, যেমন তিল লাড্ডু এবং তিল চিক্কি বানানো হয়।

আরও পড়ুন - তারুণ্যেই মাথা সাদা? অকালপক্বতা-সহ চুলের অন্যান্য সমস্যা রোধে ব্যবহার করুন প্রাকৃতিক নীল

ঘি দিয়ে সবুজ শাকসব্জীবজি

শীতকালে মরসুমি ঠাণ্ডা এবং ফ্লু থেকে বাঁচতে অতিরিক্ত সতর্ক হতে হয়। তাই এই সময় সবুজ শাকসবজি যেমন পালং, সর্ষে, মেথি, বেথু ঘি দিয়ে খাওয়া উচিত কারণ এগুলি শরীরকে উষ্ণ রেখে ইমিউনিটি বাড়াতে সাহায্য করে।

গোল্ডেন মিল্ক

গোল্ডেন মিল্ক বা হলুদ দুধ শীতকালে খুব ভালো গরম থাকার মতো খাবার। এই দুধ জয়েন্টে ব্যথা, বদহজম, শীতের সাইনাস এমনকি মরসুমি সর্দি ও কাশি থেকে আরাম পেতে রাতে ঘুমানোর আগে খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয় (winter foods)৷

চিকেন স্যুপ

শীতের ঠাণ্ডায় এক বাটি চিকেন স্যুপ শরীরকে গরম করার সবচেয়ে ভালো খাবার৷ এতে বিভিন্ন ধরনের মশলা যোগ করলে স্যুপটির স্বাদ ও পুষ্টিগুণ দুই বাড়ে।

ভেষজ গ্রিন টি

শীতকালে গরম পানীয় খেতে কে না ভালোবাসে! কিন্তু সেই পানীয় যদি তুলসী (winter foods), আদা ও লেমনগ্রাস দিয়ে তৈরি ভেষজ চা হয় তাহলে তা কনকনে ঠাণ্ডায় শুধু আরামই দেবে না, একইসঙ্গে ইমিউনিটিও বাড়াবে৷ দিনে দু'বার এই গরম পানীয় খাওয়া যায়।

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

Tags: Ayurveda, Winter diet

পরবর্তী খবর