• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • ASK CCI TO START IMMEDIATE INVESTIGATION AGAINST AMAZON FLIPKART CAIT URGES GOVT TC RC

Amazon, Flipkart-এর বিরুদ্ধে অবিলম্বে তদন্ত হোক, সরকারের কাছে আর্জি জানাল CAIT

Amazon, Flipkart-এর বিরুদ্ধে অবিলম্বে তদন্ত শুরু হোক; সরকারে কাছে আর্জি জানাল CAIT!

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গয়ালের (Piyush Goyal) কাছে আবেদনপত্র পাঠাল CAIT- তিনি যেন অবিলম্বে কমপিটিশন কমিশন অফ ইন্ডিয়াকে এই তদন্ত শুরু করার নির্?

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কর্নাটক হাই কোর্টের রায় এর মধ্যেই পক্ষে গিয়েছে কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (Confederation of All India Traders), সংক্ষেপে CAIT-এর। এই সংস্থা Amazon এবং Flipkart-এর বিরুদ্ধে মামলা করেছিল যে তারা দেশের বাণিজ্য নীতি সঙ্ঘণ করে মুনাফা করছে, বিপাকে ফেলছে ক্ষুদ্র এবং মাঝারি ব্যবসায়ীদের। এই মর্মে কর্নাটক হাই কোর্টের কাছে আবেদন জানিয়েছিল Amazon যে তাদের বাণিজ্যনীতি নিয়ে তদন্তের কিছু নেই, বিরোধীদের দাবি অযৌক্তিক। কিন্তু কর্নাটক হাই কোর্ট সে আবেদনে কর্ণপাত করেনি। সাফ জানিয়েছিল যে কমপিটিশন কমিশন অফ ইন্ডিয়া (Competition Commission of India), সংক্ষেপে CCI Amazon এবং Flipkart-এর অসাধু বাণিজ্যনীতি নিয়ে তদন্ত শুরু করতে পারে। সেই রায়ের পরেই এবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গয়ালের (Piyush Goyal) কাছে আবেদনপত্র পাঠাল CAIT- তিনি যেন অবিলম্বে কমপিটিশন কমিশন অফ ইন্ডিয়াকে এই তদন্ত শুরু করার নির্দেশ দেন!

ভারতের বাণিজ্যনীতি অনুসারে কোনও পণ্য শুধুমাত্র ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মে বিক্রয় করা যায় না। কিন্তু ইলেকট্রিক পণ্য, বিশেষ করে স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে এই আইন হামেশাই লঙ্ঘণ করে চলেছে Amazon এবং Flipkart। শুধু তাই নয়, একই সঙ্গে তারা বেশ কিছু পণ্যের দাম অস্বাভাবিক ভাবে এতটাই কমিয়ে দিচ্ছে যে সেই প্রতিযোগিতার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলা দেশের ক্ষুদ্র এবং মাঝারি ব্যবসায়ীদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। এছাড়া রয়েছে ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মের সেলারদের নিয়েও আইন লঙ্ঘণের ব্যাপার। আইন অনুসারে এই জাতীয় কোনও বৈদেশিক ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম কোনও রিটেলারকে নিজেদের প্ল্যাটফর্মের অংশ ছেড়ে দিতে পারে না এবং তাদের জিনিস দেশীয় ক্রেতাদের বিক্রয় করতে পারে না। কিন্তু Amazon-এর ক্ষেত্রে বিশেষ করে এই নীতি যে লঙ্ঘিত হয়েছে, তা সম্প্রতি উঠে এসেছে সংবাদের শিরোনামে।

এই দিক থেকেই CAIT কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে আবেদন জানিয়েছে যে Amazon এবং Flipkart অসাধু বাণিজ্যনীতির পথ ধরে দেশের ব্যবসায়ীদের পথে বসাচ্ছে! সংগঠনের তফ থেকে তাই অনুরোধ করা হয়েছে যে বাণিজ্যনীতির যে ফাঁক ধরে এই দুই সংস্থা রেহাই পেতে পারে, সেই সংক্রান্ত আইনগুলিও অবিলম্বে সংশোধন করা উচিত। আপাতত দেশে ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মগুলো প্রেস নোট ২ (Press Note 2) মেনে চলতে বাধ্য হয়। CAIT এই নিয়মের আমূল পরিবর্তন চেয়ে নতুন প্রেস নোট ঘোষণার জন্যও আবেদন রেখেছে গয়ালের কাছে। পাশাপাশি সংগঠন চলতি মাসের ১৪-২১ তারিখ ই-কমার্স শুদ্ধিকরণ সপ্তাহ (E-commerce Purification Week) হিসাবে উদযাপন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের দাবি, এই সারা সপ্তাহ জুড়ে Amazon এবং Flipkart-এর অসাধু বাণিজ্যনীতি নিয়ে নানা বিষয়ে তারা আলোকপাত করতে থাকবে।

Published by:Raima Chakraborty
First published: