• Home
  • »
  • News
  • »
  • astrology
  • »
  • PERSONALITY DISORDER YOU MAY EXPERIENCE AS PER YOUR ZODIAC SIGNS TC RC

Zodiacs ‍| Personality Disorder: রাশিচক্র অনুসারে আপনার কোন ধরনের চারিত্রিক দোষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে?

রাশিচক্র অনুসারে আপনার কোন ধরনের চারিত্রিক দোষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে?

রাশিচক্র অনুসারে এখানে যে ধরনের ব্যক্তিত্বের ব্যাধি (Personality Disorder) হতে পারে তা জানানো হল। (Zodiacs ‍| Personality Disorder)

  • Share this:

#কলকাতা: প্রত্যেক ব্যক্তির একটি স্বতন্ত্র ব্যক্তিত্ব আছে এবং প্রত্যেক ব্যক্তি এক বা একাধিক কাজে সক্ষম। কে, কোথা থেকে এসেছে, কোথায় যেতে চায়, এমন কিছু বিষয় নিয়েই একজন ব্যক্তির চরিত্র গঠন হয়। এটাই ভবিষ্যতে কে কী হয়ে উঠবে তা ঠিক করে। যাই হোক, কখনও কখনও যা চোখে দেখা যায় তা আসলে ভিন্ন হতে পারে। আর তখনই জ্যোতিষশাস্ত্র কাজে আসে। রাশিচক্র (Zodiacs) একটি ব্যক্তির প্রকৃতি এবং মেজাজ সম্পর্কে অনেক কিছুই প্রকাশ করতে পারে (Zodiacs ‍| Personality Disorder)। এটি একজন ব্যক্তির লুকানো দিক, ভালো বা খারাপ বৈশিষ্ট্যগুলিকে ব্যাখ্যা করতে ও সামনে আনতে পারে। এটা বলার কারণ, প্রতিটি ব্যক্তির একটি ইতিবাচক ব্যক্তিত্বের বৈশিষ্ট্য রয়েছে, কিছু নির্দিষ্ট নেতিবাচক গুণাবলীও রয়েছে (Zodiacs ‍| Personality Disorder)। যা প্রতিটি ব্যক্তির ব্যক্তিত্বের সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। সেই ক্ষেত্রে, তাঁদের রাশিচক্র (Zodiacs) অনুসারে এখানে যে ধরনের ব্যক্তিত্বের ব্যাধি (Personality Disorder) হতে পারে তা জানানো হল (Zodiacs ‍| Personality Disorder)।

মেষ (Aries)-মার্চ ২১ থেকে এপ্রিল ১৯: আবেগপ্রবণ হওয়ার পাশাপাশি, মেষরাশি আক্রমণাত্মকও হতে পারে। এই রাশিচক্রের জাতক-জাতিকারা হঠাৎ রেগে যেতে বা উত্তেজিত হতে পারেন। যা তাঁদের জন্য ক্ষতিকর প্রমাণিত হতে পারে। এই ধরনের আচরণ ইন্টারমিটেন্ট এক্সপ্লোসিভ ডিজঅর্ডারের বৈশিষ্ট্য হতে পারে, যেখানে একজন ব্যক্তির রাগের ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়, যা প্রায়শই খারাপ পরিস্থিতির দিকে নিয়ে যায়।

বৃষ (Taurus)-এপ্রিল ২০ থেকে মে ২০: বৃষ রাশির জাতক-জাতিকারা তাঁদের নিজেদের কমফোর্ট জোনে থাকতে পছন্দ করেন। তাঁদের জীবন এবং সিদ্ধান্তের ব্যাপারে তাঁরা বেশ জেদি। তাঁরা খুবই সংগঠিত এবং বিশৃঙ্খলা সহ্য করতে পারেন না। এটা অবসেসিভ-কমপালসিভ ডিজঅর্ডার, যা ওসিডি নামেও পরিচিত। এটা একটি উদ্বেগজনিত ব্যাধি হতে পারে। যেখানে অবাঞ্ছিত চিন্তা, অনুভূতি বা ধারণা গ্রাস করে, এই কারণে এই রাশির জাতক-জাতিকারা একই কাজ বারে বারে করতে থাকেন।

মিথুন (Gemini)-মে ২১ থেকে জুন ২০: মিথুন রাশির জাতক-জাতিকারা প্রচুর কথাবার্তা বলতে ভালোবাসে। এঁরা একদম একা থাকতে পারেন না। তাঁরা তাঁদের ভালোবাসার মানুষের সঙ্গ পেতে পছন্দ করেন এবং প্রায়শই তাঁদের উপর নির্ভর করেন। এই কারণেই এঁদের নির্ভরশীল ব্যক্তিত্বের ব্যাধি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। অর্থাৎ এরা অন্যের উপর সব কিছুতেই নির্ভর করেন।

কর্কট (Cancer)-জুন ২১ থেকে জুলাই ২২: কর্কট রাশির মানুষরা আবেগপ্রবণ হন। তাঁরা প্রত্যাখ্যান এবং সমালোচনাকে ভয় করেন; তাই তাঁরা প্যারানয়েড পার্সোনালিটি ডিজঅর্ডার দিকে বেশি ঝুঁকে পড়েন। এই ধরনের মানসিক ব্যাধির কারণে অতিরিক্ত চিন্তা-ভাবনা বাড়ে। যার কারণে মানসিক চাপও বাড়ে।

সিংহ (Leo)-জুলাই ২৩ থেকে অগাস্ট ২২: এই রাশির আরেক অর্থ মনোযোগ। এঁরা জনগণের লাইমলাইটে থাকতে পছন্দ করেন এবং মানুষ এঁদের নিয়ে আলোচনা করে। তাই এটা তাঁদের নার্সিসিস্টিক পার্সোনালিটি ডিজঅর্ডার আরও বাড়িয়ে তোলে। নার্সিসিস্টরা বিশ্বাস করেন যে তাঁরা তাঁদের চারপাশের সবার চেয়ে সেরা এবং ভালো। এঁরা মনে করেন যে তাঁরা সবচেয়ে বেশি বিশেষ মনোযোগ এবং গুরুত্বের অধিকারী।

কন্যা (Virgo)-অগাস্ট ২৩ থেকে সেপ্টেম্বর ২২: এই রাশির জাতক-জাতিকারা পূর্ণতা পছন্দ করেন। তাঁরা যাই করুন না কেন, তাঁরা সেরাটা প্রত্যাশা করে। অতএব, যখন এঁদের কোনও কিছু ঠিক হয় না তখন তাঁরা বিরক্ত হয়ে ওঠেন, যার কারণে তাঁরা বর্ডারলাইন পার্সোনালিটি ডিজঅর্ডারে ভোগে। এই মানসিক স্বাস্থ্যের ব্যাধি একজন ব্যক্তির নিজের সম্পর্কে চিন্তা বা অনুভূতিকে প্রভাবিত করেন। আবেগ ও মেজাজ ধরে রাখার ক্ষেত্রে সমস্যা হয়।

তুলা (Libra)-সেপ্টেম্বর ২৩ থেকে অক্টোবর ২২: তুলা রাশির জাতক-জাতিকাদের ব্যক্তিত্বের ভারসাম্য আছে। তবে, এঁরা সহজেই চাপে পড়ে যান ও ছোট সমস্যাতেও প্রভাবিত হতে পারেন। এই কারণেই তাঁদের মাঝে মাঝে নিজের উপর আস্থার অভাব ঘটে এবং চাপের পরিস্থিতি সামলাতে অসুবিধা হয়। একে বলে ম্যাসোকিস্টিক পার্সোনালিটি ডিসঅর্ডার। এর ফলে মানুষ তাঁর চাহিদা অনুযায়ী জীবনযাপন করতে পারে না এবং নিজেকে দুঃখী হিসাবে দেখতে থাকে।

বৃশ্চিক (Scorpio)-অক্টোবর ২৩ থেকে নভেম্বর ২১: বৃশ্চিক রাশির মানুষরা আবেগপ্রবণ হন। কিন্তু তাঁরা তাঁদের জীবন এবং সিদ্ধান্ত সম্পর্কে বেশ গোপন। তাঁরা সামাজিকতা করতে পছন্দ করেন না এবং অন্যদের এড়িয়ে যেতে পছন্দ করেন। এই রাশিচক্রের লোকেরা এভয়েডেন্ট পার্সোনালিটি ডিজঅর্ডারের শিকার হতে পারেন। যা তাঁদের সামাজিক পরিবেশ এড়িয়ে চলা আরও বাড়িয়ে দেয়। এঁরা একা থাকতেই পছন্দ করেন।

ধনু (Sagittarius)-নভেম্বর ২২ থেকে ডিসেম্বর ২১: ধনু রাশির জাতক-জাতিকারা মহান, দুঃসাহসী ব্যক্তি। এঁরা উত্তেজনাপূর্ণ অনুসন্ধান চালাতে পছন্দ করেন এবং শৃঙ্খলায় বিশ্বাস করেন না। এই রাশির মানুষ অত্যন্ত সক্রিয় এবং বেশিরভাগই অস্থির। তাঁদের মনোযোগের ঘাটতির কারণে হাইপারঅ্যাক্টিভিটি ডিজঅর্ডার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ তাঁরা অবাস্তব লক্ষ্য নির্ধারণ করেন এবং ভবিষ্যতে এমন পরিকল্পনা তৈরি করেন যা অর্জন করতে পারেন না।

মকর (Capricorn)-ডিসেম্বর ২২ থেকে জানুয়ারি ১৯: মকর রাশির মানুষরা তাঁদের কাজ সম্পর্কে খুব নির্দিষ্ট এবং বাস্তববাদে বিশ্বাস করেন। যাই হোক, তাঁরা যা বিশ্বাস করে তা হল যে সব কিছু নিখুঁত হতে পারে। এটা তাঁদের পারফেকশনিজম ডিজঅর্ডার প্রবণ করে তোলে। এই ধরনের ব্যাধি কাজ এবং পেশার সঙ্গে যুক্ত হতে পারে। সর্বদা সেরা কাজ করার তাগিদ মানসিক স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলতে পারে।

কুম্ভ (Aquarius)-জানুয়ারি ২০ থেকে ফেব্রুয়ারি ১৮: এই রাশির মানুষরা নিজেদের বৃত্তের মধ্যে থাকতে পছন্দ করেন। তাঁদের জীবন এবং জীবনযাপন সম্পর্কে নিজস্ব ধারণা রয়েছে এবং যা কখনও কখনও বিভ্রান্তিকর হতে পারে। এই কারণেই তাঁরা স্কিজোটাইপাল পার্সোনালিটি ডিজঅর্ডারে ভুগতে পারেন। এই ব্যাধির কারণে তাঁরা বাস্তব এবং কল্পনার মধ্যে পার্থক্য করতে পারেন না, কখনও কখনও তাঁরা অন্যদের তুলনায় খুব অস্বাভাবিক আচরণ করেন।

মীন (Pisces)-ফেব্রুয়ারি ১৯ থেকে মার্চ ২০: মীন রাশি সব চেয়ে সুন্দর রাশিচক্রের একটি। যাই হোক, তাঁরা যেভাবে অন্যদের যত্ন নেযন, তাঁরা অন্যদের কাছ থেকে একই আশা করেন। এঁরা সমালোচনাকে গুরুত্ব দেন না, চারপাশে কে কী বললে, তা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করতে পারেন। তবে এঁরা ইনফিরিওরিটি কমপ্লেক্সে ভোগেন। যাতে করে এঁরা সামাজিক ভিড় ও জমায়েত এড়িয়ে যান।

আরও পড়ুন: মনের মানুষের রাশি জানেন? সেই রাশি অনুযায়ী তাঁর কেমন খাবার পছন্দ ও কী খাওয়া উচিত জানুন...

Published by:Raima Chakraborty
First published: