Home /News /alipurduar /
Alipurduar: ভগ্নদশা রাজাভাত চা বাগানের আইসিডিএস সেন্টারের! পড়াশুনা শিকেয় শিশুদের

Alipurduar: ভগ্নদশা রাজাভাত চা বাগানের আইসিডিএস সেন্টারের! পড়াশুনা শিকেয় শিশুদের

title=

ক্লাসঘর ভেঙে পড়তে পারে যখন তখন। আতঙ্কে আইসিডিএস সেন্টারমুখো হন না শিক্ষিকারা। ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত রাজাভাত চা বাগানের পড়ুয়াদের।

  • Share this:

    #আলিপুরদুয়ার : ক্লাসঘর ভেঙে পড়তে পারে যখন তখন। আতঙ্কে আইসিডিএস সেন্টারমুখো হন না শিক্ষিকারা। ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত রাজাভাত চা বাগানের পড়ুয়াদের। পড়াশুনো না হলেও ডিম, খিচুড়ি মিলছে পড়ুয়াদের। শিক্ষিকারা দায়িত্ব পালন করছেন তাদের। অবহেলা অযত্নে গোয়াল ঘরে পরিণত হয়েছে কালচিনি ব্লকের রাজাভাত চা বাগানের আইসিডিএস সেন্টার। বর্তমানে পড়ুয়া-শিক্ষিকার বদলে গরু-ছাগলের মতো গবাদি পশুর বাস সেখানে। এই সেন্টারে পড়াশোনা বন্ধ আজ থেকে প্রায় ছয় বছর ধরে। রোজ সকালে সেন্টারের শিক্ষিকা আসেন, খিচুড়ি আবার কোনো দিন বাচ্চাদের ডিম দিয়ে চলে যান। এলাকাবাসীরা প্রায় সকলেই চা শ্রমিক, সকলেই চান তাদের ঘরের ছেলে-মেয়েরা শিক্ষিত হোক। তবে এভাবে কী শিক্ষিত হওয়া সম্ভব যেখানে প্রাথমিক শিক্ষা শুধুমাত্র ডিম আর খিচুড়িতেই সীমাবদ্ধ!

    এলাকাবাসীরা জানান, 'ছয় বছর আগে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ভেঙে গিয়েছে আইসিডিএস সেন্টারের ঘরের প্রায় অধিকাংশই।এরপর থেকেই এখানে বন্ধ হয়ে যায় পড়াশোনা।বারংবার বারংবার প্রশাসনের দরজায় কড়া নারার পরও মেরামত হয়নি এই সেন্টার।' এজন্য শিক্ষার থেকে বঞ্চিত এলাকার ছোট শিশুরা।' এলাকাবাসীদের একটাই দাবি, 'যত দ্রুত সম্ভব এই সেন্টারটি মেরামত করা হয়, যাতে বাচ্চারা পড়তে পারে।' নাহলে অশিক্ষা গ্রাস করবে গোটা বাগানকে।

    আরও পড়ুনঃ লাগাতার হাতির হানা! ফালাকাটায় পথ অবরোধ ক্ষুব্ধ বাসিন্দাদের

    পড়াশোনার প্রথম ধাপ মজবুত নাহলে পরবর্তী ধাপগুলিতে এলাকার শিশুরা পৌঁছবে কিভাবে? প্রশ্ন তুলেছেন তারা। কালচিনির বিডিও প্রশান্ত বর্মন জানান, 'বিষয়টি আমারও নজরে এসেছে, আমি আইসিডিএস আধিকারিককে বিষয়টি খতিয়ে দেখে, আমাকে প্রয়োজনীয় তথ্য দেওয়ার জন্য বলেছি। বিডিও-র পক্ষ থেকে আশ্বাস মিললেও আইসিডিএস সেন্টারটি যতদিন না ঠিক হচ্ছে ততদিন অনিশ্চিয়তার মধ্যে রয়েছেন এলাকাবাসীরা।

    Annanya Dey
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Alipurduar, Tea Garden

    পরবর্তী খবর