Home /News /alipurduar /
Alipurduar: স্বাধীনতা দিবসের দিন রাজাভাতখাওয়া গেটে এন্ট্রি ফি না নেওয়ার আবেদন বিধায়কের

Alipurduar: স্বাধীনতা দিবসের দিন রাজাভাতখাওয়া গেটে এন্ট্রি ফি না নেওয়ার আবেদন বিধায়কের

title=

স্বাধীনতা দিবসের দিন বক্সা ফোর্টে বেড়াতে যাওয়া দর্শনার্থীদের থেকে রাজাভাতখাওয়া গেটে এন্ট্রি ফি না নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন কালচিনির বিধায়ক বিশাল লামা।

  • Share this:

    #আলিপুরদুয়ার : স্বাধীনতা দিবসের দিন বক্সা ফোর্টে বেড়াতে যাওয়া দর্শনার্থীদের থেকে রাজাভাতখাওয়া গেটে এন্ট্রি ফি না নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন কালচিনির বিধায়ক বিশাল লামা। বক্সা, জয়ন্তী এলাকায় পর্যটকরা বেড়াতে গেলে এন্ট্রি ফি দিতে হয় রাজাভাতখাওয়া গেটে। বনদফতরের পক্ষ থেকে এই এন্ট্রি ফি নেওয়া হয়। জঙ্গলের নিয়মকানুন সম্পর্কে জানিয়ে দেওয়া হয় দর্শনার্থীদের। স্বাধীনতা দিবসে বক্সা দুর্গর সামনে পতাকা উত্তোলন করা হয়। উপস্থিত থাকেন জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা। এই দিনটিতে বক্সা ফোর্টেই যেতে চান পর্যটকেরা। এছাড়াও এই এলাকাতে রয়েছে ইংরেজ আমলের পোস্ট অফিস,একটি মিউজিয়াম। যেখানে স্বাধীনতার অসংখ্য স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে। এসব তথ্যগুলি নিজের চোখে দেখতে চান পর্যটকেরা।

    দেশে চলছে আজাদি কা অমৃত মহোৎসব। এই উপলক্ষে বিধায়ক বক্সা বনবিভাগের এফডি-র সঙ্গে কথা বলেছেন। যাতে ১৫ই অগাস্ট ছাড় দেওয়া হয় পর্যটকদের রাজাভাতখাওয়া গেটে। তিনি আশা রাখছেন তার এই অনুরোধ রাখা হবে বনদফতরের পক্ষ থেকে। এছাড়াও তিনি অনুরোধ জানিয়েছেন যাতে সেদিন বক্সার গাইডরা পর্যটকদের বক্সা ফোর্টের ইতিহাস সম্পর্কে অবগত করান।

    আরও পড়ুনঃ পুজোর আগেই বুকিং ফুল জলদাপাড়া সরকারি ট্যুরিস্ট লজে!

    স্বাধীনতা আন্দোলনে বিপ্লবীদের কি ভূমিকা ছিল তা যাতে জানানো হয় পর্যটকদের। কারণ অনেকেই অর্ধেক ইতিহাস জেনে চলে যান। পুরো ইতিহাস তাদের আর জানা হয় না। বর্তমানে বক্সা ফোর্টে সৌন্দর্যায়নের কাজ শেষ হয়নি। তাই এই ফোর্টের ভেতরে প্রবেশ করতে পারেন না পর্যটকেরা। সামনের থেকে দাঁড়িয়ে বক্সা ফোর্ট দেখে দুধের স্বাদ ঘোলে মেটান তারা।

    আরও পড়ুনঃ পথ নিরাপত্তার বার্তা দিয়ে রাখি বন্ধন উৎসব পালন আলিপুরদুয়ারে

    পর্যটকদের পক্ষ থেকে রাজ্য সরকারের কাছে অনুরোধ করা হয় যাতে দ্রুত খুলে দেওয়া হয় এই ঐতিহাসিক স্থানটি। বিধায়কের অনুমান কোভিড সময়কাল পেরিয়ে এসে এবারের স্বাধীনতা দিবসে পর্যটকদের ভীড় উপচে পড়বে বক্সা পাহাড়ে।বনদফতরের কাছে পর্যটক সুরক্ষার বিষয়টি তিনি দেখতে বলেছেন।

    Annanya Dey
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Alipurduar, Buxa Fort, Kalchini

    পরবর্তী খবর