• Home
  • »
  • News
  • »
  • uncategorized
  • »
  • Midnapore News: রাসযাত্রা হলেও, বন্ধ মেলা হতাশ ব্যবসায়ীরা

Midnapore News: রাসযাত্রা হলেও, বন্ধ মেলা হতাশ ব্যবসায়ীরা

ময়না গড়

ময়না গড়

Midnapore News: সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ও লোকসংস্কৃতির ঐতিহ্যবাহী ময়নাগড়ের রাসযাত্রা এ বছর ৪৬১ বর্ষে পদার্পণ করল। এই রাসমেলা পূর্ব মেদিনীপুর জেলার প্রাচীনতম ও বৃহত্তম মেলা

  • Share this:
    রাসযাত্রা হলেও, বন্ধ মেলা হতাশ ব্যবসায়ীরা। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ও লোকসংস্কৃতির ঐতিহ্যবাহী ময়নাগড়ের রাসযাত্রা এ বছর ৪৬১ বর্ষে পদার্পণ করল। এই রাসমেলা পূর্ব মেদিনীপুর জেলার প্রাচীনতম ও বৃহত্তম মেলা। এই মেলার অন্যতম আকর্ষণ কার্তিক পূর্ণিমার মধ্যরাতে রাজপরিবারের কুলদেবতা শ্যামসুন্দর জিউকে নিয়ে নৌকা যাত্রা, যা হাজার হাজার মানুষ ঐদিন রাসযাত্রা দর্শন করে আনন্দ উপভোগ করে থাকেন। ময়নার রাসমেলার জন্য সারা বছর অপেক্ষা করে থাকে শুধু ময়নাবাসী নয় জেলার অন্যান্য জায়গার পাশাপাশি পার্শ্ববর্তী পশ্চিম মেদিনীপুরের লোকেরাও। কালিদহ ও মাকড়দহ দিয়ে ঘেরা ময়না গড়ের রাজপরিবারের গোবর্ধন বাহুবলীন্দ্র ১৫৬১ সালে কালীদহের তীরে কুলদেবতা শ্যামসুন্দর জিউ মন্দিরে প্রথম রাসমেলা শুরু করেন। সেই থেকে বাহুবলীন্দ্র পরিবারের উদ্যোগে ১৯৬৯ সাল পর্যন্ত মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এর পর ১৯৭০ সাল থেকে স্থানীয় মেলা কমিটির উদ্যোগে মেলা হয়ে আসছে। ২০১২ সালে জেলা পরিষদের উদ্যোগে গঠিত হয় ময়না রাস মেলা কমিটি। বর্তমান বছরে ময়না রাসমেলা কমিটির কার্য্য করি সভাপতি অশোকানন্দ বাহুবলীন্দ্র ও সহ সভাপতি সিদ্ধার্থ বাহুবলীন্দ্র জানালেন করোনা আবহের কারণে প্রশাসন ও ময়না রাস কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০২১ সালের ময়নার রাস উৎসবের রাসমেলা স্থগিত রাখা হচ্ছে। ময়নার রাস মেলার অন্যতম আকর্ষণ থালার মত বড় বড় বাতাসা ও ফুটবলের মতো কদমা মিষ্টি। এবছরও রাসমেলা না হওয়ায় কদমা মিষ্টি দোকানদারদের গলায় হতাশার সুর। রাস মেলার সামনে স্থানীয় এক মিষ্টি ও কদমা দোকানদারের গলায় হতাশার ছবিটা স্পষ্ট। মিষ্টি ও কদমা দোকানদার নারায়ণ চন্দ্র আচার্য্য বলেন, ' অন্যান্য বছর ২০০ বস্তা চিনি প্রয়োজন হয়, কিন্তু গত বছর মাত্র ৫০ বস্তা চিনি লেগেছে। এই রাসে একটি মিষ্টি দোকানে ৫০ কর্মচারী লাগে সেখানে এ বছর মাত্র বারো জন কর্মচারী কাজ করছে।'
    Published by:Piya Banerjee
    First published: