Zomato Cutlery Feature: খাবারের সঙ্গে থাকবে না চামচ টিস্যু! প্লাস্টিক ব্যবহার কমাতে Zomato-র নতুন ফিচার

এবার থেকে Zomato থেকে খাবার অর্ডার দিলে মাথায় রাখতে হবে চামচ বা টিস্যু না-ও পাওয়া যেতে পারে।

এবার থেকে Zomato থেকে খাবার অর্ডার দিলে মাথায় রাখতে হবে চামচ বা টিস্যু না-ও পাওয়া যেতে পারে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: রেস্তোরাঁয় খাবার অর্ডার দিলে বা আজকাল অনলাইনে অর্ডার দিলে খাবারের সঙ্গে চামচ, টিস্যু পেপার বা আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র দেওয়া থাকে। অনেক সময়ে খাবারের প্যাকেটের উপের তা আটকানো থাকে বা প্যাকেটের ভিতরে থাকে। এতে যেখানেই সেই খাবার নিয়ে যাওয়া হোক না কেন, খেতে কোনও সমস্যা হয় না। এর জন্য রেস্তোরাঁকে এতদিন আলাদা করে বলে দিতে হত না কিছু। কারণ খাবার দিলেই এই জিনিসগুলো দেওয়ার চল ছিল। তবে, এবার এই বিষয়টিতেই পরিবর্তন আসতে চলেছে। এবার থেকে খাবার অর্ডার দিলে মাথায় রাখতে হবে তার সঙ্গে চামচ না-ও থাকতে পারে বা টিস্যু না-ও পাওয়া যেতে পারে।

পরিবেশ বাঁচাতে এই পরিবর্তন আনছে জনপ্রিয় ফুড ডেলিভারি অ্যাপ Zomato। এবার থেকে এই অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার দিলে মাথায় রাখতে হবে কাটলারির জন্য আলাদা করে অপশন বেছে নিতে হবে। তা না হলে খাবারের সঙ্গে এই সমস্ত জিনিসপত্র পাওয়া যাবে না। সংস্থার মতে, এতে প্লাস্টিকের ব্যবহার কমবে এবং পরিবেশ বাঁচবে।

অনেক সময়ই আমরা বাড়িতে বসে খাবার জন্য কিছু অর্ডার করি। সেক্ষেত্রে বাড়িতেই টিস্যু পেপার, চামচ, স্ট্র, কাঁটা চামচ ইত্যাদি থাকে। রেস্তোরাঁ থেকে যেটা দেয়, সেটা পড়েই থাকে বা ব্যবহার না করেই ফেলে দেওয়া হয়। যা কাজেও লাগে না, উল্টে পরিবেশ দূষিত করে। তাই এই অপব্যয় রুখতে পদক্ষেপ করেছে Zomato। জানা যাচ্ছে, অ্যাপটির আপডেট ভার্সনে অপশন পাওয়া যাবে। চাইলে যে কেউ অপশনটি বেছে নিতে পারেন। প্রয়োজন না হলে তা আলাদা করে বেছে নেওয়ার দরকার নেই।

ইতিমধ্যেই অর্ধেক ব্যবহারকারীর অ্যাপে এই আপডেট পৌঁছে গিয়েছে। অর্ধেক ব্যবহারকারীর কাছে পৌঁছানো এখনও বাকি আছে। যা আগামী ৩-৪ সপ্তাহের মধ্যেই হয়ে যাবে। তার পর প্রত্যেককেই খাবার অর্ডার দেওয়ার আগে এই বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হবে বলে জানিয়েছে সংস্থা।

সম্প্রতি সংস্থার কর্নধার দীপিন্দর গয়াল ট্যুইট করে বিষয়টি জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, খাবার অর্ডার করার সময় এবার থেকে প্রত্যেকে কাটলারির অপশন স্কিপ করতে পারেন। এর জন্য অ্যারে অপট আউট ও অপট ইন-এর অপশন দেওয়া হবে। যদি প্রয়োজন হয়, ক্রেতাদের এবার থেকে টিস্যু, চামচ বা স্ট্রয়ের জন্য আলাদা করে আবেদন করতে হবে।

এর সঙ্গেই দীপিন্দর একটি ব্লগও শেয়ার করেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, সার্ভেতে মিলেছে, ৯০ শতাংশ মানুষেরই এই কাটলারিগুলো দরকার পড়ে না। তাই এই সার্ভে দেখে এই সিদ্ধান্ত। কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, একটা প্লাস্টিকের চামচ প্রকৃতিতে মিশে যেতে ২০০ থেকে ৫০০ বছর সময় লাগে। যদি মানুষ প্রয়োজন ছাড়া এর ব্যবহার কমিয়ে দেয় এবং এভাবে নষ্ট না হয় তা হলে পরিবেশ বাঁচবে। প্রতি দিন ৫০০০ কিলোগ্রাম প্লাস্টিক বাঁচবে। তাতে পরিবেশ ভালো থাকবে।

তাঁর এই ট্যুইট প্রকাশ্যে আসার পরই ভাইরাল হয়। এই পদক্ষেপের প্রশংসা করেন সকলে। অনেকেই তাঁর ট্যুইট কোট করে লেখেন, তাঁরা এই কাটলারি অপশন স্কিপ করেছেন ইতিমধ্যেই।

Published by:Suman Majumder
First published: