Yearender 2020: Ban-র তকমা, তবুও বিশ্ব জুড়ে এ বছর সব চেয়ে বেশি আয় করেছে PUBG!

Yearender 2020: Ban-র তকমা, তবুও বিশ্ব জুড়ে এ বছর সব চেয়ে বেশি আয় করেছে PUBG!

PUBG game

প্রসঙ্গত, ভারত-চিন সীমান্ত সংঘর্ষের সূত্র ধরে ২ সেপ্টেম্বর তথ্য লেনদেন, ফাঁস ও তথ্য চুরির যোগে ব্যান হয়ে যায় ১১৮টি অ্যাপ। সে দিন ব্যান হয়েছিল বহুল জনপ্রিয় PUBG গেমও।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: PUBG Mobile গেমের অন্যতম বড় বাজার ছিল ভারত। কিন্তু সেপ্টেম্বর মাসে ভারত সরকারের তরফে ব্যান করে দেওয়া হয় গেমটি। যা নিঃসন্দেহে সংস্থাটির জন্য একটি বড় ধাক্কা ছিল। কিন্তু ব্যানের পরোয়ানাও আটকাতে পারেনি PUBG Mobile-এর আধিপত্যকে। কারণ মোবাইল গেমের (Mobile Game) ক্ষেত্রে এই বছর বিশ্ব জুড়ে সব চেয়ে বেশি আয় করেছে PUBG। বছর শেষের মুখে (Yearender 2020) Sensor Tower-এ সম্প্রতি প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন জানাচ্ছে এ কথা।

Sensor Tower-এর তথ্য অনুযায়ী, এই বছর PUBG Mobile তার চিনা ভার্সন 'Game For Peace'-সহ সমস্ত ভার্সন মিলিয়ে প্রায় ২.৬ বিলিয়ন ডলার (ভারতীয় মুদ্রায় ১৯,১১৩ কোটি) আয় করেছে। এ ক্ষেত্রে গত বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালের আয়ের থেকে প্রায় ৬৪.৩ শতাংশ আয় বেড়েছে। মোট আয়ের দিক থেকে PUBG Mobile-এর পরে এই বছর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে Honor of Kings গেম। এই গেমের আয় ২.৫ বিলিয়ন ডলার অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১৮,৩৭৮ কোটি টাকা।

বিশেষজ্ঞদের কথায়, এই প্যানডেমিক (Pandemic) পরিস্থতি গেমিং সংস্থাগুলির জন্য কোথাও যেন শাপে বর হয়েছে। ক্রমবর্ধমান সংক্রমণ ও লকডাউনের (Lockdown) জেরে অধিকাংশ সময় মানুষ ঘরবন্দি হয়ে কাটিয়েছেন। এতে ইনডোর ও অনলাইন গেমগুলির জন্য আয়ের দরজা খুলে গিয়েছে। তথ্য বলছে, এই পুরো বছর অর্থাৎ ২০২০ জুড়ে মোবাইল গেমগুলি প্রায় ৭৫ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে। যা গত বছরের চেয়ে ১৯.৫ শতাংশ বেশি। এ ক্ষেত্রে তৃতীয় স্থানে রয়েছে Pokemon GO। Nantic নামের সংস্থার এই Pokemon GO গেমের এই বছরের আয় ১.২ বিলিয়ন ডলার (ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৮,৮২০ কোটি)। Pokemon GO-র পর চতুর্থ স্থানে রয়েছে Moon Active সংস্থার Coin Master গেম। Coin Master-এর পর অর্থাৎ পঞ্চম স্থানে রয়েছে Roblox Corporation-এর Roblox। Sensor Tower-এর সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১৯ সালেও ১ বিলিয়ন ডলারের বেশি টাকা আয় করেছিল PUBG Mobile ও Honor of Kings। প্রসঙ্গত, ভারত-চিন সীমান্ত সংঘর্ষের সূত্র ধরে ২ সেপ্টেম্বর তথ্য লেনদেন, ফাঁস ও তথ্য চুরির যোগে ব্যান হয়ে যায় ১১৮টি অ্যাপ। সে দিন ব্যান হয়েছিল বহুল জনপ্রিয় PUBG গেমও। ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যাক্টের ৬৯ A ধারার অধীনে অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করা হয়। তখন সরকারের তরফে জানানো হয়েছিল, দেশের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা রক্ষায় এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। এর পর এই গেমের ফিরে আসা নিয়ে একাধিক জল্পনা তৈরি হয়েছে। পরের দিকে, গেমের পাবলিশার হিসেবে চিনা সংস্থা Tencent Games-কে সরানো হয়। PUBG Mobile India আসার জল্পনা শুরু হয়। কিন্তু গেমটি কবে আসছে, তা নিয়ে এখনও সংশয় রয়েছে। শোনা যাচ্ছিল, কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স মন্ত্রকের সঙ্গে PUBG India Pvt Ltd-এর রেজিস্ট্রেশনের খবরও। তবে গেম লঞ্চ করা নিয়ে তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে এখনও কোনও সবুজ সঙ্কেত মেলেনি।

Published by:Pooja Basu
First published: