Home /News /technology /
WhatsApp-এ প্রতারণার শিকার? ভয় নেই ! নতুন ফিচারে এবার ধরা পড়বে চুরি!

WhatsApp-এ প্রতারণার শিকার? ভয় নেই ! নতুন ফিচারে এবার ধরা পড়বে চুরি!

WhatsApp: বর্তমানে যে কোনও ডিভাইসের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা WhatsApp-এ লগ-ইন করতে চাইলে তাদের ‘ট্যু-ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন’ (two-factor authentication) পদ্ধতির মধ্য দিয়ে লগ-ইন করতে হয়।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: WhatsApp এই মুহূর্তে সারা বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপগুলির মধ্যে অন্যতম। Meta-র মালিকানাধীন এই ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপের ব্যবহারকারীর সংখ্যা যেমন প্রতিদিন বাড়ছে তেমনি পাল্লা দিয়ে বাড়ছে প্রতারণার সংখ্যা। অনেক ক্ষেত্রেই স্ক্যামাররা ব্যক্তিগত ডেটা থেকে শুরু করে অফিসিয়াল তথ্যও চুরিও করে থাকে। WhatsApp-এর এই স্ক্যামিং ট্রেন্ড রুখতে সম্প্রতি নতুন ফিচার নিয়ে আসছে কোম্পানি।

বর্তমানে যে কোনও ডিভাইসের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা WhatsApp-এ লগ-ইন করতে চাইলে তাদের ‘ট্যু-ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন’ (two-factor authentication) পদ্ধতির মধ্য দিয়ে লগ-ইন করতে হয়। কিন্তু এতেও থামছে না স্ক্যামিং। স্ক্যামাররা অতি সহজেই ব্যবহারকারীদের WhatsApp হাইজ্যাক করে তথ্য চুরি করছে। এই সমস্যা দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে। অবশেষে WhatsApp এমন একটি ফিচার নিয়ে আসতে চলেছে যা এই সমস্যাটিকে কিছুটা হলেও সমাধান করবে।

আরও পড়ুন:  Android-এর এই অ্যাপ বন্ধ করে দিচ্ছে Google, এ বার কী উপায়? দেখে নিন এক নজরে

সম্প্রতি মেটা-মালিকানাধীন WhatsApp বর্তমানে এমন একটি ফিচারের ওপর কাজ করছে যা ব্যবহারকারীদের WhatsApp-এ লগ-ইনের সময় ‘ট্যু-ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন’ ছাড়াও আরেকটি স্তরের সুরক্ষা দেবে। এই ফিচারটিকে চিহ্নিত করেছে হোয়াটসঅ্যাপ ট্র্যাকার WABetaInfo। অদূর ভবিষ্যতে Android এবং iOS ব্যবহারকারীরা এই ফিচারটির অ্যাক্সেস করতে পারবেন। যদিও বা কোম্পানির তরফে এখনও নির্দিষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি। যেহেতু এই ফিচারটি এখনো গবেষণাধীন রয়েছে তাই সাধারণ ব্যবহারকারীদের বর্তমানে এটি প্রযোজ্য নয়।

ব্যবহারকারীরা যখন এই ফিচারটি হাতে পাবেন তখন কী ভাবে কাজ করবে এটি?

WABetaInf-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, ব্যবহারকারীরা যে কোনও ডিভাইস থেকে WhatsApp অ্যাকাউন্টে লগ ইন করার চেষ্টা করলে তাদের জন্য একটি অতিরিক্ত ভেরিফিকেশন কোড প্রয়োজন। WABetaInf রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে যে, কোম্পানি বর্তমানে এই ৬ ডিজিটের ভেরিফিকেশন কোডটি নিয়ে কাজ করছে। WABetaInf-এর অন্য আরেকটি খবর অনুযায়ী, ভবিষ্যতে যাতে ব্যবহারকারীরা টেক্সট এডিট করতে পারেন সেই ফিচার নিয়েও কাজ করছেন। যদিও এই নিয়েও মুখ খোলেনি কম্পানি।

তবে WhatsApp ব্যবহারকারীদের জন্য আরও সুখবর রয়েছে। যারা এতদিন পর্যন্ত WhatsApp-এর মাধ্যমে বড় আকারের ফাইল পাঠাতে পারতেন না, তারা এবার থেকে সেটি করতে পারবেন। সম্প্রতি WhatsApp তার গ্রাহকদের আরও ভাল পরিষেবা দিতে চেষ্টা করছে। তারই অঙ্গ হিসেবে বড় সাইজের ফাইল পাঠাতে দেবে WhatsApp। ইতিমধ্যেই দক্ষিণ আমেরিকার বাইরে বসবাসকারী গ্রাহকদের জন্য ২জিবি ফাইল শেয়ারিংয়ের অপশনটি সক্রিয় করার কাজ শুরু হয়েছে। দক্ষিণ আমেরিকাতে প্রথম এই ফিচার নিয়ে গবেষণা শুরু হয়।

Published by:Piya Banerjee
First published:

Tags: Whatsapp

পরবর্তী খবর