সমস্ত ইউজারকে ফেসবুক লাইভের অনুমতি দেওয়া হবে না, কড়া বিধি-নিষেধ জারি

সমস্ত ইউজারকে ফেসবুক লাইভের অনুমতি দেওয়া হবে না, কড়া বিধি-নিষেধ জারি
representative image
  • Share this:

#ক্যালিফোর্নিয়া: জুম্মার নমাজ পড়া হল না ওঁদের। তার আগেই জঙ্গিদের গুলিতে ঝাঁঝরা হয়ে গেল ৪৯ টা প্রাণ। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে পরপর দুটি মসজিদে চলল এলোপাথারি গুলি। মুহূর্তে রক্তাক্ত হয়ে ওঠে ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদ। লিনউড মসজিদেও চলে বন্দুকবাজের হামলা। তিন মিনিট ধরে লাগাতার গুলি চালিয়ে মসজিদের সামনের দরজা দিয়ে বেরিয়ে যায় হামলাকারীরা!

ফেসবুক লাইভ করে ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে বন্দুকবাজের হামলার ঘটনা গোটা বিশ্বকে জানান দিয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক ব্রেন্ডন ট্যারান্ট। এরপরই নানা মহল থেকে প্রশ্ন উঠেছিল ফেসবুক লাইভ নিয়ে! কীভাবে এমন লাইভ পোস্ট করতে দেওয়া হল? বয়ে যায় নিন্দা, সমালোচনার ঝড়! জানা গিয়েছে, এরপরই কড়া পদক্ষেপ করতে চলেছে মার্ক জুকারবার্গের সংস্থা। বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই সোশাল প্ল্যাটফর্মের বর্তমান ইউজার সংখ্যা ২৭০ কোটিরও বেশি। ফেসবুকের চিফ অপারেটিং অফিসার সেরিল স্যান্ডবার্গ জানিয়েছেন, এবার থেকে সমস্ত ইউজারকে ফেসবুক লাইভের অনুমতি দেওয়া হবে না। লাইভ করার ক্ষেত্রে জারি করা হচ্ছে বিশেষ কিছু বিধি-নিষেধ ।

গত ১৫ মার্চ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে ১৭ মিনিটের হত্যালীলার সেই লাইভ ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছিল সোশাল মিডিয়ায়। ফেসবুক ইতিমধ্যেই এমন ৯০০টি ভিডিও উদ্ধার করেছে, যেখানে ওই হত্যাকাণ্ডের দৃশ্য টুকরো টুকরো করে ছড়িয়ে পড়েছে। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের এমন বেশ কিছু প্রোফাইল ও গ্রুপকে ইতিমধ্যেই ব্লক করেছে ফেসবুক। গত সপ্তাহেই এই সোশাল প্ল্যাটফর্মের তরফে জানানো হয়েছিল, ক্রাইস্টচার্চ হামলার পরের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যে সমস্ত ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছিল তার মধ্যে প্রায় ১৫ লক্ষ ভিডিও ইতিমধ্যেই মুছে ফেলা হয়েছে। সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে যাতে ভবিষ্যতে এমন হিংসার দৃশ্য ছড়াতে না পারে, সেই কারণেই ফেসবুক লাইভে কিছু নিয়মাবলি আরোপ করতে চলেছে ফেসবুক। ফেসবুকে কেউ সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়াতে চাইলে তা আর সম্ভব হবে না।

First published: April 1, 2019, 1:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर