Home /News /technology /
Smartphone Radiation: সাবধান ! এই ১০টি মোবাইল ফোনে রেডিয়েশনের তীব্রতা সবচেয়ে বেশি, এগুলি আপনার ফোন নয় তো?

Smartphone Radiation: সাবধান ! এই ১০টি মোবাইল ফোনে রেডিয়েশনের তীব্রতা সবচেয়ে বেশি, এগুলি আপনার ফোন নয় তো?

Motorola Edge, OnePlus, Google এবং Oppo স্মার্টফোনে উচ্চ মাত্রার রেডিয়েশন ছড়ানোর নজির পাওয়া গিয়েছে

  • Share this:

    Smartphones With the Highest Radiation Levels: মোবাইল ছাড়া দিন চলে না। কিন্তু সেই মোবাইলই যে রেডিয়েশন ছড়ায়, তা জানেন কি? কম বেশি সব মোবাইল থেকেই ছড়িয়ে পড়ে রেডিওফ্রিকোয়েন্সি (RF)। কিন্তু তার একটি সহনমাত্রা নির্দিষ্ট করা থাকে। কিছু কিছু স্মার্টফোন সেই মাত্রা ছাড়িয়ে রেডিয়েশন ছড়ায়। কোন কোন মোবাইলে রয়েছে এমন বিপজ্জনক সম্ভাবনা? দেখে নেওয়া যাক।

    একটি নতুন গবেষণা রিপোর্ট জানিয়েছে, ভারতবর্ষে OnePlus, Google এবং Oppo স্মার্টফোনে উচ্চ মাত্রার রেডিয়েশন ছড়ানোর নজির পাওয়া গিয়েছে। প্রায় সব স্মার্টফোনই রেডিওফ্রিকোয়েন্সি রেডিয়েশন (RF) নির্গত করে যা স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে।

    ব্যাঙ্কলেস টাইমস-এর নতুন রিপোর্টে যে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে স্মার্টফোনগুলিতে উচ্চ মাত্রার RF নির্গত হয়েছে। এই রেডিয়েশনের মাত্রাকে নির্দিষ্ট শোষণ অনুপাত বা SAR মানের ভিত্তিতে র্যাFঙ্ক দেওয়া হয়েছে। এই র্যা ঙ্ক প্রতিটি স্মার্টফোনের বাক্সের পিছনে উল্লেখ করা থাকে। তবেই তা বাজারে বিক্রির অনুমতি পায়, যাকে ক্রেতা তা কেনার সময় সচেতন হয়েই কেনেন।

    আরও পড়ুন - পুরনো অ্যাপ মুছে ফেলবে গুগল, এই সব অ্যাপ আর পাওয়া যাবে না প্লে স্টোরে !

    আরও পড়ুন - এক নজরে দেখে নিন Oneplus 10 Pro 5G ফোনের ১০টি বৈশিষ্ট্য

    SAR মান পরিমাপ করা হয় ওয়াট প্রতি কিলোগ্রাম (W/Kg)-এ। ভারতে সহনশীল SAR সীমা 1.66 W/Kg বলে স্থির করা হয়েছে। প্রতিবেদনে দেওয়া স্মার্টফোনের তালিকায় যে সব ফোন এই সীমার একেবারে কাছে রয়েছে তার মধ্যে বেশ কয়েকটি পাওয়া যায় ভারতেও। এ দেশে বিক্রি হওয়া SAR সীমার কাছাকাছি থাকা স্মার্টফোনগুলির মধ্যে রয়েছে OnePlus, Google এবং Oppo। রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে সারা বিশ্বের স্মার্টফোন তালিকায় Motorola এবং Sony Xperia-র নামও রয়েছে যারা বিপজ্জনক হিসেবে চিহ্নিত।

    এখানে স্মার্টফোনগুলির সম্পূর্ণ তালিকা দেওয়া হয়েছে যারা উচ্চমাত্রায় রেডিয়েশন ছড়ায়।

    ১. Motorola Edge - 1.79W/Kg

    ২. ZTE Axon 11 5G - 1.56 W/Kg

    ৩. OnePlus 6T - 1.55 W/Kg

    ৪. Sony Xperia XA2 Plus - 1.41 W/Kg

    ৫. Google Pixel 3 XL - 1.39 W/Kg

    ৬. Google Pixel 4a - 1.37 W/Kg

    ৭. Oppo Reno5 5G - 1.37 W/Kg

    ৮. Xperia XZ1 Compact - 1.36W/Kg

    ৯. Google Pixel 3 - 1.33W/Kg

    ১০. OnePlus 6 - 1.33W/Kg

    এই তালিকার একেবারে শীর্ষে রয়েছে মোটোরোলা এবং তারপরে ZTE অ্যাক্সন। কিন্তু এই স্মার্টফোনগুলোর কোনটিই ভারতে পাওয়া যায় না। ভারতীয় সীমা অনুযায়ী সর্বোচ্চ SAR মাত্রা সহ স্মার্টফোন হল 1.55 W/Kg মান-সহ OnePlus 6T, যা দেশে অনুমোদিত সীমার কাছাকাছি। এর পরে রয়েছে Google Pixel 3XL এবং Google Pixel 4a , যা যথাক্রমে 1.39 W/kg এবং 1.37 W/kg রেডিওফ্রিকোয়েন্সি নির্গত করে। যদিও এই সমস্ত স্মার্টফোনগুলি ভারতে SAR সীমার মধ্যেই রয়েছে। তবে এ বিষয়ে সচেতন থাকা জরুরি।

    স্মার্টফোন কেনার আগে SAR লেভেল সম্পর্কে জানতে হলে ফোনের মূল বাক্সটি দেখতে হবে। এর পিছনে SAR-সম্পর্কিত সমস্ত বিবরণ পাওয়া যাবে।

    স্মার্টফোনে উচ্চ SAR লেভেল: আপনার কি চিন্তিত হওয়া উচিত?

    বেশিরভাগ মানুষই স্মার্টফোনটি কানের কাছে চেপে ধরে ব্যবহার করেন। কিন্তু DoT-এর নিয়ম অনুযায়ী, একজন ব্যক্তির যতটা সম্ভব শরীর থেকে দূরে স্মার্টফোন ব্যবহার করা উচিত। তাদের কল করার জন্য একটি ব্লুটুথ হেডফোন ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়। ব্যাঙ্কলেস টাইমসের প্রতিবেদনে এমন কোনও ইঙ্গিত নেই যে উচ্চ SAR মাত্রা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কোনো উদ্বেগ সৃষ্টি করে, কিন্তু DoT স্পষ্টভাবে মনে করে যে একজন ব্যক্তির স্মার্টফোন ব্যবহার করা উচিত যেখানে নেটওয়ার্ক সিগন্যাল ভালো, যাতে সংক্রমণের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: Radiation, SAR, Smartphone, Smartphone radiation

    পরবর্তী খবর