Home /News /technology /
iPhone Tips and Tricks: ঘর সাজানোর মতো করেই সাজিয়ে নিন iPhone 13-এর হোম স্ক্রিন, জানুন কিছু গোপন কৌশল

iPhone Tips and Tricks: ঘর সাজানোর মতো করেই সাজিয়ে নিন iPhone 13-এর হোম স্ক্রিন, জানুন কিছু গোপন কৌশল

iPhone tips and tricks: আইফোন ১৩-র এই গোপন কৌশল যেগুলো জানলে আইফোন (iPhone) ব্যবহার করা নখদর্পণে চলে আসবে।

  • Share this:

    iPhone Tips and Tricks: ঘর গুছিয়ে রাখলে তো দেখতে ভালোই লাগে। ঠিক তেমন ভাবেই নিজের মুঠোফোনটির হোম স্ক্রিন সাজিয়ে-গুছিয়ে রাখলে দেখতেও ভালো লাগবে এবং ব্যবহারেও সুবিধা হবে। আসলে আইফোনের মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে কিছু মজাদার জিনিস। যেগুলো জানতে পারলে আইফোন (iPhone) ব্যবহার করা নখদর্পণে চলে আসবে। আর এই দারুণ ফিচার আরও ভালো ভাবে উপভোগ করা যাবে আইফোন ১৩ (iPhone 13)-র ক্ষেত্রে। কারণ এটাই আপাতত আইফোনের নতুন ভার্সন এবং এতে ব্যবহার করা হয়েছে সফটওয়্যারের নবতম সংস্করণ। তাহলে কথা-না বাড়িয়ে ঢুকে পড়া যাক মূল প্রসঙ্গে। আলোচনা করে নেওয়া যাক আইফোন ১৩-র এই গোপন কৌশল নিয়ে।

    আলাদা ওয়ালপেপার:

    হোম স্ক্রিন এবং লক স্ক্রিনের জন্য আলাদা-আলাদা ওয়ালপেপার বেছে নেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। এতে লক স্ক্রিনে কোনও ছবি হাইলাইট করতে চাইলে সুবিধা হবে। নানা ধরনের রঙিন অ্যাপ ছবির ক্ষেত্রে সমস্যা তৈরি করবে না। তাই হোম স্ক্রিনের ক্ষেত্রে কালো অথবা কালোর মতোই কোনও রঙের ওয়ালপেপার ব্যবহার করা উচিত। এর জন্য শুধু সেটিংসে গিয়ে পছন্দমতো ওয়ালপেপার বাছাই করে নিতে হবে। লক স্ক্রিনের ওয়ালপেপারও এভাবেই বদলানো যাবে।

    আরও পড়ুন - অপেক্ষার অবসান, Whatsapp আপডেটে এ বার বড় ফাইল শেয়ারিংয়ের সুযোগ

    ফোল্ডার তৈরি:

    হোম স্ক্রিন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ভাবে গুছিয়ে রাখলে দেখতেও ভালো লাগবে। এমনিতে আইওএস অ্যাপ আইকন (iOS app icon) মাল্টিপল হোম স্ক্রিনে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকে। তাই এগুলোকে এক ছাদের তলায় আনতে একটি ফোল্ডার তৈরি করতে হবে। একটা অ্যাপ ড্র্যাগ করে অন্যটার ওপরে আনলে ফোল্ডার তৈরি হয়ে যাবে। এবার এডিট করে ফোল্ডারের নামও দিয়ে দেওয়া যাবে। একই ধরনের অ্যাপগুলিকে একটি ফোল্ডারে রাখলে সুবিধা হবে। যেমন- স্যুইগি, জোম্যাটোর মতো ফুড ডেলিভারি অ্যাপগুলিকে একটি ফোল্ডারে রাখা যায়।

    অ্যাপ লাইব্রেরির ব্যবহার:

    ফোনে প্রচুর অ্যাপ থাকলে অ্যাপ লাইব্রেরি (App library) ব্যবহার করার চেষ্টা করা উচিত। হোম স্ক্রিনে এক জায়গায় একসঙ্গে রাখা যেতে পারে সবথেকে বেশি ব্যবহৃত অ্যাপগুলি। আবার যে অ্যাপগুলি বেশি ব্যবহার করা হয় না, সেগুলোকে অ্যাপ লাইব্রেরিতে রাখতে হবে। এতে হোম স্ক্রিন পরিচ্ছন্ন দেখাবে।

    ডকের স্টক অ্যাপে বদল:

    হোম স্ক্রিনের নিচের দিকে রয়েছে একটা বার। এরই নাম আইওএস ডক (iOS Dock)। আর এর মধ্যেই ডিফল্ট হিসেবে থাকে ফোন অ্যাপ, মেসেজ সাফারি এবং মিউজিক। যদি নিয়মিত এই অ্যাপগুলি ব্যবহার করা হয়, তাহলে অসুবিধা নেই। কিন্তু যদি তা রোজ ব্যবহার করা না-হয়, তাহলে ডকের স্পেস অন্য জরুরি অ্যাপের জন্য ব্যবহার করতে হবে। এর জন্য ডকের একটি অ্যাপ আইকন হোল্ড করে রাখতে হবে, তা হালকা নড়েচড়ে উঠলে (Jiggling) সেটাকে ড্র্যাগ করে বা টেনে নতুন লোকেশনে পাঠিয়ে দিতে হবে। তার পর জরুরি কোনও অ্যাপ ড্র্যাগ করে ডকে নিয়ে আসতে হবে।

    আরও পড়ুন - Google বন্ধ করে দিচ্ছে কল রেকর্ডিং অ্যাপ! জানুন এবার কী করবেন

    হোম স্ক্রিনে উইজেটস:

    কখনও কখনও উইজেটস (Widgets) ভীষণই কার্যকরী। তবে মাথায় রাখতে হবে যে, এটা হোম স্ক্রিনের অনেকটা জায়গা নিয়ে নেয়। হোম স্ক্রিনের শূন্য স্থানে টাচ অথবা হোল্ড করতে হবে, এর পর স্ক্রিনের একেবারে উপরের বাম দিকে + আইকন সিলেক্ট করে উইজেটস্ অ্যাড করা যাবে। এবার অ্যাপ আইকনগুলিতে জিগলিং হলে বা সেগুলি মৃদু ভাবে নড়ে উঠলে অথবা বাম দিকে সোয়াইপ হয়ে ‘টুডে ভিউ’ দেখা গেলে স্ক্রিনের একদম নিচের দিকে চলে যেতে হবে। এবার এডিট অপশন সিলেক্ট করে আগের মতোই + আইকন সিলেক্ট করতে হবে। এবার শুধুমাত্র ক্যালেন্ডার অথবা ওয়ার্ল্ড টাইমের মতো জরুরি উইজেটস হোম স্ক্রিনের জন্য বেছে নেওয়া যেতে পারে।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    Tags: IPhone, IPhone 13, Tech tips

    পরবর্তী খবর