• Home
  • »
  • News
  • »
  • technology
  • »
  • বাজার মাতাচ্ছে Signal, জানেন কি এতে এমন কিছু ফিচার আছে যা বাড়তি সুরক্ষা দিতে পারে আপনাকে ?

বাজার মাতাচ্ছে Signal, জানেন কি এতে এমন কিছু ফিচার আছে যা বাড়তি সুরক্ষা দিতে পারে আপনাকে ?

এটি চালু করতে গেলে কয়েকটি পদক্ষেপ নিতে হবে, জেনে নিন

এটি চালু করতে গেলে কয়েকটি পদক্ষেপ নিতে হবে, জেনে নিন

এটি চালু করতে গেলে কয়েকটি পদক্ষেপ নিতে হবে, জেনে নিন

  • Share this:

Signal: WhatsApp-এর প্রাইভেসি সেটিং নিয়ে সমস্যার মাঝেই Signal অ্যাপে ঝুঁকতে শুরু করে সবাই। তথ্য সুরক্ষার্থে এই পদক্ষেপ করে বেশিরভাগ মানুষ। যদিও WhatsApp তার প্রাইভেসি নীতিতে পরিবর্তন আনার কথা বলে, তবুও WhatsApp থেকে বেরিয়ে যায় বহু মানুষ। এই পরিস্থিতিতে নিজেদের ঢেলে সাজাতে শুরু করে Signal। একাধিক নতুন ফিচার আনার পাশাপাশি সংস্থা গ্রাহকদের সুরক্ষাও নিশ্চিত করেছে।

অনেকেই হয় তো এই অ্যাপ ব্যবহার করছেন। কিন্তু এর বেশ কিছু ফিচার বা নতুন সিকিওরিটি সেটিংয়ের কথা জানেন না। Signal-এ এমন কয়েকটি ফিচার আছে যা আপনার ভালো লেগে যেতে পারে। যেমন এতে রয়েছে স্ক্রিন সিকিওরিটি অপশন। কোনও চ্যাটের স্ক্রিনশট যাতে কেউ নিতে না পারে তার জন্য এই অপশনটি দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি অ্যাপ সুইচারে যাতে এর কিছু দেখা না যায়, তা-ও এই ফিচার নিশ্চিত করছে। এই অপশনটি অ্যান্ড্রয়েড ও iOS দুইয়ের ক্ষেত্রেই উপলব্ধ রয়েছে।

এটি চালু করতে গেলে কয়েকটি পদক্ষেপ করতে হবে!

iOS ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে-

১) ফোন প্রথমে Signal অ্যাপটি খুলতে হবে।

২) তার পর স্ক্রিনের একদম উপরের বাঁদিকে প্রোফাইল আইকন বা ইমেজে ক্লিক করতে হবে।

৩) এর পর একটি লিস্ট আসবে। যাতে বন্ধুদের আমন্ত্রণ জানানোর অপশন থাকবে, অ্যাপিয়ারেন্স থাকবে, প্রাইভেসি, নোটিফিকেশন ইত্যাদি থাকবে।

৪) এবার প্রাইভেসিতে ক্লিক করলে প্রাইভেসি অপশন আসবে। স্ক্রোল করে একদম নিচে এসে দেখা যাবে স্ক্রিন সিকিওরিটির অপশন। তার পর এটিকে অন করে দিতে হবে।

iOS-এর মতোই অ্যান্ড্রয়েডেও Signal-এর এই অপশনটি একই আসবে।

এমনিতে প্রায় সব অ্যাপেই প্রাথমিক তথ্য সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়ে থাকে। কিন্ত এই অপশনে অতিরিক্ত সুরক্ষা দেওয়া যাবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ফোন যাতে সুরক্ষিত থাকে, বিশেষ করে হারিয়ে গেলে বা চুরি হয়ে গেলে যাতে আপনার তথ্য কেউ হাতিয়ে নিতে না পারে বা তা দিয়ে কোনও জালিয়াতি করতে না পারে, তার জন্য ফোনে সব সময়ে ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক, ফেস লক বা এই ধরনের ব্যবস্থা করে রাখতে হবে।

অ্যান্ড্রয়েড ও iOS দুইয়ের ক্ষেত্রেই নতুন কোনও অ্যাপ ডাউনলোডের আগে তা কোন কোন তথ্য চাইছে ও আপনার কোন কোন স্টোরেজের অ্যাকসেস চাইছে, তা দেখে নেওয়া ভালো, বলতে ভুলছেন না বিশেষজ্ঞরা।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: