খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

Yearender 2020: চলতি বছরের আন্তর্জাতিক T20 সেরা একাদশের টিমে দেশের মুখ উজ্জ্বল করলেন দুই ভারতীয়!

Yearender 2020: চলতি বছরের আন্তর্জাতিক T20 সেরা একাদশের টিমে দেশের মুখ উজ্জ্বল করলেন দুই ভারতীয়!

উল্লেখ্য, এই বছর বুমরার সেরা পারফরম্যান্স ছিল নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। ৪ ওভারে ১২ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন তিনি।

  • Share this:

#নয়া দিল্লি:পুরো বছর জুড়ে T20 ক্রিকেট থেকে একের পর এক সেরা পারফরম্যান্স উঠে এসেছে। এক দিকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ডাভিড মালানের দুরন্ত ব্যাটিং থেকে শুরু করে কে এল রাহুলের একের পর এক ভালো পারফরম্যান্স আর অন্য দিকে বুমরাহ-এনগিডির বোলিং আধিপত্য ছিল নজরকাড়া। গোটা বছরের নিরিখে ক্রিকেটের T20 ফরম্যাট সেরার সেরাদের খুঁজে পেয়েছে। সেই হিসেবেই তৈরি হল ২০২০ সালের আন্তর্জাতিক T20 সেরা একাদশের টিম। টিমে রয়েছেন ইংলন্ডের চারজন ক্রিকেটার, ভারত ও অস্ট্রেলিয়া থেকে দু'জন করে এবং নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে একজন করে ক্রিকেটার। সব থেকে বড় বিষয় হল- আন্তর্জাতিক এই একাদশের দলে জায়গা পেয়েছেন ভারতের যশপ্রীত বুমরা ও কে এল রাহুল।

একনজরে ২০২০ সালের T20 সেরা একাদশ:

১. কে এল রাহুল (KL Rahul)

২. জস বাটলার (Jos Buttler) (উইকেট রক্ষক)

৩. ডাভিড মালান (Dawid Malan)

৪. কেন উইলিয়ামসন (Kane Williamson)

৫. ইয়ন মরগ্যান (Eoin Morgan) (অধিনায়ক)

৬. কায়রন পোলার্ড (Kieron Pollard)

৭. অ্যাস্টন আগর (Ashton Agar)

৮. আদিল রশিদ (Adil Rashid)

৯. মিচেল স্টার্ক (Mitchell Starc)

১০. যশপ্রীত বুমরা (Jasprit Bumrah)

১১. লুঙ্গি এনগিডি (Lungi Ngidi)

ওপেনিং পজিশনে বাটলার ও কে এল রাহুল

২০২০ সালে T20 ক্রিকেটে সব চেয়ে বেশি রান করেছেন কে এল রাহুল। আর ওপেনিং পজিশনেই সব চেয়ে বেশি রান এসেছে। ১০ ইনিংসে তাঁর মোট রান ৪০৪। ব্যাটিং গড় ৪৪.৪৮ ও স্ট্রাইক রেট ১৪০.৭৬। চারটি অর্ধশতরানও রয়েছে। অন্য দিকে, ৮ ইনিংসে মোট রান ২৯১ রান করেছেন বাটলার। স্ট্রাইক রেট ১৫০.৭৭। অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে মোট তিনটি অর্ধশতরান রয়েছে।

মিডল অর্ডার

২০২০ সালে দারুণ ভাবে T20 কেরিয়ার শুরু করেছেন ডাভিড মালান। কেরিয়ারের ১৯ ইনিংসে তাঁর মোট রান ৮৫৫। ব্যাটিং গড় ৫৩.৪৩ ও স্ট্রাইক রেট ১৪৯.৪৭। রয়েছে একটি শতরান ও ন'টি অর্ধশতরান। তিন নম্বর পজিশনে নয় ইনিংস খেলে ৩৮৬ রান করেছেন তিনি। রয়েছে চারটি হার সেঞ্চুরি।

ডাভিড মালানের পর ব্যাট করার জন্য নামতে পারেন কেন উইলিয়ামসন। মিডল অর্ডারে তিনি অন্যতম ভরসা। ৩-৫ পজিশনের মধ্যে ৪ ইনিংসে উইলিয়ামসনের রান ২১৭। স্ট্রাইক রেট ১৫৯.৫৫। রয়েছে তিনটি হাফ সেঞ্চুরি।

এর পর ব্যাট করতে নামতে পারেন ইয়ন মরগ্যান। সেঞ্চুরিয়নে তাঁর ২২ বলে ৫৭ রান এই বছরের অন্যতম সেরা ইনিংস। এই বছর ১৭৩.৭২ স্ট্রাইক রেটে মোট ২৩৮ রান করেছেন। মরগ্যানের নেতত্বে টানা ৮ সিরিজে অপরাজেয় ইংলন্ড।

অলরাউন্ডার

৬ নম্বর পজিশনে ব্যাট করার জন্য কায়রন পোলার্ডের বিকল্প নেই। চলতি IPL-এ ভালো ফর্মে ছিলেন তিনি। চার ইনিংসে ১৬৮ রান করেছিলেন। তবে তাঁর স্ট্রাইক রেট ছিল ২০৪.৮৭। নভেম্বরে অকল্যান্ডে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩৭ বলে ৭৫ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেন। কম রান দেওয়ার পাশাপাশি ঝুলিতে ৯টি উইকেটও রয়েছে।

এর পর রয়েছেন অ্যাস্টন আগর। ছয় ম্যাচে এই বছর ১৩ উইকেট নিয়েছেন। ইকোনমি রেটও ভালো। ৪ ওভারে ২৪ রান দিয়ে পাঁচ উইকেট নেন তিনি।

বোলার

এই তালিকায় অ্যাডাম জাম্পার সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি প্রতিযোগিতা থাকলেও এগিয়ে রয়েছেন আদিল রশিদ। এই বছর ৭.৫০ ইকোনমি রেটে ১১ ইনিংসে ১২টি উইকেট নেন রশিদ।

এ বার বল হাতে দেখা যেতে পারে মিচেল স্টার্ক ও যশপ্রীত বুমরাকে। এই বছর বুমরার ইকোনমি রেট ৬.৩৮ । অন্য দিকে, ৭.৮৭ ইকোনমি রেটে সাত ম্যাচে আট উইকেট নেন স্টার্ক। শেষের ওভারে লেফ্ট-রাইট কম্বিনেশন ও ইয়র্কারও বাড়তি পাওনা।

উল্লেখ্য, এই বছর বুমরার সেরা পারফরম্যান্স ছিল নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। ৪ ওভারে ১২ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন তিনি।

দলের একাদশতম প্লেয়ারটি হলেন লুঙ্গি এনগিডি। এই বছর ১১.৭ স্ট্রাইক রেটে নয় ম্যাচে ১৭টি উইকেট নেন তিনি। এনগিডির উইকেট নেওয়ার ক্ষমতাই তাঁকে অন্য বোলারদের থেকে এগিয়ে দিয়েছে।

Published by: Piya Banerjee
First published: December 31, 2020, 4:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर