• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • Bangladesh super 12 : সাকিব, মোস্তাফিজুরের দাপটে ওমানকে হারাল বাংলাদেশ

Bangladesh super 12 : সাকিব, মোস্তাফিজুরের দাপটে ওমানকে হারাল বাংলাদেশ

ওমানের বিরুদ্ধে জ্বলে উঠলেন সাকিব

ওমানের বিরুদ্ধে জ্বলে উঠলেন সাকিব

T20 World Cup Bangladesh vs Oman Sakib Al Hasan and Mustafizur shines for Bangladesh against Oman in Muscat. বিশ্বকাপের আসরে নিজেদের বাঁচিয়ে রাখতে হলে এই ম্যাচটা জেতার ছাড়া উপায় ছিল না বাংলাদেশের,ব্যাট হাতে ৪২ করার পর বল হাতে ২৮ রান দিয়ে তিনটি উইকেট নেন সাকিব। মোস্তাফিজুর নিলেন চার উইকেট

  • Share this:

    বাংলাদেশ জয়ী ২৬ রানে

    #মাস্কাট: বিশ্বকাপের আসরে নিজেদের বাঁচিয়ে রাখতে হলে এই ম্যাচটা জেতার ছাড়া উপায় ছিল না বাংলাদেশের। স্কটল্যান্ড এর বিরুদ্ধে আগেরদিন হেরে গিয়ে নিজেদের চাপ বাড়িয়েছিল তারা। আজ দুরন্ত ক্রিকেট খেলে নিজেদের বাঁচিয়ে রাখল টাইগাররা। যে দুজন বড় ভূমিকা নিলেন তারা হলেন সাকিব আল হাসান এবং মোস্তাফিজুর রহমান। ব্যাট হাতে ৪২ করার পর বল হাতে ২৮ রান দিয়ে তিনটি উইকেট নেন সাকিব। মোস্তাফিজুর নিলেন চার উইকেট।

    তবে ওমানের দুই ব্যাটসম্যান যতীন্দ্র এবং কাশ্যপ প্রজাপতি চাপ বাড়ান বাংলাদেশের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশে নিজেদের ফোকাস না হারিয়ে সঠিক পথে এগোল। ৩ বল বাকি থাকতে বিলালের বলে বোল্ড হয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশ অধিনায়ক করেছেন ১০ বলে ১৭ রান। শেষ বলে গিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান তুলেছেন ক্যাচ। এর আগে বাঁচা-মরার ম্যাচে বাংলাদেশ তুলেছে ১৫৩ রান। লিটনের সঙ্গে ওপেনিংয়ে এসেছিলেন নাঈম।

    বাংলাদেশ অবশ্য আগের মতোই শুরুতে ধুঁকেছে। লিটন-মেহেদীর উইকেটের পর সাকিবের সংগে নাঈমের ৫৩ বলের ৮২ রানের জুটি বাংলাদেশকে একটু স্বস্তি দিয়েছে। সাকিবের ২৯ বলে ৪২ রানের ইনিংসের অপমৃত্যু ঘটেছে রান-আউট হয়ে। তবে সে জুটির সুবিধা আদায় করতে পারেননি নিচের দিকের ব্যাটসম্যানরা। আফিফ, নুরুল বা নিচের দিকে মুশফিক তেমন কিছু করতে পারেননি।

    বাংলাদেশ অবশ্য থামতে পারত আরও আগেই। প্রথম দিকে ওমান করেছে বেশ পিচ্ছিল ফিল্ডিং। তিনটি সহজ ক্যাচ ছেড়েছে স্বাগতিকরা। তেমন না হলে ওমান বোলারদের দিনটা আরও ভালোই হতো। শেষ পর্যন্ত ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন বিলাল ও ফায়াজ। কলিমউল্লাহ নিয়েছেন ২ উইকেট। টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এ নিয়ে অষ্টম বার আট বা এর নিচে নামলেন মুশফিকুর রহিম। সর্বশেষ এ সংস্করণে এত নিচে খেলেছেন তিনি ২০১৬ সালে।

    টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেই ভারতের বিপক্ষে বেঙ্গালুরুর সেই ‘বিখ্যাত’ ম্যাচে আট নম্বরে নেমে ৬ বলে ১১ রান করেছিলেন তিনি। ভুলটা যদি থেকে থাকে, তাহলে সাকিবেরই। রান-আউট হয়ে ফিরলেন তিনি। পয়েন্টের দিকে খেলে সিঙ্গেল নিতে গিয়েছিলেন, তবে শেষের দিকে গিয়ে আশাই ছেড়ে দিলেন তিনি! আকিব ইলিয়াস ভুল করেননি, সরাসরি থ্রো-তে ভেঙেছেন নন-স্ট্রাইক প্রান্তের স্টাম্প।

    ফিল্ডিংয়ে বাজে একটা দিন কাটানো ওমান অবশেষে পেল সান্ত্বনা। আর ২৯ বলে ৪২ রানের ইনিংসের শেষটা সাকিবের হলো ‘করুণ’। ভাঙল ৫৩ বলে ৮০ রানের জুটি। সুপার টুয়েলভ লড়াইয়ে এই যায় বাঁচিয়ে রাখল বাংলা টাইগারদের। গ্রুপে শীর্ষে রয়েছে স্কটল্যান্ড। চার পয়েন্ট তাদের। দ্বিতীয় স্থানে ওমান। বাংলাদেশের সঙ্গে পয়েন্ট সমান হলেও বেশি রানরেট এগিয়ে রয়েছে ওমান। বাংলাদেশের শেষ ম্যাচ পাপুয়া নিউগিনির বিরুদ্ধে। ওই ম্যাচ জিতে তারপর কিছুটা ভাগ্যের সাহায্য লাগবে বাংলাদেশের। ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হন সাকিব।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: