• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • SACHIN TENDULKAR OFFERS FLOWERS AND GARLANDS TO IDOLS OF GOD AND GODDESSES ON GANESH CHATURTHI ARC

Sachin Tendulkar : সযত্নে কুড়িয়ে নিলেন পড়ে থাকা পাপড়ি, মায়ের নির্দেশ মেনে গণেশ চতুর্থী পালন সচিনের

সচিন তেন্ডুলকর, ছবি-ফেসবুক

  • Share this:

    মুম্বই : মহাতারকা হয়ে যাওয়ার পরও ভুলে যাননি মধ্যবিত্ত মূল্যবোধগুলি ৷ সে ছবি আরও একবার ধরা পড়ল সচিন তেন্ডুলকরের (Sachin Tendulkar) জীবনদর্শনে ৷ গণেশ চতুর্থী (Ganesh Chaturthi) উপলক্ষে মায়ের নির্দেশ অনুসরণ করে ফুলের মালা দিয়ে সাজালেন বিগ্রহকে ৷ সামাজিক মাধ্যমে সেই ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন মাস্টারব্লাস্টার ৷ শুধু গণপতি বিগ্রহই নয় ৷ তিনি একে একে সাজিয়ে দিলেন অন্যান্য দেবমূর্তিকেও ৷ উৎসর্গ করলেন পুষ্পার্ঘ্য ৷ তার পর প্রণাম করলেন ৷

    ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে সচিন বাড়ির বিভিন্ন অংশে ফুল ও মালায় সাজাচ্ছেন দেববিগ্রহকে ৷ এমনকি, সাজাতে গিয়ে কোণে পরে থাকা ফুলের পাপড়িও তুলে নিলেন সযত্নে ৷ নেপথ্যে তাঁর মা (মরাঠিতে ‘আঈ’) রজনী তেন্ডুলকরের গলায় নির্দেশ শোনা যাচ্ছে ৷ কোন কোন দেববিগ্রহকে ফুল ও মালা দিয়ে সাজাতে হবে, বলে দিচ্ছেন তিনি ৷ ভিডিয়োর ক্যাপশনে সচিন লিখেছেন, ‘‘গণেশ চতুর্থীর পুণ্য দিনে গণপতি এবং অন্যান্য দেবদেবীকে ফুল উৎসর্গ করছি ৷ আঈ-এর নির্দেশ অনুসরণ করে৷’’ ‘গণপতি বাপ্পা মোরয়া’ বলে সকলকে গণেশ চতুর্থীর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি ৷

    প্রতি বছরই গণপতি উৎসব পালনের ছবি বা ভিডিয়ো সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করেন সচিন ৷ এ বছর মায়ের নির্দেশ অনুসরণ করে বাড়ির দেববিগ্রহদের একে একে সাজিয়ে দেওয়া-এক অনন্য ঘরোয়া ও আন্তরিক মাত্রা যোগ করেছে তাঁর উদযাপনে ৷

    আরও পড়ুন : সচিন ও রবিনার প্রোফাইলে গভীর জঙ্গলে শের খানের রয়্যাল বেঙ্গল রহস্য

    ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পর জীবনের দ্বিতীয় ইনিংসেও মাস্টারব্লাস্টার সমান জনপ্রিয় ৷ তিনি সামজিক মাধ্যমে তাঁর প্রোফাইলে বিভিন্ন প্রসঙ্গে পোস্ট করেন, বার্তা দেন ৷

    অলিম্পিক ও প্যারালিম্পিকে পদকজয়ীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে অভিনন্দিত করেছেন তিনি ৷ ক্রিকেট-সহ ক্রীড়া জগতের বিভিন্ন অংশে যাঁরা সাফল্য পান, তাঁদের কৃতিত্বকে কুর্নিশ জানান তিনি ৷

    আরও পড়ুন : তিনি ‘সব্যসাচী’, বললেন সচিন তেন্ডুলকর

    এ ছাড়াও সচেতনতামূলক বিভিন্ন বার্তাও থাকে তাঁর তরফে ৷ কিছু দিন আগে ১৩ অগাস্ট বিশ্ব বাঁ হাতি দিবসে তিনি নিজেকে ‘অ্যাম্বিডেক্সট্রাস’ বা সব্যসাচী বলে গল্ফ খেলার ভিডিয়ো পোস্ট করেন ৷ বন্যপ্রাণ ও পশুপ্রাণী নিয়ে তাঁর চিন্তাভাবনাও নেটিজেনদের বাহবা কুড়িয়ে নেয় ৷ আন্তর্জাতিক ব্যাঘ্র দিবসে তিনি শেয়ার করেছিলেন তাঁর অরণ্যসাফারির ছবি ৷ বছর দুয়েক আগে তীব্র গরমে তাঁর বাড়িতে আশ্রয় নেওয়া আহত চিলের শুশ্রূষার ভিডিয়োও মন জয় করে নিয়েছিল নেটদুনিয়ার ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: