WTC Final: লোকে বলে 'অপয়া'! এই আম্পায়ারই ভারতকে ডোবাতে পারেন

ক্রিকেট হোক বা অন্যকিছু, কুসংস্কারের কোনও জায়গা নেই ঠিকই। কিন্তু মাঝেমধ্যে কাকতালীয় কিছু ঘটনা ঘটে। যার জেরে বুক দুরু দুরু করে ক্রিকেট সমর্থকদের।

ক্রিকেট হোক বা অন্যকিছু, কুসংস্কারের কোনও জায়গা নেই ঠিকই। কিন্তু মাঝেমধ্যে কাকতালীয় কিছু ঘটনা ঘটে। যার জেরে বুক দুরু দুরু করে ক্রিকেট সমর্থকদের।

  • Share this:

    #মুম্বই:

    সামনের মাসে ইংল্যান্ডে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল খেলবে ভারতীয় দল। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে লড়াই যে কঠিন হবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এত বড় একখানা মঞ্চে পৌঁছানোর জন্য ভারতীয় দলের ক্রিকেটাররা টানা দু'বছর কঠোর পরিশ্রম করেছেন। বিশ্বের ক্রিকেট খেলিয়ে তাবড় দেশগুলিকে হারানোর পর এমন একখানা মঞ্চ পেয়েছে বিরাট কোহলির টিম ইন্ডিয়া। তবে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে নিউজিল্যান্ড ছাড়া আরও এক প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ব-কলমে লড়তে হবে ভারতীয় দলকে। ক্রিকেট হোক বা অন্যকিছু, কুসংস্কারের কোনও জায়গা নেই ঠিকই। কিন্তু মাঝেমধ্যে কাকতালীয় কিছু ঘটনা ঘটে। যার জেরে বুক দুরু দুরু করে ক্রিকেট সমর্থকদের। আর এক্ষেত্রে একজন আম্পায়ার ভারতীয় দলের সমর্থকদের চিন্তা এখনই বাড়িয়ে দিয়েছেন।

    ভারতীয় দলের জন্য তিনি একেবারেই পয়া নন। আম্পায়ার রিচার্ড কেটেলবরো (Richard Kettleborough) ভারতীয় দলের জন্য এর আগেও অপয়া বলে প্রমাণিত হয়েছেন। বিশেষ করে আইসিসির নকআউট প্রতিযোগিতাগুলিতে তিনি আম্পায়ারিং করছেন মানেই ভারতীয় দলের দুর্ভাগ্য। গত কয়েক বছরে ভারতীয় দল যে ক'টি নকআউট প্রতিযোগিতা খেলেছে প্রত্যেকটিতেই এই আম্পায়ার আম্পায়ারিং করেছেন। আর তাঁর আম্পায়ারিংয়ে খেলা ম্যাচগুলি ভারতীয় দল লাগাতার হেরেছে। ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালেও আম্পায়ারিং করবেন রিচার্ড। ফলে এখন থেকেই ভারতীয় দলের সমর্থকদের চিন্তায় ঘুম উড়েছে।

    অদ্ভুতভাবে রিচার্ড আম্পায়ারিং করছেন মানেই ভারতীয় দল ম্যাচ হারবে। এটাই যেন প্রবাদ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। ২০১৪ টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপের ফাইনালে আম্পায়ারিং করেছিলেন তিনি। শ্রীলংকার বিরুদ্ধে ভারতীয় দল ম্যাচ হারে। ২০১৫ সালে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে হেরেছিল ভারতীয় দল। ওই ম্যাচেও আম্পায়ার ছিলেন রিচার্ড। ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপের সেমিফাইনালে ভারতীয় দল ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হারে। সেই ম্যাচেও হাজির ছিলেন তিনি। শুধু তাই নয়, ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দল হেরেছিল। আর ওই ম্যাচেও অম্পায়ারিং করেছিলেন রিচার্ড। এরপর ২০১৯ বিশ্ব কাপ সেমিফাইনালে ভারতীয় দল যখন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে হারে, তখনও মাঠে ছিলেন তিনি। বোঝাই যাচ্ছে, ভারতীয় সমর্থকদের ভয়টা অমূলক কিছু নয়।

    Published by:Suman Majumder
    First published: