Home /News /sports /
Tokyo Olympics: Sex। যৌনতা ছাড়া অলিম্পিক নাকি অসম্পূর্ণ, বলছেন প্রাক্তনরা

Tokyo Olympics: Sex। যৌনতা ছাড়া অলিম্পিক নাকি অসম্পূর্ণ, বলছেন প্রাক্তনরা

অলিম্পিকে যৌনতা আটকানো সম্ভব নয়,বলছেন প্রাক্তন অ্যাথলিটরা

অলিম্পিকে যৌনতা আটকানো সম্ভব নয়,বলছেন প্রাক্তন অ্যাথলিটরা

Sex is inevitable at the games village. গেমস ভিলেজে সেক্স বরাবর একটা ইস্যু। বহু মানুষ সেক্স করার জন্য মরিয়া হয়ে থাকে। একের পর এক পার্টিও হতে থাকে

  • Share this:

    #টোকিও: চলতি টোকিও অলিম্পিক শুরুর আগেই খবরের শিরোনামে এসেছিল কার্ডবোর্ডের তৈরি ‘অ্যান্টি-সেক্স’ খাট! অনেকের মতে, এবার অলিম্পিকে সঙ্গম থেকে প্রতিযোগীদের দূরে রাখার জন্যই নাকি আয়োজকদের ভাবনায় এসেছে এরকম খাটের কথা। তবে সেক্স থেকে অ্যাথলিটদের দূরে রাখার ভাবনা হেসে উড়িয়ে দিয়েছেন প্রাক্তন অলিম্পিয়ান সুজান তিয়েডকে।

    ১৯৯২ ও ২০০০ অলিম্পিকে অংশ নেওয়া জার্মানির মহিলা লং জাম্পার সুজান বলেন, ‘টোকিও অলিম্পিকে সেক্স নিষিদ্ধ শুনেই আমি ভয়ঙ্কর হেসেছিলাম। এসব কোনো কাজেই দেয় না। গেমস ভিলেজে সেক্স বরাবর একটা ইস্যু। বহু মানুষ সেক্স করার জন্য মরিয়া হয়ে থাকে। একের পর এক পার্টিও হতে থাকে। এর সঙ্গে অ্যালকোহলও চলে আসে। এমনকী অনেক সময় ঘুমানোও যায় না ঠিক ভাবে। অনেকে ভোরের দিকে সেক্স করে।’

    সুজান বলছেন, ‘সেক্স করলে শরীর রিচার্জ হয়ে যায় এনার্জি চলে আসে ভিতর থেকে। অলিম্পিকের রুমমেটরাও খুব সাহায্য করে। তারা ব্যাপারাটা বুঝে এবং সেক্স করার জন্য অন্য রুমমেটকে ঘর ছেড়ে দেয়।’ এরকমই অলিম্পিকে দেখা হওয়া এক অ্যাথলিট এখন তার স্বামী। স্পষ্ট জানিয়েছেন এতে অন্যায়ের কিছু নেই। জোর করে কেউ কিছু করে না। যা হয় সম্মতি মেনে হয়। আসলে অলিম্পিকের সময় নাকি শারীরিক দিক দিয়ে শক্তির শেষ সীমায় থাকেন অ্যাথলিটরা। এনার্জি রিলিজ করার কারণে সেক্স জরুরি হয়ে পড়ে মনে করেন সুজান।

    আমেরিকার দু’বারের স্বর্ণপদকজয়ী গোলকিপার হোপ সোলো ২০১২ সালে ইএসপিএন-এ দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অলিম্পিকে সেক্সের অভিজ্ঞতা শুনিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘অলিম্পিকে প্রচুর সেক্স হয়। আমি লোককে প্রকাশ্যে সেক্স করতে দেখেছি। কেউ ঘাসের ওপর শুয়ে তো কেউ দু'টো বিল্ডিংয়ের ফাঁকে ঢুকে সেক্স করে।’

    গতবছর রিওতে রেকর্ড ৪ লক্ষ ৫০ হাজার কনডম দেওয়া হয়েছিল তবে, টোকিও অলিম্পিকে দেড় লক্ষ কনডম দিয়েছেন আয়োজকরা। এই কয়েক বছরের কনডম বিতরণের পরিসংখ্যানই বলে দেয় যে, অলিম্পিকের সঙ্গে সেক্স জুড়েই রয়েছে। দুজনেই মনে করেন এবার যে টোকিওতে যৌনতা বিরোধী প্রচার করা হচ্ছে সেটা মূলত ভাইরাস যাতে না ছড়িয়ে পড়ে সেটা মাথায় রেখে। কিন্তু তার মধ্যেও সঙ্গম জারি থাকবে মনে করেন সুজান এবং সোলো।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    Tags: Condom, Sex, Tokyo Olympics 2020

    পরবর্তী খবর