• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • OTHER SPORTS TOKYO OLYMPICS PV SINDHU HAS TO OVERCOME TRICKYTAI TZU YING IN SEMIFINAL RRC

Tokyo Olympics: PV Sindhu vs Tai Tzu। সেমিফাইনালে আন্ডারডগ হয়ে নামবেন সিন্ধু

সিন্ধুর পদক নিশ্চিত করার রাস্তায় দাঁড়িয়ে তাই জু- ইং

টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার কয়েকদিন আগেই পি ভি সিন্ধুর কোরিয়ান কোচ পার্ক তায় সাং জানিয়ে দিয়েছিলেন তার ছাত্রীকে যাঁরা হারানোর ক্ষমতা রাখে তাঁদের মধ্যে সবচেয়ে এগিয়ে চিনা তাইপের তাই জু-ইং

  • Share this:

    #টোকিও: টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার কয়েকদিন আগেই পি ভি সিন্ধুর কোরিয়ান কোচ পার্ক তায় সাং জানিয়ে দিয়েছিলেন তার ছাত্রীকে যাঁরা হারানোর ক্ষমতা রাখে তাঁদের মধ্যে সবচেয়ে এগিয়ে চিনা তাইপের তাই জু-ইং। প্রথমে ইজরাইল, দ্বিতীয় ম্যাচে হংকং, তৃতীয় ম্যাচে জাপানের ইয়ামাগুচিকে হারিয়ে শেষ চারে সিন্ধু। এবার সামনে মহিলা ব্যাডমিন্টনের শীর্ষ স্থানাধিকারী তাই জু - ইং। এই ম্যাচে ভারতীয় তারকা নিঃসন্দেহে আন্ডারডগ হয়ে নামবেন সন্দেহ নেই।

    টেকনিক এবং বাকি সবদিক থেকেই এগিয়ে তাইপের তারকা। ধারাবাহিকতায় সিন্ধুর থেকে এগিয়ে। জেতার ব্যাপারে ফেভারিট। সিন্ধুসভ্যতায় বার বার আঘাত করেছেন তিনি। তবে চিন্তা একটাই। সিন্ধুর উচ্চতা। এক সাক্ষাৎকারে তাই জু-ইং বলেছিলেন, “সিন্ধু খুব লম্বা। কোর্টের মধ্যে ওর গতিও বেশ চিন্তার। ওকে হারানো কঠিন। একটা ভুল করলেই ও ম্যাচ নিয়ে চলে যেতে পারে।”

    তবে সিন্ধুর বিরুদ্ধে নিজের স্বাভাবিক খেলাটাই খেলতে চান চাইনিজ তাইপেই তারকা। শেষবার সিন্ধুর মুখোমুখি হয়েছিলেন ২০২০ সালে ব্যাডমিন্টনের ওয়ার্ল্ড ট্যুরে। সেখানেও জিতেছিলেন তিনি। ফল ১৯-২১, ২১-১২, ২১-১৭। এবারেও চাইবেন জিততে। জিতলেই পদক নিশ্চিত। স্বপ্ন সত্যি হবে তাই জু-ইংয়ের। বিশ্বের এক নম্বর হলেও অলিম্পিক্সের পদক এখনও অধরাই তাই জু-ইংয়ের।

    তিনি বলেন, “অলিম্পিক্সে পদক জয়ই আমার স্বপ্ন।” সেই স্বপ্ন চোখে নিয়েই জীবনের তৃতীয় অলিম্পিক্সে নেমে পড়েছেন তিনি। ২০১২ লন্ডন অলিম্পিক্সে বিদায় নিতে হয় প্রি কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে। পরের বার কোয়ার্টার ফাইনালেই শেষ হয়ে যায় তাঁর স্বপ্ন। টোকিয়ো অলিম্পিক্সের সেমিফাইনালে তাই জু-ইং। সামনে সিন্ধু। ২০১৪ সালে মাত্র ২০ বছর বয়সে এশিয়ান গেমসে ব্রোঞ্জ জেতেন। এশিয়ান গেমসে ব্যাডমিন্টনে কোনও চাইনিজ তাইপেইয়ের খেলোয়াড়ের সেটাই ছিল প্রথম পদক।

    চার বছর পর সেই প্রতিযোগিতায় সোনা জেতেন তিনি। এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপেও দুটো সোনা (২০১৭, ২০১৮) এবং একটি ব্রোঞ্জ (২০১৫) রয়েছে তাই জু-ইংয়ের। মুখোমুখি সাক্ষাতে সিন্ধুর থেকে ১৩-৫ এগিয়ে তিনি। এই মেয়েটির প্লাস পয়েন্ট দুরন্ত নেট প্লে এবং অদ্ভুত কোন তৈরি করে নেওয়া।

    তবে সিন্ধুর ডিফেন্স আগের থেকে জোরালো। উচ্চতা কাজে লাগিয়ে ক্রস কোর্ট স্ম্যাশ বেশি করতে পারলে একটা সম্ভাবনা থাকতে পারে ভারতীয় তারকার। না হলে সোজা কথায় এই ম্যাচে তাই জু ইং পরিষ্কার ফেভারিট। কিন্তু একটা জায়গায় পিছিয়ে থাকবেন সিন্ধুর থেকে। রিওতে হেরেছিলেন সিন্ধুর কাছে। সিন্ধুর অলিম্পিক পদক আছে। তাই জু - র নেই। এটা একটা ফ্যাক্টর হবেই।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: