• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • OTHER SPORTS TOKYO OLYMPICS 2020 PV SINDHU WINS AGAINST NY CHEUNG OF HONG KONG AND ADVANCES IN ROUND OF 16 DD

Tokyo Olympics 2020: ফের জয়, টোকিও অলিম্পিক্সে শেষ ১৬-র টিকিট PV Sindhu-র

Tokyo Olympics 2020: PV Sindhu wins against NY Cheung of Hong Kong and advances in round of 16

টোকিও অলিম্পিক্সে (Tokyo Olympics 2020) জয়ের ধারা বজায় রাখলেন অলিম্পিক্সে রুপোজয়ী পিভি সিন্ধু (PV Sindhu) ৷

  • Share this:

    #টোকিও: জয়ের ধারা অব্যহত পিভি সিন্ধুর৷ টোকিও অলিম্পিক্সের গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচের পর দ্বিতীয় ম্যাচেও স্ট্রেট গেমে জিতলেন তিনি৷ হংকংয়ের এনওয়াই চেয়ুঙ্গকে হারালেন ২১-৯, ২১-১৬ তে৷ প্রথম গেমে হংকংয়ের প্রতিপক্ষ একেবারে দাঁড়াতেই পারেননি৷ দ্বিতীয় গেমে সিন্ধুর বিরুদ্ধে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তুললেও নিজের সেরাটা দিয়ে ফের একবার গেম বার করে নেন ভারতের তারকা শাটলার৷

    এদিনের জয়ের ফলে নিজের গ্রুপ থেকে সেরা হয়ে শেষ ১৬-র টিকিট পেলেন তিনি৷ তাঁর প্রতিপক্ষ হবেন জাপানের আকানে ইয়ামাগুচি৷

    এদিকে এর আগে করোনাকালে বেশ কিছুদিন খেলার থেকে দূরে ছিলেন, কিছু সমস্যাও তৈরি হয়েছিল৷ কিন্তু কোথাও কী টোকিও অলিম্পিক্সের (Tokyo Olympics 2020)  প্রথম রাউন্ডে ইজরায়েলের পলিকারপভা সেনীয়াকের বিরুদ্ধে ছন্দে ভারতের তারকা শাটলার পিভি সিন্ধু (PV Sindhu)৷

    ১২ মিনিটে প্রথম গেম ২১-৭ জিতে নেন সিন্ধু, ৫-৫ থেকে গেম নিজের দখলে নিতে এক মুহূর্ত সময় নষ্ট করেননি সিন্ধু৷ দ্বিতীয় গেম জেতেন ২১-১০৷ মাত্র ২১ মিনিটে জিতে নেন ৷

    ইজরায়েলের পলিকারপভা সেনীয়া তালিকায় সিন্ধুর থেকে অনেকটা পিছিয়ে। কিন্তু প্রতিপক্ষকে হালকা করে দেখছিলেন না ভারতের ব্যাডমিন্টন সেন্সেশন। ইজরায়েলের এই প্রতিপক্ষ প্রথম ইজরায়েলি মেয়ে যিনি অলিম্পিক্সে দেশের হয়ে ব্যাডমিন্টন খেলছেন৷ তবে প্রথমে একটু ঝাঁঝ দেখালেও সিন্ধু খাপ খুলতেই আবেগের ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আনফোর্ডস এরর শুরু করেন৷

    লড়াইয়ে নামার আগে সিন্ধু মোটিভেশন খুঁজেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর থেকে। টোকিয়ো রওনা হওয়ার আগে অলিম্পিক্সের ওয়েবসাইটে সিন্ধু বলেছিলেন, ‘‘রোনাল্ডো যে ভাবে খেলেন, তা নিয়ে মুগ্ধতা প্রকাশ করার ভাষা নেই। ওঁর দক্ষতা, টেকনিক দুর্ধর্ষ।’’

    তবে ব্যাডমিন্টন এর বিশ্বের সেরা স্পেনের ক্যারোলিনা মারিন এবার নেই। কিন্তু চাইনিজ তাইপেই, চিনের একাধিক প্লেয়ার কঠিন চ্যালেঞ্জ দিতে পারেন৷ প্রতিপক্ষরা কে কিরকম ফর্মে রয়েছেন তা জানা নেই কারণ করোনার জন্য অলিম্পিক্সের আগে কোনও বড় টুর্নামেন্ট খেলা যায়নি৷ পদকের রুপোলি রঙটা এবার জাপানে সোনালি করতেই হবে তাঁকে। ব্রাজিলে যেখানে থামতে হয়েছিল, জাপানে আরও ওপরে ওঠাই একমাত্র লক্ষ্য। কিন্তু ধাপে ধাপে ভাবতে চান। একটা করে ম্যাচ ধরে এগোতে চান। এটাই তো উন্নতির লক্ষণ।

    বিগত কয়েক মাস নতুন কোচের কাছে শিখেছেন প্রতিপক্ষের মানসিকতা বুঝতে গেলে কী করতে হবে। ম্যাচ চলাকালীন নিজের কাউন্টার প্ল্যান তৈরি করতে হবে। সবমিলিয়ে শুধু প্রতিভা নয়, ট্যাকটিক্যাল দিক থেকেও এবার অনেক পরিণত সিন্ধুকে দেখা যাওয়ার আশা।

    Published by:Debalina Datta
    First published: