খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

চোখ বাঁধা, রোলার স্কেটসে সব চেয়ে কম সময়ে ৪০০ মিটারের লক্ষ্যপূরণ ভারতীয় কিশোরীর, উঠল গিনেস বুকে নাম!

চোখ বাঁধা, রোলার স্কেটসে সব চেয়ে কম সময়ে ৪০০ মিটারের লক্ষ্যপূরণ ভারতীয় কিশোরীর, উঠল গিনেস বুকে নাম!

Guinness World Record-এ নাম তুলল কর্ণাটকের কিশোরী। কর্ণাটকের হুব্বালির মেয়ে ওজল সুনীল নালাবরি জিতল ফাস্টেস্ট ফিমেল স্কেটারের খেতাব

  • Share this:

#কর্ণাটক: Guinness World Record-এ নাম তুলল কর্ণাটকের কিশোরী। কর্ণাটকের হুব্বালির মেয়ে ওজল সুনীল নালাবরি জিতল ফাস্টেস্ট ফিমেল স্কেটারের খেতাব। সবাইকে রীতিমতো চমকে দিয়ে চোখ বাঁধা অবস্থায় রোলার স্কেটসে ৪০০ মিটারের লক্ষ্য পূরণ করল সে। সময় লেগেছে মাত্র ৫১.২৫ সেকেন্ড।

Guinness World Record কর্তৃপক্ষের তরফে ওজলকে ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে লক্ষ্যপূরণের টার্গেট দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু হুব্বালির এই কিশোরী তা ৫১.২৫ সেকেন্ডের মধ্যেই করে দেখায়। তৃতীয় অর্থাৎ শেষবারের চেষ্টায় নিজের নামের পাশে এই রেকর্ড লিখে দেয় সে। বিস্ময়কর ব্যাপারটি হল, রোলার স্কেটসের সময় চোখ বাঁধা ছিল ওজলের। বৃহস্পতিবার ভারতের এই প্রতিভার ভিডিও নিজেদের অফিসিয়াল Instagram অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছে Guinness World Records। ক্যাপশনে লেখা, রোলার স্কেটসে চোখ বাঁধা অবস্থায় মাত্র ৫১.২৫ সেকেন্ডে ৪০০ মিটারের লক্ষ্য পূরণ করল ভারতের ওজল সুনীল নালাবরি।

দেখুন সেই ভিডিও--

View this post on Instagram

Fastest 400 m on roller skates blindfolded (female) 51.25 sec by Ojal Sunil Nalavadi 🇮🇳 #gwrday #rollerskating

A post shared by Guinness World Records (@guinnessworldrecords) on

ইতিমধ্যেই Instagram-এ ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি। ভিউজের সংখ্যা ২৮,০০০। ১৪ বছরের কিশোরীর প্রতিভায় মজেছেন নেটিজেনরাও। ভারতের এই নতুন রেকর্ড হোল্ডারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সকলে। কেউ লিখছেন ভারতের গর্ব ওজল। কেউ বা #Proudindian #gwrday #rollerskating হ্যাশট্যাগ দিয়ে এই ভিডিও শেয়ার করে চলেছেন।

তবে শুধুই Guinness World Record নয়, এশিয়া বুক অফ রেকর্ডস ও ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসেও নাম লিখিয়েছে ওজল সুনীল নালাবরি। এর আগে এ বছর ফেব্রুয়ারিতেই দিল্লির এক বাসিন্দা জোরাবর সিং Guinness World Record-এ নিজের নাম তোলেন। রোলার স্কেটসে মাত্র ৩০ সেকেন্ডে ১৪৭ স্কিপে লক্ষ্যপূরণ করেন তিনি। Guinness World Record কর্তৃপক্ষের তরফে জানা গিয়েছে, ডিসকাস থ্রো খেলার প্রশিক্ষণের সময় স্লিপ ডিস্কের জেরে মাঠের বাইরে বসতে হয় জোরাবরকে। পরের দিকে নিজের ফিটনেস ঠিক রাখতে স্কিপিং শুরু করেন তিনি। সেখান থেকেই কম্পিটিটিভ জাম্প রোপ ইভেন্টে অংশগ্রহণের ইচ্ছা জন্মায়। এর পর জোরাবর ওয়ার্ল্ড জাম্প রোপ চ্যাম্পিয়নশিপেও অংশগ্রহণ করেন। সেই সূত্রেই এ বছর ফেব্রুয়ারিতে নতুন রেকর্ড গড়ে ফেলেন এই তরুণ।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: October 31, 2020, 7:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर