• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • Rahul Dravid on India vs New Zealand : হোয়াইটওয়াশ স্বস্তিদায়ক! কিন্তু উত্তেজিত হওয়ার কিছু নেই, বললেন দ্রাবিড়

Rahul Dravid on India vs New Zealand : হোয়াইটওয়াশ স্বস্তিদায়ক! কিন্তু উত্তেজিত হওয়ার কিছু নেই, বললেন দ্রাবিড়

তরুণ প্রতিভাদের দায়িত্ব নেওয়া খুশি করেছে রাহুল দ্রাবিড়কে

তরুণ প্রতিভাদের দায়িত্ব নেওয়া খুশি করেছে রাহুল দ্রাবিড়কে

We have our feet on ground says Rahul Dravid. ম্যাচ শেষে রাহুল দ্রাবিড় জানালেন হোয়াইটওয়াশ ভেবে দেখার ক্ষেত্রে স্বস্তিদায়ক। দলের আত্মবিশ্বাস বাড়বে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের পক্ষে কাজটা কঠিন ছিল।

  • Share this:

    #কলকাতা: জয়পুরের পর মহেন্দ্র সিং ধোনির শহর রাঁচিতেই সিরিজের ফয়সালা হয়ে গিয়েছিল। রবিবার ক্রিকেটের নন্দনকানন ইডেন গার্ডেন্সে তিন নম্বর ম্যাচটা ভারতের কাছে কার্যত নিয়ম-রক্ষার ছিল। দুটি পরিবর্তন হয়েছিল দলে। ঈশান কিশান এবং চাহাল। তাতেও দিনের শেষে দাপটের সঙ্গে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে ভারত। টি টোয়েন্টিতে ৭৩ রানে জয় প্রমাণ করে বিপক্ষ দলকে দাঁড়াতেই দেয়নি টিম ইন্ডিয়া। টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের রানার্সআপ দল বলে কথা! সেই নিউজিল্যান্ডকে টি টোয়েন্টিতে ৩-০ মাত দেওয়া সহজ কাজ নয়।

    আরও পড়ুন - Rohit Sharma At Eden: রোহিত-ইডেনের 'প্রেম কাহিনী' চলছেই, এবার ভেঙে দিলেন বিরাট কোহলির রেকর্ড

    ম্যাচ শেষে রাহুল দ্রাবিড় জানালেন হোয়াইটওয়াশ ভেবে দেখার ক্ষেত্রে স্বস্তিদায়ক। দলের আত্মবিশ্বাস বাড়বে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের পক্ষে কাজটা কঠিন ছিল। বিশ্বকাপ খেলা দলটা ভারতে এসেই ছয়দিনের বিরতিতে তিনটি ম্যাচ খেলে ফেলল। এটা ওদের পক্ষে সহজ নয়। কিন্তু এটাই আমাদের জয়ের কারণ বলব না। দেখে ভাল লাগছে যে কজন তরুণ ক্রিকেটারকে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে, প্রত্যেকে সদ্ব্যবহার করার চেষ্টা করেছে। ঈশান ওপেন করে রান করার চেষ্টা করেছে। ভেঙ্কটেশ অলরাউন্ডার হিসেবে অবদান রাখছে।

    অক্ষর দুরন্ত বল করেছে। চাহাল এবং হর্ষল প্যাটেল লড়াই করেছে। একটা টিম পারফরম্যান্স দেখা যাচ্ছে। একজন কোচ হিসেবে এটাই আমার কাছে স্বস্তিদায়ক বলছেন দ্রাবিড়। তবে সামনে লম্বা রাস্তা পড়ে রয়েছে। আরো কয়েকজন ক্রিকেটারকে সুযোগ দেবে টিম ম্যানেজমেন্ট। ঋতুরাজ, আবেশ খানদের মত প্রতিভাবান তরুণ অপেক্ষা করছে রিজার্ভ বেঞ্চে। রাহুল দ্রাবিড় মনে করেন দলের গ্রাফ শুধু ওপরেই উঠবে না। নিচেও নামবে। এই দল হারের সম্মুখীন হবে। কিন্তু কত তাড়াতাড়ি কামব্যাক করতে পারে সেটাই ঠিক করে দেবে দলে কাদের জায়গা পাকা হবে।

    এই দলটা থেকে মাত্র কয়েকজন কানপুরে যাবে টেস্ট খেলতে। তাই সকালে ওঠার জন্য প্রয়োজনীয় বিশ্রাম দরকার। হেড কোচ তাদের অনুরোধ করবেন তাড়াতাড়ি শুয়ে পড়তে। বাকিরা রাতে মজা করতেই পারে। অর্থাৎ পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে হেড কোচ হিসেবে নরমে-গরমে ছেলেদের এক ছাতার তলায় আনতে চাইছেন রাহুল দ্রাবিড়। তার কাজ করার স্টাইল বাকিদের থেকে ভিন্ন।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: