ইংল্যান্ডের মাটিতে ইশান্ত, শামিদের আটকানো মুশকিল, বলছেন বালাজি

ইংল্যান্ডের মাটিতে ইশান্ত, শামিদের দাপট দেখতে পাচ্ছেন বালাজি

বালাজি আরও বলেন, বুমরাহ, শামি ও ইশান্ত তিনজনই আলাদা রকমের বোলার। ইশান্ত যদি একদিকে রান আটকে রাখতে পারেন ডিফেন্সিভ বোলিং করে, তাহলে বাকি দুজনের উইকেট পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে

  • Share this:

    #চেন্নাই: বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ এবং ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে কেমন হবে ভারতীয় দলের ফাস্ট বোলিং কম্বিনেশন ? প্রশ্নটা উঠতে  শুরু করে দিয়েছে বেশ কয়েকদিন। লক্ষ্মীপতি বালাজি নিজে মনে করেন এবার বিদেশের মাটিতে ভারতীয় ফাস্ট বোলারদের দাপট চোখে পড়ার মতো হবে। বালাজির মতে, কাউন্টিতে খেলার পাশাপাশি তিন-তিনবার ইংল্যান্ডে টেস্ট খেলতে যাওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে ইশান্তের। সে কারণেই নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে ইশান্ত, বুমরাহ ও শামিকেই দেখতে চান তিনি।

    তবে প্রথম একাদশে সুযোগ পাওয়ার যে প্রতিযোগিতা দলের মধ্যে রয়েছে তা খুবই ভাল লক্ষণ। সাসেক্সের হয়ে ২০১৮ সালে ইশান্ত কাউন্টিতে খেলেছেন। টেস্ট খেলতে গিয়ে ভাল কিছু স্পেলও আমরা ইশান্তের থেকে দেখেছি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। সেখানকার পরিবেশ ও পিচ সম্পর্কে সবচেয়ে বেশি ওয়াকিবহাল থাকায় আমার মতে পেস অ্যাটাকের নেতা ইশান্ত ছাড়া আর কেউ নন। বালাজি আরও বলেন, বুমরাহ, শামি ও ইশান্ত তিনজনই আলাদা রকমের বোলার। ইশান্ত যদি একদিকে রান আটকে রাখতে পারেন ডিফেন্সিভ বোলিং করে, তাহলে বাকি দুজনের উইকেট পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে।

    একইসঙ্গে বাঁহাতিদেরও সমস্যায় ফেলার দক্ষতা রয়েছে ইশান্তের। ব্রেক থ্রু দিতে ইশান্তই যে বিরাটের বড় বাজি হতে চলেছেন তেমনটাই মত বালাজির। জসপ্রীত বুমরাহর প্রশংসা করে বালাজি বলেন, বুমরাহ একজন ম্যাচ উইনার। তাঁর বিকল্প পাওয়া সহজ নয়। তবে বিপক্ষে বেশি বাঁহাতি থাকলে মহম্মদ সিরাজও খুব কার্যকরী হতে পারেন। তাঁর ডেলিভারির ধরণ ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলার পক্ষে যথেষ্ট। লেগ বিফোর ও কট বিহাইন্ডের বেশি সম্ভাবনা থাকে। ফলে তিনিও প্রয়োজনে বুমরাহ-র বিকল্প হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন। তবে সিরাজ যে পুরো বুমরাহ-র মতোই বোলিং করেন সেটা কিন্তু নয়।

    সবমিলিয়ে বালাজি মনে করেন ইংল্যান্ডের উইকেটে ভারতীয় ফাস্ট বোলারদের খেলায় মোটেও সহজ হবে না নিউজিল্যান্ড অথবা ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যানদের পক্ষে। ভারতীয় জোরে বোলিং বিভাগ এই মুহূর্তে পৃথিবীর অন্যতম সেরা। যেমন রয়েছে গতি, তেমনই রয়েছে কার্যকারিতা। সব মিলিয়ে যতদিন গিয়েছে, তত উন্নতি করেছে ভারতীয় ফাস্ট বোলাররা। বালাজি মনে করেন অতীতে ভারতীয় দলের হাতে বরাবর ভাল ব্যাটসম্যান থাকলেও, সীমিত সংখ্যক ফাস্ট বোলার ছিল। সেই সংখ্যা এখন অনেক বেড়ে গিয়েছে। তাই দেশের পাশাপাশি বিদেশের মাটিতেও উড়ছে ভারতীয় পতাকা।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: