corona virus btn
corona virus btn
Loading

কলকাতার ময়দান হারাল রনি দা-কে, প্রিয় চিত্রসাংবাদিকের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ সংবাদমহল

কলকাতার ময়দান হারাল রনি দা-কে, প্রিয় চিত্রসাংবাদিকের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ সংবাদমহল
Ronny Roy

সর্বদা হাসি মুখে সকলকে আপন করে নেওয়া মানুষটি ময়দানের ছোট-বড় সকলেরই ছিলেন খুব কাছের।

  • Share this:

#কলকাতা: কলকাতার ময়দানকে কাঁদিয়ে বিদায় নিলেন বিশিষ্ট চিত্র সাংবাদিক রণজয় রায় ৷ তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর ৷ ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চিত্র সাংবাদিকের পেশায় দাপটের সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি ৷ ময়দানের সবার প্রিয় ‘রনি দা’ আজ আর নেই ৷ কলকাতার চিত্র-সাংবাদিকরাও আজ তাদের অভিভাবককে হারালেন ৷ শুধু সাংবাদিক মহলেই নয়, রনি দা-র অকাল প্রয়াণে শোকস্তব্ধ গোটা ক্রীড়াজগতই ৷

দীর্ঘ ২৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে ‘আজকাল’ পত্রিকার ক্রীড়াবিভাগের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন রনি রায় ৷ ময়দানে প্রথমবার পা রাখা কোনও সাংবাদিক থেকে শুরু করে সবচেয়ে সিনিয়র সাংবাদিক, রনি দা-র সান্নিধ্যে আসেননি এমন কেউ নেই ৷ মুখে সবসময় হাসি নিয়ে ক্যামেরা হাতে কাজ করে গিয়েছেন ৷ প্রতিদিন নিয়ম করে ময়দানে খবর সংগ্রহে রনি দা-র জুড়ি মেলা ভার ৷ শুধু নিজের জন্যই নয়, বাকিদের প্রত্যেককে সাহায্য করতে সবসময়েই এগিয়ে এসেছেন তিনি ৷ তিনি থাকতে ময়দানের কোনও খবর বা ছবি ‘মিস’ হওয়া খুবই কঠিন ৷ এমন দাপুটে চিত্র-সাংবাদিক যে এই লকডাউনে এমন নিঃশব্দেই চলে যাবেন ৷ তা কেউ দুঃস্বপ্নেও হয়তো ভাবেননি ৷

তাঁর মৃত্যুতে শোকবার্তা জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ৷ তিনি জানান, ‘‘বিশিষ্ট চিত্র সাংবাদিক রণজয় রায় (রনি)-এর মৃত্যুতে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। আজ কলকাতায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে। বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর। তিনি 'আজকাল' পত্রিকার ক্রীড়া বিভাগের সঙ্গে প্রায় ২৫ বছর যুক্ত ছিলেন। তার আগে কাজ করেছেন  'ভারতকথা' পত্রিকায়। তাঁর মৃত্যুতে চিত্র সাংবাদিকতার জগতে বিশেষ শূন্যতার সৃষ্টি হল। আমি রণজয় রায়ের পরিবার- পরিজন ও অনুরাগীদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি।’’

বেশ কিছু দিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন রনি দা। সঙ্গে ছিল হাই ব্লাড সুগার। শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটায় তাঁকে শুক্রবার দুপুরে নিয়ে যাওয়া হয় এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে। কিন্তু সে ভাবে চিকিৎসা আর কোথায় পেলেন বর্ষীয়ান এই সাংবাদিক। লকডাউনের মধ্যে অ্যাম্বুল্যান্স পেতেও দেরি হয় এদিন ৷ সর্বদা হাসি মুখে সকলকে আপন করে নেওয়া মানুষটি ময়দানের ছোট-বড় সকলেরই ছিলেন খুব কাছের। তাঁর মৃত্যুতে সবার মুখে এখন একটাই কথা, ‘এভাবে চলে গেলে রনি দা! ঠিক করলে না। আমরা কাঁদব না। শুধু চুপ হয়ে গেলাম।’’

First published: April 24, 2020, 9:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर