• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • Shahid Afridi on Asif Ali : আসিফ আলির বিধ্বংসী ব্যাটিং দেখে ভাষা হারিয়েছেন শাহিদ আফ্রিদি

Shahid Afridi on Asif Ali : আসিফ আলির বিধ্বংসী ব্যাটিং দেখে ভাষা হারিয়েছেন শাহিদ আফ্রিদি

আসিফ আলির মুক্তকণ্ঠ প্রশংসা করলেন আফ্রিদি

আসিফ আলির মুক্তকণ্ঠ প্রশংসা করলেন আফ্রিদি

Shahid Afridi awestruck after witnessing Asif Ali batting against Afghanistan. শাহিদ আফ্রিদি স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন আসিফ আলিকে দেখে তার মনে হয়েছে নির্ভয় খেলা চালিয়ে যেতে পারেন। নিজের থেকেও এগিয়ে রাখছেন আসিফকে

  • Share this:

    #দুবাই: আফগানিস্তান বনাম পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচ দেখতে গ্যালারিতে উপস্থিত ছিলেন শাহিদ আফ্রিদি। শুক্রবার দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে আফগানিস্তানের দেওয়া লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাকিস্তান মাঝের একটা সময় একটু চাপে পড়ে গিয়েছিল রশিদ খান, নবিদের বোলিংয়ের সামনে। কিন্তু করিম জানাতের একটি ওভারে চারটি ওভার বাউন্ডারি মেরে এক ওভার বাকি থাকতেই পাকিস্তানকে জয় এনে দেন আসিফ আলি।

    আরও পড়ুন -England beat Australia : বাটলারের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়াকে লজ্জার হার উপহার ইংল্যান্ডের

    ম্যাচ শেষে মাঠ থেকে বেরোনোর সময় মিডিয়া শাহিদ আফ্রিদিকে ঘিরে ধরলে তিনি জানিয়েছেন আসিফ আলি এই বিশ্বকাপে পাকিস্তানের লুকোনো তাস। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধেও তিনি এভাবেই দলকে জিতিয়েছিলেন বিধ্বংসী ইনিংস খেলে। শাহিদ আফ্রিদি স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন আসিফ আলিকে দেখে তার মনে হয়েছে নির্ভয় খেলা চালিয়ে যেতে পারেন। নিজের থেকেও এগিয়ে রাখছেন আসিফকে। আফ্রিদি মনে করেন পাকিস্তান তিনটে ম্যাচ থেকে শুরু করে পরপর তিনটে জয় পেয়েছে বলেই শুধু নয়, একটা ইউনিট হিসেবে খেলতে পারছে। একটা কিছু প্রমাণ করার জেদ দেখা যাচ্ছে।

    পাকিস্তানের ফিল্ডিং যেভাবে উন্নত হয়েছে তাতে অবাক ' লালা' । তবে পাক সমর্থকদের উদ্দেশ্যে তার বার্তা, এখনই সেলিব্রেট করার মানে নেই। কঠিন লড়াই পড়ে আছে। ভারতের বিরুদ্ধে যদি আবার খেলা পড়ে, তাহলে কিন্তু সেই ম্যাচ প্রথম ম্যাচের মত একপেশে হবে না। তবে পাকিস্তান এই ফর্ম বজায় রাখতে পারলে দ্বিতীয়বারের জন্য টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হলে তিনি অবাক হবেন না।

    ২০১৯ বিশ্বকাপের দলে সুযোগ পাওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগেই দুঃসংবাদটা পেয়েছিলেন তিনি। ইংল্যান্ডের সঙ্গে লিডসে ওয়ান ডে খেলে উঠে আসিফ আলি জানতে পারেন, তাঁর ১৯ মাসের মেয়ে আর নেই। বাবা যখন ইংল্যান্ডের বোলারদের বিরুদ্ধে লড়াই চালাচ্ছিলেন, তখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাসপাতালে ক্যানসারের সঙ্গে লড়াইয়ে হেরে যায় ছোট্ট নুর ফতিমা। এবারের বিশ্বকাপে হয়তো পাকিস্তানকে চ্যাম্পিয়ন করতে পারলে নিজের মেয়েকেই উৎসর্গ করবেন আসিফ।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: