• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • FOOTBALL SALTLAKE STADIUM READY FOR THE BIGGEST FOOTBALL TOURNAMENT

কান থেকে মেসি ম্যাচ, সবকিছুর সাক্ষী যুবভারতীর এবার অভিষেক বিশ্বকাপে

Saltlake Stadium

প্রতীক্ষার অবসান। আগামীকাল, রবিবার বল গড়াচ্ছে নতুন যুবভারতীতে।

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রতীক্ষার অবসান। আগামীকাল, রবিবার বল গড়াচ্ছে নতুন যুবভারতীতে। বিকেল পাঁচটায় আরও একটা মাইলস্টোনের সাক্ষী থাকছে কলকাতা। বিশ্বকাপে অভিষেক হচ্ছে এই স্টেডিয়ামের।

    গত আড়াই বছর ধরে নাগাড়ে চলেছে সংস্কারের কাজ। প্রাণপাত করেছেন প্রায় দশ হাজারের বেশি শ্রমিক। তাঁদের হাতেই তৈরি হয়েছে নতুন বিবেকানন্দ যুবভারতী স্টেডিয়াম। গ্যালারি থেকে মাঠ, ড্রেসিং রুম থেকে লবি বদলে গিয়েছে সবকিছু। ফিফার খাতায় সেরা কলকাতার এই ঐতিহ্য। আগামী ২৮ অক্টোবর এই মাঠেই ফাইনাল হবে। তার আগে একবার ফিরে দেখা যাক যুবভারতীকে।

    ২৫ জানুয়ারি, ১৯৮৪ সালে স্টেডিয়ামের উদ্বোধন করে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধি। ভারত-পোল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে শুরু হয় নেহরু কাপ। এরপর ১৯৯৫ সালেও হয় নেহরু কাপের খেলা। ১৯৮৬ থেকে ৯৪ পর্যন্ত এই মাঠ সাক্ষী বকুম থেকে পিএসভি’র সুপার সকারে। ১৯৯৭ সালের ১৩ জুলাই মাঠে হাজির ছিলেন এক লাখ ৩১ হাজার দর্শক। ফেডারেশন কাপ সেমিফাইনালে মুখোমুখি মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গল। পিকে-অমলের ডুয়েল আজ ইতিহাস। এই মাঠ থেকেই ক্লাবের জার্সিতে ফুটবলকে বিদায় জানিয়েছিলেন অলিভার কান। প্রতিপক্ষ মোহনবাগান।

    ২ সেপ্টেম্বর ২০১১, আর্জেন্টিনার অধিনায়ক হিসেবে এই মাঠেই অভিষেক লিও মেসির। না খেললেও ২০০৮ সালে মাঠে হাজির ছিলেন দিয়েগো মারাদোনা। সংস্কারের পর মোট দর্শকাসন ৮৮ হাজার। বিশ্বকাপ দেখতে পারবেন ৬৬ হাজার ৭০০ জন। প্রথম ম্যাচের জন্য ৬৬ হাজার টিকিট বিক্রি হয়েছে। প্রশাসনের দাবি, দুর্ঘটনা এড়াতে দশ মিনিটে খালি করা হবে স্টেডিয়াম।

    সবমিলিয়ে এখন সুপার কাউন্টডাউন চলছে। সবাই তাকিয়ে রবিবার বিকেল পাঁচটার দিকে। যুবভারতীও তৈরি বিশ্বকাপের অভিষেক ম্যাচে আরও রঙিন হওয়ার জন্য।

    First published: