Home /News /sports /
লড়াকু জার্মানির লড়াই রঙ আনল, রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে জয় পেয়ে টিকে রইল বিশ্বকাপে

লড়াকু জার্মানির লড়াই রঙ আনল, রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে জয় পেয়ে টিকে রইল বিশ্বকাপে

Photo Courtesy - German Football Team / Twitter

Photo Courtesy - German Football Team / Twitter

  • Share this:

    জার্মানি   (২)  রিউস, ক্রুসসুইডেন (১) তইভোনেন

    #সোচি : সুইডেনের বিরুদ্ধে জার্মানির ম্যাচ বুঝিয়ে দিল কেন তারা জার্মান ৷ জার্সির জন্য লড়াই কাকে বলে, শেষ বাঁশি বাজার আগে লড়াই কীভাবে জিইয়ে থাকে সব বুঝিয়ে দিল জার্মানি ৷ ম্যাচ চলাকালীন যখন দশ জন হয়ে যাওয়া জার্মানির দ্বিতীয় ম্যাচেও জয় অধরা থাকবে মনে হচ্ছিল তখন তাদের সঙ্গে আর্জেন্টিনার তুলনা হচ্ছিল , তখনই বোঝা গেল আর্জেন্টিনার সঙ্গে জার্মানির পার্থক্যটা ৷ ৯৫ মিনিটে টনি ক্রুসের ফ্রি কিকে -র অসাধারণ গোলটির জন্য বোধহয় টেনিসের উইনার শব্দটা ব্যবহার করলে ভুল হবে না ৷

    সুইডেনের বিরুদ্ধে গ্রুপ পর্বে ডু অর ডাই ম্যাচে খেদিরা, ওজিলদের বাদ দিয়েই দল সাজিয়েছিলেন জার্মান কোচ জোয়াকিম লো ৷ আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়াতে আরও তরুণ পা নামিয়েছিলেন বিশ্বকাপ জয়ী কোচ ৷ বিপক্ষের পায়ে বল পৌঁছতে না দেওয়ার লক্ষ্যে মাঠ কাঁপাচ্ছিলেন তাঁরা ৷  একের পর এক আক্রমণ আছড়ে  পড়তে থাকে ৷

    কিন্তু ম্যাচের ১২  মিনিটে হঠাৎই কাউন্টার অ্যাটাকে দারুণ উঠে আসে সুইডেন ৷ তবে বক্সের মধ্যে বার্গকে ফাউল করেন বোয়েতাং ৷ নিশ্চিত ফাউলেও অবশ্য সারা দেননি রেফারি ৷ সুইডিশ প্লেয়ারদের VAR-র আবেদন নাকচ করে দেন তিনি ৷

    ম্যাচে অবশ্য শুরুতেই প্রাথমিক ধাক্কা খায় জার্মানি ৷ দলের প্রথম একাদশে থাকা সিবেস্টিয়ান রুডি নাকে চোট পেয়ে রক্তাক্ত হয়ে মাঠ ছাড়েন ৷ এরপরেই আসে প্রাথমিক ধাক্কা ৷ ১২ মিনিটে বক্সে ফাউল করে আটকানো গেলেও ৩২ মিনিটে সুইডিশ আক্রমণ আর আটকানো যায়নি ৷ ম্যানুয়েল ন্যুয়রের ও ডিফেন্সের ভুলের সুযোগ নিয়ে দারুণ গোল করে যান তোইভোনেন ৷ ক্লাসনের বাড়ানো বল বুক দিয়ে নামিয়ে ডান পায়ের টোকায় বল গোলে ঢুকিয়ে দেন ৷

    এদিকে আবার জার্মানির গোলমুখী আক্রমণের সময় ফের বিতর্ক ৷ টমাস মুলারের গোলমুখী আক্রমণের সময় তাঁকে ফাউল করার অভিযোগ তোলেন বিশ্বকাপের গোল্ডেন বুটের মালিক ৷ কিন্তু রেফারি তাঁর আবেদনেও সাড়া দেননি ৷

    ঠিক প্রথমার্ধের ঢঙেই দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেও আক্রমণের ঝড় তোলে জার্মানি ৷ ড্র্যাক্সলারের জায়গায় বদলি হিসেবে নামা মারিও গোমেজের ভাসানো বল লক্ষ্যে পৌঁছে দেন রিউস ৷ সমতা ফেরায় জার্মানি ৷

    একের পর এক আক্রমণে ছিন্নভিন্ন করে দিতে থাকে জোয়াকিম লো-র ছেলেরা ৷ শট অন গোল দাঁড়ায় ১১ টি ৷ বল দখল ৭৪ শতাংশ, পাস অ্যাকুয়রেসি ৮৮ শতাংশ ৷ অন্যদিক বল পেয়ে দ্রুত উঠে যাওয়ার ছকেই টিকে ছিল সুইডেন ৷

    এদিকে ম্যাচের ৮২ মিনিটে সুইডেনের বার্গকে পিছন থেকে ট্র্যাপ করে ফেলে দেওয়ায় দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন বোয়েতাং ৷ ফলে ডবল ইয়েলো-র ধাক্কায় শেষ দশ মিনিটে দশ জন হয়ে যায় জার্মানি ৷

    তবে তারপরেও আক্রমণের পর আক্রমণ শানিয়ে যায় তারা ৷ একের পর আক্রমণের মুখে জাত চেনান সুইডিশ গোলরক্ষক ওলসেন ৷  তবে অতিরিক্ত সময়ে ফ্রি কিক থেকে যে গোল করে গেলেন জার্মানির টনি ক্রুস তা বুঝিয়ে দিল কেন তারা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ৷

    এদিনের জয়ের ফলে গ্রুপ এফ -এ ৩ পয়েন্ট নিয়ে এফ গ্রুপে ২ নম্বরে রইল ৷

    First published:

    Tags: 2018 FIFA World Cup, FIFA 2018, FIFA WC 2018, Germany, Russia World Cup, World Cup 2018

    পরবর্তী খবর