হোম /খবর /ফুটবল /
'দুটো দিন টিভি মিউট করে ম্য়াচ দেখো পারলে প্লিজ', ট্রোলের জবাব রহিম নবির

Syed Rahim Nabi: 'দুটো দিন টিভি মিউট করে ম্য়াচ দেখো পারলে প্লিজ', ট্রোলের জবাব রহিম নবির

একটি বেসরকারি চ্যানেলের হয়ে চলতি ইউরো কাপ ও কোপা আমেরিকায় ধারাভাষ্য দিচ্ছেন তিনি। আর তা নিয়েই এত প্রশ্ন।

  • Last Updated :
  • Share this:

#কলকাতা: পাণ্ডুয়া থেকে জাতীয় দল। এদেশের ফুটবল বিশারদরা তাঁকে ইউটিলিটি ফুটবলার বলেন। এমন ফুটবলার যে কোনও দলের সম্পদ। তবে ফুটবলার জীবন তিনি গর্ব ও সাফল্যের সঙ্গে কাটিয়ে ফেলেছেন। এখন ফুটবলের সঙ্গে যুক্ত থেকেই অনেক কিছু করতে চান। সৈয়দ রহিম নবি সেই চেষ্টাই করছেন। গ্রামবাংলার ফুটবল এগিয়ে নিয়ে যেতে চান। তাই নিয়ম করে বাচ্চাদের ফুটবল প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন। কলকাতা থেকে অনেকটা দূরে থাকলে অনেক অসুবিধা। বিশেষ করে ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন দেখলে তো রাস্তা আরও কঠিন হয়ে পড়ে। তিনি সেটা ভাল করে জানেন। তাই যতটা সম্ভব সাহায্য করেন উঠতি ফুটবলারদের। ফুটবলার রহিম নবিকে নিয়ে কেউ কখনও প্রশ্ন তোলার দুঃসাহস দেখাতে পারেননি। তবে এবার রহিম নবিকে প্রশ্নের মুখে পড়তে হল অন্য কারণে।

ফুটবলার রহিম নবি ধারাভাষ্যকার হিসাবে নিজেকে মেলে ধরতে চেয়েছেন। একটি বেসরকারি চ্যানেলের হয়ে চলতি ইউরো কাপ ও কোপা আমেরিকায় ধারাভাষ্য দিচ্ছেন তিনি। আর তা নিয়েই এত প্রশ্ন। রহিম নবির উচ্চারণ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। তবে তার থেকেও গুরুতর ব্যাপার, রহিম নবির ফুটবলজ্ঞান নিয়েও অনেকে সন্দেহ প্রকাশ করছেন। রহিম নবির উচ্চারণের খুঁত ধরছেন অনেকেই। আর তা নিয়ে ট্রোল চলছে নিয়মিত। তবে রহিম নবির সমর্থনেও অনেকে মাঠে নেমেছেন। ভারতের অন্যতম সেরা ফুটবলারের ফুটবলজ্ঞান নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় অনেকেই সরব হয়েছেন। আবার কেউ বলছেন, রহিম নবির ভাষায় যে মাটির টান রয়েছে সেটাই আলাদা একটা আকর্ষণ যোগ করেছে। অনেকেই বলছেন, এই প্রথম ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে রহিম নবিকে। কিছটা সময় পেলে তিনি অনেক ভাল কমেন্ট্রি করবেন। কারণ তাঁর ফুটবলজ্ঞান অসাধারণ।

তিন প্রধানে চুটিয়ে খেলেছেন। জাতীয় দলের জার্সি গায়েও মাঠে দাপিয়েছেন। এমন একজন ফুটবলার শেষমেশ কমেন্ট্রিতে এসে ট্রোল হলেন। রহিম নিজেও যেন ব্যাপারটা মেনে নিতে পারছেন না। তবে তিনি এত সহজে মাঠ ছেড়ে যাওয়ার মানুষ নন। আর সেটা রহিম নবি বুঝিয়েও দিয়েছেন। তিনি এদিন ফেসবুকে ট্রোলের জবাবে বলেছেন, আমার জন্য এত মানুষ লড়াই করছে। তার মানে আমি ভালই করছি। সবাইকে ধন্যবাদ। আর তো মাত্র দুটো দিন। একটু কষ্ট করে শুনে নেবেন। দরকার হলে মিউট করে ম্য়াচ দেখে নেবেন। সবাই ভাল থাকবেন। অভিমান যেন ঝরে পড়ল তাঁর লেখা শব্দগুলোতে। আধুনিক সমাজে ট্রোল একটা নতুন অস্ত্র। যে এই অস্ত্র ব্যবহার করে তাঁর অবশ্য তেমন কোনও যোগ্যতা লাগে না। কারণ আশেপাশে অনেকেই এখন ট্রোল ব্যাপারটাকেই উপভোগ করেন। এটাই এখন দস্তুর।

Published by:Suman Majumder
First published:

Tags: Commentator, Facebook, Football, Troll