Home /News /sports /

হঠাৎ করেই অলিম্পিক ব্রোঞ্জ পেয়ে যেতে পারেন দীপা !

হঠাৎ করেই অলিম্পিক ব্রোঞ্জ পেয়ে যেতে পারেন দীপা !

অলিম্পিক জিমন্যাস্টিক্সে কী পদক পাবেন দীপা কর্মকার ?

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #লন্ডন:  অলিম্পিক জিমন্যাস্টিক্সে কী পদক পাবেন দীপা কর্মকার ? ফ্যান্সি বিয়ার্স বনাম ওয়াডার লড়াইয়ে হঠাৎ করে এই সম্ভাবনা উসকে গেল। রুশ হ্যাকারদের বিরুদ্ধে আজ, বুধবার সরকারি ভাবে অভিযোগ দায়ের করল ওয়াডা। গোটা ঘটনায় হাত ঝুয়ে ফেলল রাশিয়া।

    আক্ষরিক অর্থেই বদলা। ঠান্ডা লড়াই এবার সাইবারে। রুশ অ্যাথলিটদের প্রতি অবিচার রুখতে ওয়াডার সিক্রেট ডেটাবেস হ্যাক করেছে ফ্যান্সি বিয়ারস নামের রাশিয়ান হ্যাকাররা। আর টার্গেট করা হল মার্কিন অ্যাথলিটদের। গত মঙ্গলবার সেই ডেটাবেস হ্যাক করেন তারা দাবি করেছে,

    সিমানা বাইলস, উইলিয়ামস বোনেদের মতো একাধিক মার্কিন অ্যাথলিট রয়েছেন, যাঁরা রিও অলিম্পিকে ডোপ করেও ছাড়পত্র পেয়েছেন। রুশ হ্যাকারদের মতে, ওই মার্কিন অ্যাথলিটদের জেনে বুঝেই ডোপ করার লাইসেন্স দেওয়া হয়েছিল।

    হ্যাকারদের কাঠগড়ায় দুই তারকা। এবারের অলিম্পিকে তিনটি সোনাজয়ী সিমানো বাইলস এবং মহিলা টেনিসে প্রাক্তন এক নম্বর সেরেনা উইলিয়ামস।

    সিমোনার বিরুদ্ধে অভিযোগ

    জিমন্যাস্টিক্সে দশ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মিথাইলফেনিডেট নামের নিষিদ্ধ মাদক নিয়েছিলেন।

    সেরেনার বিরুদ্ধে অভিযোগ

    মার্কিন টেনিস তারকার বিরুদ্ধে অভিযোগ অক্সিকোডান, হাইড্রোমরফোন, প্রেডনিফোন, মিথাইলপ্রেডনিসোলোনের মতো নিষিদ্ধ মাদক দীর্ঘদিন ধরে খেয়ে যাচ্ছেন।

    ফ্যান্সি বিয়ার্সের দাবি

    ওয়াডার ডেটাবেস হ্যাক করে আমরা দেখেছি, অনেক মার্কিন অ্যাথলিট আছেন, যাঁরা ডোপ টেস্ট ফেল করেছেন। তারপরেও তাঁদের রিও অলিম্পিকে ছাড় দেওয়া হয়েছে। বলা ভাল, তাঁদের ডোপ নিতে লাইসেন্স দেওয়া হয়েছিল।

    ওয়াডার পাল্টা

    হ্যাকাররা যে অভিযোগ করছে এবং যাঁদের নামে অভিযোগ করছেন, তাঁরা আমাদের তালিকাভুক্ত ওষুধই খেয়েছেন। তাই তাঁদের ডোপ পরীক্ষার কোনও প্রয়োজন হয় না।

    dipa5

    দশ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন মিথাইলফেনিডেটের মতো নিষিদ্ধ মাদক নিয়েই অলিম্পিকে নেমেছিলেন। মার্কিন জিমন্যাস্ট সংস্থা পাল্টা জানিয়েছে, ওয়াডার নির্দেশ মতোই ওই ওষুধ সিমানাকে দেওয়া হযেছিল। আর সেরেনার বিরুদ্ধে একাধিক নিষিদ্ধ ড্রাগ নেওয়া দাবি করেছে ওই হ্যাকাররা। তাদের দাবি, এতদিন বিশ্ব টেনিসকে সেরেনার শাসনের পিছনে রয়েছে ওই ওষুধের প্রভাবে।

    হ্যাকারদের এই দাবিতে মোটেই বিচলিত নয় ওয়াডা। বরং তারা পালটা দাবি করেছে, মার্কিন অ্যাথলিটদের নিয়ে যে রটনা হচ্ছে, তাতে তাঁদের কোনও দোষ নেই। কারণ, যে ওষুধগুলি সম্পর্কে বলা হচ্ছে, তার সবক’টি তাদের তালিকায় রয়েছে। সরকারি ভাবে এদিন রুশ হ্যাকারদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অ্যাথলিটদের পাশে দাঁড়িয়েছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক সংস্থা।

    First published:

    Tags: Chance Of Medal Winning, Dipa Karmakar, Gymnastics, Indian Gymnast, Rio Olympics

    পরবর্তী খবর