BCCI: মানুষের সাহায্যে ২০০০ অক্সিজেন কনসেনট্রেটর দিল বোর্ড

মানবিক বিসিসিআই দেশের মানুষের পাশে দাঁড়াল

মারণ ভাইরাসকে রুখতে ১০ লিটারের ২০০০ অক্সিজেন কনসেনট্রেটর দিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড

  • Share this:

    #মুম্বই: এই যুদ্ধের শেষ কোথায় জানা নেই। হতাশা, মৃত্যু এবং প্রিয়জনকে হারানোর যন্ত্রণা এখন দেশের একাধিক ঘরে। ক্রিকেট মাঠে ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে যেমন করে ধেয়ে আসে বাউন্সার, তেমন করেই করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ সব ওলট-পালট করে দিয়েছে। মাঝপথে ভাইরাসের জন্য আইপিএল বাতিল করতে হয়েছে। প্রচুর পরিমাণ আর্থিক ক্ষতি বহন করতে হয়েছে। তাও সামনে থেকে এই যুদ্ধে দেশের মানুষের পাশে দাঁড়াতে চায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

    দেশ জুড়ে বাড়তে থাকা করোনার মোকাবিলা করার জন্য এ বার লড়াইয়ে নামল বিসিসিআই। এই মারণ ভাইরাসকে রুখতে ১০ লিটারের ২০০০ অক্সিজেন কনসেনট্রেটর দিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। এছাড়া কোভিড আক্রান্ত মানুষদের জন্য ওষুধের ব্যবস্থাও করছে সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট সংস্থা। এই বিষয়ে বোর্ড প্রধান সৌরভ বলেন, “দেশের এই কঠিন সময় অগণিত ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীরা একেবারে সামনে থেকে লড়াই করছেন। তবুও এই ভাইরাসকে হারানোর যুদ্ধ এখনও শেষ হয়ে যায়নি। তাই কোভিড যোদ্ধা ও ভাইরাস আক্রান্তদের সাহায্য করার জন্য বিসিসিআই এই উদ্যোগ নিল। আশা করি আমাদের ক্ষুদ্র চেষ্টায় কিছু মানুষের উপকার হবে।”

    সোমবার এই বিষয়ে সরকারী ঘোষণা করা হলেও মহারাজের ক্রিকেট বোর্ড গত কয়েক মাস ধরে অক্সিজেন এবং ওষুধ সরবরাহের কাজ করে আসছে। দেশের কোভিড অবস্থার উন্নতি না হলে বোর্ডের এই কাজ চালু থাকবে। এমনটাই জানা গিয়েছে। সচিব জয় শাহ দেশের মানুষকে অনুরোধ করেছেন সম্ভব হলে ভ্যাকসিন নিয়ে নিতে। পাশাপাশি কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য এ বার অক্সিজেনের ব্যবস্থা করলেন ক্রুণাল ও হার্দিক পাণ্ড্য।

    পাণ্ড্য পরিবারের তরফ থেকে ২০০ অক্সিজেন কনসেনট্রেটর দেওয়া হয়েছে। দেশের ছোট শহরে এই অক্সিজেন পৌঁছে দেওয়া হবে। দুই ভাইয়ের তরফ থেকে এই বিষয়ে টুইট করাও হয়েছে। হার্দিক বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন ছোট শহরে স্বাস্থ্য ব্যবস্থার হাল খুবই খারাপ। তাই সেখানে আমরা অক্সিজেন ও প্রয়োজনীয় ওষুধের জোগান দিলাম। সাধারণ মানুষের ভালবাসা ও আশীর্বাদের জন্যই মাঠে দেশের হয়ে খেলতে পারছি। যাবতীয় সম্মান পাচ্ছি। তাই এমন কঠিন সময় সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলাম ’।

    ক্রিকেট ভারতে শুধু একটা খেলা নয়। ধর্মের সমান। আর সেই ধর্মের দেবতারা আপাতত দেশের মানুষের সেবায়। এখন দেখার এই মানবিক প্রচেষ্টা দেশে সুদিন কবে ফিরিয়ে আনে।যাই হোক, বোর্ডের এই প্রয়াস তারিফ করার যোগ্য।সংকটের সময় এই সাহায্য মানুষের কাজে লাগবে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: