সিরিয়ালকে হার, প্রেমিকের সঙ্গে বিধবা তরুণীর বিয়ে দিল পুলিশ, সাক্ষী মেয়ে

টিভি-র পর্দায় যা রোজ বাড়ি বসে দেখেন তার চেয়েও নাটকে মোড়া এই সত্যি গল্প...

টিভি-র পর্দায় যা রোজ বাড়ি বসে দেখেন তার চেয়েও নাটকে মোড়া এই সত্যি গল্প...

  • Share this:

    #হাওড়া: প্রেমিক প্রেমিকার চার হাত এক  করল পুলিশ | সাঁকরাইলের (Howrah) মানিকপুরে ঘটনায় অন্ধকারে ডুবে যাওয়া পরিবারকে উদ্ধারে পুলিশের ভূমিকায় খুশি গ্রামবাসী | কেন হঠাৎ পুলিশ কে উদ্যাগ নিতে হল এমন কর্মকাণ্ডের ? গ্রামবাসীদের থেকে জানা যাচ্ছে, সাঁকরাইলের মানিকপুর ফাঁড়ির অন্তর্গত নলপুরের বাসিন্দা বৈশাখী মণ্ডলের কয়েক বছর আগেই  স্বামীর মৃত্যু হয় | সেই সময় বৈশাখীর একটি মেয়ে ছিল | এমনকি স্বামীর মৃত্যুর পর সে তার বৃদ্ধা শাশুড়িকেও ছেড়ে চলে যায়নি | এদিক সেদিক থেকে নানা উপায়ে কন্যাসন্তান ও শাশুড়িকে নিয়ে দিন কাটছিলো তাঁর |

    এরই মধ্যে এলাকার এক যুবকের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পরে বৈশাখী | এরপর এলাকায় দুজনকে একাধিকবার একসঙ্গে দেখাও যায় | কয়েকদিন আগে এলাকার সেই যুবক বিফল মণ্ডলকে বৈশাখীর ঘরেই দেখতে পায় এলাকার বাসিন্দারা | এভাবে ধরা পড়ে গিয়ে চক্ষুলজ্জার কারণে এলাকা থেকে গা ঢাকা দেন বিফল | এরপর স্থানীয় বাসিন্দাদের  জিজ্ঞাসাবাদে বৈশাখী দেবী বিফল বাবুর সাথে প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি স্বীকার করে নেন | তারপর স্থানীয় মানিকপুর থানায় পুরো বিষয়টা জানান স্থানীয়রা| বেশ কিছু গ্রামবাসীরা মহিলার এই কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে সরব হতে থাকে | আসলে সমাজ এখনও বিধবা মহিলাদের নিজের মতো জীবন যাপন মেনে নিতে পারেনা | উল্টোদিকে বিফল বাবুর পরিবারের তরফেও আসে বাধা কারণ তাদের প্রশ্ন ছিল পরিবারের নববধূ হবে কিনা একজন বিধবা ? শুধু কি বিধবাও নয়, সে তো আবার এক কন্যার মা, তাহলে উপায় ?

    কিন্তু ভালোবাসা তো আর এই সব মানে না তাই আগে পিছু না ভেবেই বৈশাখী ও বিফল এগিয়ে চলে তাদের পথে | কিন্তু পরিস্থিতি আরও বিপাকে যায় যখন তাঁদের সম্পর্ক সকলেই জেনে যান৷  মহিলার ও নিজের সম্মান বাঁচাতে এলাকা থেকে গা ঢাকা দেয় বিফল | খবর পেয়ে আসরে নামে পুলিশ | বিফল বাবুর খোঁজ শুরু করে | মোবাইল টাওয়ার ট্র্যাক করে পুলিশ | অবশেষে রবিবার থানায় এসেই যোগাযোগ করে  বিফল বাবু বৈশাখীকে বিয়ে করার কোথাও জানান |

    কিন্তু তাঁদেরর একটাই ভয় সমাজ কি বলবে ? সমাজ কি তাদের এই সম্পর্ক মেনে নেবে ? অবশেষে সোমবার রাতে বিফল মণ্ডল ও বৈশাখী মণ্ডলকে ছাদনা তলায় বসার ব্যবস্থা করা থেকে শুরু করে পুলিশরা৷  কন্যাদান থেকে শুরু হিন্দুরীতিতে বিয়ের সব নিয়মই পালন করেন পুলিশ কর্মীরা |  স্থানীয়দেরও করা হয় নিমন্ত্রণ | নতুন করে সংসার বাঁধার আনন্দের মধ্যেও নিজের মাতৃত্বের কোন ত্রুটি হতে দেয়নি বৈশাখী দেবী | মেয়েকে পাশে বসিয়েই সারেন সামাজিক রীতিনীতি |  বিফলবাবুর সাথে নতুন সংসার বাঁধলেও তার একটাই আবেদন ছিল যেখানেই থাকবেন তারা  সেখানেই ঠাঁই দিতে হবে তাঁর আগের  শাশুড়ি ও তাঁর কন্যাকে | সেই আবেদনে সাড়া দেন বিফল বাবুও | পুলিশের তত্বাবধানে বিয়ের পর পাত পেরে খাওয়াদাওয়ারও ব্যবস্থা করে পুলিশ |

    Debasish Chakraborty

    Published by:Debalina Datta
    First published: