‘ঘরে সবার মা বোন আছে, ভোটটা ভেবে দিবি’, ভিডিও ভাইরাল হতেই মুখ খুললেন কৌশানী

‘ঘরে সবার মা বোন আছে, ভোটটা ভেবে দিবি’, ভিডিও ভাইরাল হতেই মুখ খুললেন কৌশানী

কৃষ্ণনগরে ভোটপ্রচারে কৌশানী । ছবি- ফেসবুক ।

সম্প্রতি কৌশানীর একটি ভিডিও নিয়ে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া । সেখানে নায়িকাকে বলতে শোনা গিয়েছে ‘ঘরে সবার মা বোন আছে, ভোটটা ভেবে দিবি’।

  • Share this:

    #কৃষ্ণনগর: বিধানসভা নির্বাচনের আগুনে এখন পুড়ছে গোটা রাজ্য । দু’দফা নির্বাচন হয়ে গিয়েছে । আরও ছ’দফা বাকি । কোন ফুল রাজ্যে ক্ষমতায় আসছে তা নির্ধারিত হবে ২ মে । অনেকে আবার লাল-জমানা ফেরার স্বপ্নও দেখছেন । তবে ভোটের ফলাফল যাই হোক না কেন, রাজনৈতিক দলগুলো বিনা যুদ্ধে কাউকে এক ইঞ্চি মাটিও দিচ্ছে না । যতদিন যাচ্ছে সেয়ানে-সেয়ানে লড়াই ততই জমে উঠছে । ভোট বাজারে পথে নেমেছেন একাধিক টলিউড তারকারাও । তৃণমূলের টিকিটে কৃষ্ণনগর উত্তরের প্রার্থী টলি-নায়িকা কোশানী মুখোপাধ্যায় (Kaushani Mukherjee) । তাঁর বিরুদ্ধে বিজেপির হেভি ওয়েট প্রতিপক্ষ মুকুল রায় ।

    সম্প্রতি কৌশানীর একটি ভিডিও নিয়ে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া । ‘মুকুল রায়’ নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে । সেখানে নায়িকাকে বলতে শোনা গিয়েছে ‘ঘরে সবার মা বোন আছে, ভোটটা ভেবে দিবি’। এই ভিডিও নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হতেই বিতর্ক, কটূক্তি শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্যের ভোট মানচিত্রে সবচেয়ে যুযধান দুই পক্ষের মধ্যে । গেরুয়া শিবির এই ভিডিওকে সামনে রেখে আক্রমণ করেছে ঘাসফুলকে । অন্যদিকে, তৃণমূল প্রার্থী কৌশানী বলেছেন, তাঁর বক্তব্যের ভুল ব্যখ্যা করা হয়েছে ।

    ওই ভিডিওর বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে এ দিন নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে একটি লাইভ করেছেন কৌশানী । সেখানে তিনি বলেছেন, গোটা বক্তব্যের মধ্যে খানিকটা অংশ কেটে নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে বিজেপি । এটা পদ্ম শিবিরের আইটি সেলের কাজ । পুরো ভিডিওটি না দেখিয়ে, নির্দিষ্ট একটা অংশ কেটে নিয়ে তা ভাইরাল করা হচ্ছে । তিনি নিজে কখনও বিরোধী প্রার্থীর প্রতি কটাক্ষ করেননি বলেও দাবি করেন এ দিন । বিজেপি শাসিত রাজ্যে মা-বোনেদের কী অবস্থা, বারবার সে সব জায়গায় হাতরসের মতো ঘটনা ঘটে, তবু প্রশাসন কোনও কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করে না, এই প্রক্ষিতেই কথাটা তিনি বলেছেন বলে ওই লাইভ ভিডিওয় দাবি করেন কৌশানী । পাশাপাশি তিনি এও বলেন, ‘‘আমি আমার টিমকে বলব, পুরো ভিডিয়োটি যাতে তাঁরা প্রকাশ করেন। সাধারণ মানুষ যাতে সবটা দেখতে পান।’’

    Published by:Simli Raha
    First published:

    লেটেস্ট খবর