শক্তিগড়ের ল্যাংচার দোকানে ভেলকি দেখিয়ে হাত সাফাই দুই বিদেশির! মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে চম্পট

শক্তিগড়ের ল্যাংচার দোকানে ভেলকি দেখিয়ে হাত সাফাই দুই বিদেশির! মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে চম্পট

রবিবার সন্ধের ঘটনা মোটা অঙ্কের টাকা গায়েব হয়ে গেলেও কোনও দোকানের মালিক বা কর্মীরা সামান্য টেরটুকুও পায়নি।

  • Share this:

#বর্ধমান: একেই বলে ভেলকি। চোখের পলকে হাত সাফাই। এক রকম ভেলকি দেখিয়েই পর পর কয়েকটি দোকানে বেশ কয়েক হাজার টাকা হাত সাফাই করে চম্পট দিল দুই বিদেশি। চোখের ধাঁধা কাটিয়ে ক্যাস মেলাতে গিয়ে হাঁ ব্যবসায়ীরা। কিন্তু ততক্ষণে গাড়ি নিয়ে নাগালের অনেক বাইরে সেই দুজন। কোথাও দোকানের মালিক কোথাও  ম্যানেজারকে দাঁড় করিয়ে বোকা বানিয়ে বর্ধমানের শক্তিগড়ের দুটি ল্যাংচার দোকান থেকে মোট ২৫ হাজার টাকা নিয়ে  চম্পট দিল দুই বিদেশি ।

রবিবার সন্ধের ঘটনা মোটা অঙ্কের টাকা গায়েব হয়ে গেলেও কোনও দোকানের মালিক বা কর্মীরা সামান্য  টেরটুকুও পায়নি। ঘন্টা খানেক পর ক্যাস বাক্সের টাকায় গড়মিল ধরা পড়ায় সিসিটিভির ফুটেজ খতিয়ে দেখে চক্ষু চড়কগাছ ল্যাংচা দোকানের মালিকদের।ততক্ষণে কাজ হাসিল করে  নিরাপদ দূরত্বে চম্পট দিয়েছে দুই প্রতারক।

বর্ধমানের ২ নম্বর জাতীয় সড়কের দু'পাশে  শক্তিগড়ে সারিবদ্ধ ভাবে ল্যাংচার দোকান ।রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ছ'টা নাগাদ এক ব্যক্তি তার মহিলা সঙ্গীকে নিয়ে একের পর এক ল্যাংচার দোকানে অপারেশন চালায়।কোনও দোকানে তারা চারটে পাঁচশো টাকার নোট দিয়ে একটি দু'হাজার টাকার নোট চায়। আবার কোনও দোকানে পঞ্চাশ টাকার জিনিস কিনে দু'হাজার টাকার নোট ধরিয়ে দেয়।ক্যাস বাক্স থেকে টাকার বাণ্ডিল বের করে খুচরো টাকা ফেরত দেওয়ার সময় বিভিন্ন ভাবে বা ছলনায় টাকার বাণ্ডিলকে কব্জা করে প্রতারক। আবার কোনও দোকানে আসল বা নকল টাকার নোট চেনানোর সময় ক্যাস বাক্সের নোটের বাণ্ডিল থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাত সাফাই করে। চোখের সামনে হাতসাফাই হলেও কেউই ব্যাপারটা তখন বুঝতে পারে নি।

বিক্রেতারা জানান, দু'জনে ইংরেজিতে কথা বলছিল।চেহারার ধরন ও ভাষা শুনে তারা দু'জনই যে বিদেশি সেই বিষয়ে নিশ্চিত ছিলাম। সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়ছে তারা দোকানে ঢুকেছে ও বেড়িয়ে গেছে পায়ে হেঁটে ।কোন গাড়ির ছবি সিসি ক্যামেরায়ঢঝঢধরা পড়ে নি।সুতরাং তারা কি ভাবে বা কোন গাড়িতে করে অপারেশন করতে যায় তা নিয়ে ধন্দে পুলিশ। শক্তিগড় থানার পুলিশ ঘটনার খবর পেয়ে যায় ল্যাংচার দোকানে। পুলিশ সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করে তদন্ত শুরু করেছে।

First published: February 24, 2020, 9:45 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर