দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ঘন কুয়াশার জেরে সাতসকালে ভয়াবহ পথদুর্ঘটনা বর্ধমানে, আহত অন্তত ৩০ জন

ঘন কুয়াশার জেরে সাতসকালে ভয়াবহ পথদুর্ঘটনা বর্ধমানে, আহত অন্তত ৩০ জন

তবে ঘন কুয়াশার কারণে দু'টি বাসের গতিই তুলনামূলক কম ছিল। তা না হলে দুর্ঘটনা আরও ভয়াবহ হতে পারতো।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: কুয়াশার মধ্যে রাস্তার কিছুই দেখা যাচ্ছিল না। আলো জ্বেলে চলাচল করছিল যানবাহন। তবুও কয়েক হাত দূরের সব কিছু অস্পষ্ট দেখাচ্ছিল। তারই মধ্যে অতি ধীর গতিতে চলাচল করছিল বাস অন্যান্য যানবাহন। এইরকম পরিস্থিতির মধ্যে দৃশ্যমানতা কম থাকার কারণে মুখোমুখি সংঘর্ষ হল যাত্রী বোঝাই দু’টি বাসের। পূর্ব বর্ধমান জেলার ভাতারে এমনই দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনায় দু’টি বাসের অন্তত ৩০ জন যাত্রী আহত হয়েছেন। কয়েকজনের আঘাত বেশ গুরুতর। তাঁদের বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনার পর পরই স্থানীয় বাসিন্দারা আহত যাত্রীদের উদ্ধারের কাজে হাত লাগান। একটি বাস বর্ধমান থেকে বহরমপুর যাচ্ছিল। অপর বাসটি মালডাঙা থেকে বর্ধমানের দিকে যাচ্ছিল।

ঘন কুয়াশার কারণে বৃহস্পতিবার সাত সকালে বড় দুর্ঘটনা পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে। এ দিন বর্ধমান কাটোয়া রোডের ভাতারের বেলেণ্ডা পুলের কাছে দু'টি যাত্রী বোঝাই বেসরকারি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনায় ৩০ জন যাত্রী আহত হয়। আহত যাত্রীদের উদ্ধার করে প্রথমে ভাতার গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে কয়েক জন গুরুতর আহত যাত্রীকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়।

বর্ধমানগামী বাসের পিছনে আবার একটি মালবাহী গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ধাক্কা দেয়।একটি বাসের চালক বাসের মধ্যে ঘন্টা খানেক আটকে থাকে। স্থানীয় বাসিন্দারা দুর্ঘটনার পর উদ্ধারের কাজে হাত লাগায়। পরে খবর পেয়ে ভাতার থানার পুলিশ দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। আহত যাত্রী ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ঘন কুয়াশার জন্য দৃশ্যমানতা একেবারেই কমে গিয়েছিল। ফলে খুব কাছের কোনও কিছুই ঠিক মত দেখা যাচ্ছিল না। তার জন্যই এ দিন দু'টি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। তবে দু'টি বাসের গতি তুলনামূলক কম ছিল। তা না হলে দুর্ঘটনা আরও ভয়াবহ হতে পারতো। টানা চারদিন ধরে সকালে ঘন কুয়াশায় ঢাকা পড়ছে দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলা গুলির মতই পূর্ব বর্ধমান জেলা। এ দিনের দুর্ঘটনা ঘটল তার জেরেই।

Published by: Simli Raha
First published: December 10, 2020, 12:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर