স্বাস্থ্য কর্মাধ্য়ক্ষের ছেলেকে অপহরণের চেষ্টা, ভোটের আগে উত্তপ্ত ধুলিয়ান

স্বাস্থ্য কর্মাধ্য়ক্ষের ছেলেকে অপহরণের চেষ্টা, ভোটের আগে উত্তপ্ত ধুলিয়ান

Own Story

  • Share this:
Pranab Kumar Banerjee
#ধুলিয়ান: পুরভোটের আগে উত্তপ্ত ধুলিয়ান। ছেলেকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগে সামশেরগঞ্জ থানায় ধরনায় বসেন মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের স্বাস্থ্য় কর্মাধ্য়ক্ষ আনারুল হক। স্বাস্থ্য় কর্মাধ্য়ক্ষের অভিযোগ, সামশেরগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক আমিরুল ইসলাম তাঁর ছেলেকে অপহরণের চেষ্টা করেন। তৃণমূল বিধায়ককে গ্রেফতারের দাবিতে ধরনায় বসেন আনারুল। থানা ঘিরে বিক্ষোভও দেখান আনারুলের সমর্থকরা। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সামশেরগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক।
মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের স্বাস্থ্য় কর্মাধ্য়ক্ষ আনারুল হকের অভিযোগ অনুযায়ী, শুক্রবার সকালে স্কুলে যাচ্ছিল তাঁর ছেলে। আনারুলের দোকানের এক কর্মীই তাঁর ছেলেকে প্রতিদিন স্কুলে পৌঁছে দেন। মোটর সাইকেলে স্কুল যাওয়ার সময়ে হঠাৎই তাঁদের উপর চড়াও হয় সামশেরগঞ্জের বিধায়ক আমিরুল ইসলামের লোকজন। চারদিক থেকে তাঁদের ঘিরে ফেলা হয়। আনারুলের ছেলেকে অপরহণের চেষ্টা করা হয় বলেও অভিযোগ। তবে পড়ুয়ার চিৎকার শুনে ছুটে আসেন  আশেপাশের বাসিন্দারা। দুষ্কৃতীরা বেগতিক বুঝে চম্পট দেয়। তবে আনারুলের তোলা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল বিধায়ক আমিরুল ইসলাম।
শুক্রবারের এই ঘটনায় ধুলিয়ানে চাঞ্চল্য় ছড়িয়েছে।  ধুলিয়ানে কয়েকমাসের মধ্য়েই পুরভোট। পুরভোটের আগে এই ধরনের ঘটনায় তৃণমূল শিবিরে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বও ফের একবার প্রকট হয়েছে।
এই ঘটনা প্রসঙ্গে জেলা পরিষদের স্বাস্থ্য় কর্মাধ্য়ক্ষ আনারুল হক বলেন, "আমার ছেলে স্কুলে যাওয়ার সময় তাকে অপহরণের  চেষ্টা করে কয়েকজন দুষ্কৃতী। স্থানীয় মানুষদের প্রচেষ্টায় প্রাণে বেঁচে যায়। এলাকার বিধায়ক এই কাজের ইন্ধন দিচ্ছে। আমরা তারই প্রতিবাদে সামশেরগঞ্জ থানা ঘেরাও করে প্রতিবাদ জানাচ্ছি। বিধায়কের নামে অভিযোগ জানিয়েছি।" অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সামশেরগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক আমিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, "আমার বিরুদ্ধে একটা ষড়যন্ত্র চলছে। আমাকে ও দলকে কালিমালিপ্ত করতেই এই কাজ করা হচ্ছে । পুলিশ তদন্ত করলে সঠিক তথ্য উঠে আসবে।" আনারুল হককে ঘটনার পূর্ণাঙ্গ ও নিরপেক্ষ তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন পুলিশকর্তারা। পুলিশের আশ্বাস বিক্ষোভ বন্ধ করেন আনারুলের সমর্থকরা। ধরনা প্রত্য়াহার করেন আনারুল হক।
প্রণব বন্দ্য়োপাধ্য়ায়
First published: February 14, 2020, 4:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर