অসুস্থ বিজেপি কর্মী, বাড়ি গিয়ে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড দিলেন তৃণমূলের প্রশাসক! সৌজন্য দেখল বারাসাত

বাড়ি গিয়ে বিজেপি কর্মীর স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের ব্যবস্থা৷

  • Share this:

    #বারাসাত: তৃণমূলের পৌর প্রশাসকের মানবিক উদ্যোগে স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের সুফল পেল বারাসাতের এক অসহায় বিজেপি কর্মীর পরিবার। বাড়ি গিয়ে অসুস্থ বিজেপি কর্মীর জন্য স্বাস্থ্যসাথী কার্ড তৈরির ব্যবস্থা করে দিলেন পুরসভার প্রশাসক তথা তৃণমূলের বিদায়ী চেয়ারম্যান৷ একই সঙ্গে ভেলোরে নিয়ে ওই বিজেপি কর্মীর চিকিৎসার জন্য বিমানের টিকিটেরও ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে৷

    বারাসাতের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের বিবেকানন্দ রোড সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা মাধব পাল। স্ত্রী-পুত্র নিয়ে সংসার। সংসারের আয় বলতেই বিশেষ কিছু নেই। তারউপর ছেলে রাজু পাল দীর্ঘ দিন ধরে অসুস্থ। পাড়ায় একজন সক্রিয় বিজেপি কর্মী হিসেবে পরিচিত রাজু পাল । ছেলের শারীরিক পরিস্থিতি দিনের পর দিন অবনতি হওয়ায় একান্ত নিরুপায় হয়ে বারাসাত পুরসভার প্রশাসক সুনীল মুখোপাধ্যায়ের কাছে ছুটে যান রাজু পালের বাবা-মা। ছেলের চিকিৎসার জন্য ভেলোর নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন। মাধববাবুর পরিবারের আর্থিক পরিস্থিতি ও ছেলের অসুস্থতার কথা জানতে পেরে তড়িঘড়ি চিকিৎসার সুবন্দোবস্ত করতে উদ্যোগী হন প্রশাসক সুনীল মুখোপাধ্যায়।

    তড়িঘড়ি পুরসভার স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করানোর দায়িত্বে থাকা সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সাথে কথা বলেন সুনীল বাবু। তাঁর নির্দেশে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড তৈরি সমস্ত সরঞ্জাম নিয়ে বিবেকানন্দ রোড সংলগ্ন মাধব বাবুর বাড়িতে হাজির হয় সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য সাথী কার্ড তৈরি করার কর্মীরা। প্রশাসক সুনীল মুখোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই স্বাস্থ্য সাথী কার্ড মাধব বাবুর পরিবার হাতে তুলে দেওয়া হয়। পাশাপাশি প্রশাসক সুনীল মুখোপাধ্যায় ভেলোরে চিকিৎসা করতে যাওয়ার জন্য চারটি বিমানের টিকিটের ব্যবস্থা করেন। সুনীল বাবুর এই মানবিক উদ্যোগকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মাধব বাবু ও তাঁর পরিবার।

    এ বিষয়ে সুনীল মুখোপাধ্যায় বলেন, 'মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা কোনও দল মত দেখিনি। মানুষের জন্য আমরা এগিয়ে এসেছি। মানুষ যখন অসহায় অসুস্থ হয়ে পড়েন, তখন তাঁদের পাশে দাঁড়ানো আমাদের নৈতিক কর্তব্য। এটা তারই এক ক্ষুদ্র প্রয়াস৷'

    Jiaul Alam

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: